Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ১৮ ফাল্গুন ১৪২১ মঙ্গলবার ৩ মার্চ ২০১৫
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
নির্বাচন কমিশনকে সঠিক তথ্য দিল তৃণমূল--দীপঙ্কর নন্দী ।। মেপে পা ফেলতে চাইছেন মুকুল--রাজীব চক্রবর্তী, দিল্লি ।। বিধানসভায় এবার চিটফান্ড-আলোচনা--অরূপ বসু ।। ফেসবুকে গোয়েন্দা-নজর!--রিনা ভট্টাচার্য ।। প্যাকেজ? মুখ্যমন্ত্রী বললেন ফালতু! ।। পুরভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি তুলছে বি জে পি ।। বাপরে আপ! বিদ্রোহী যোগেন্দ্র--প্রশাম্ত ভূষণকে নিয়ে তুমুল অশাম্তি ।। তিস্তা: ১০ বছরের অম্তর্বর্তী চুক্তির পথে এগোচ্ছে ভারত--তারিক হাসান ।। বিশ্রামও জরুরি, দাবি ধোনির ।। ডালমিয়া! খুশি বাংলার ক্রিকেটমহল ।। অভিজিৎ রায় খুন, ঢাকায় গ্রেপ্তার ।। ৪৫০ বস্তায় জাল ১০ কোটি
বাংলা

নির্বাচন কমিশনকে সঠিক তথ্য দিল তৃণমূল

1980-2015

পুরভোটে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি তুলছে বি জে পি

ঋণ নিয়ে উন্নয়নই হচ্ছে: তৃণমূল

প্যাকেজ? মুখ্যমন্ত্রী বললেন ফালতু!

ফেসবুকে গোয়েন্দা-নজর!

শুধু পকেট ভারী করার উন্নয়ন হয়েছে: বিমান

উচ্চশিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান এবার থেকে হবেন শিক্ষামন্ত্রী

জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বুধবার চাক্কা জ্যাম ডাকল ডি ওয়াই এফ আই

বাঙালিদের পছন্দ করে না বি জে পি: গৌতম

রোজভ্যালির এজেন্ট আত্মঘাতী

আজ খুলে যাচ্ছে অমল হোম সংগ্রহশালা

বর্ধমানের নতুন পুলিস সুপারের দায়িত্বভার গ্রহণ

অরূপ-হত্যা: লালবাহাদুরও ধরা পড়ল

২ লক্ষ কোটি উপঢৌকন!

স্বস্তিকার পর জামিন পেলেন নাট্যকর্মী সুমন

পার্থর আশ্বাস

মদন: হল না জামিন-শুনানি

নির্বাচন কমিশনকে সঠিক তথ্য দিল তৃণমূল

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

দীপঙ্কর নন্দী




দল তৈরি নিয়ে মুকুল রায় মিডিয়াকে যে-সব তথ্য দিচ্ছেন, তা অধিকাংশই ঠিক নয়৷‌ নির্বাচন কমিশনের কাছে দলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদকের কোনও পদ নেই৷‌ দিল্লির নির্বাচন কমিশনের কাছে দলের পক্ষ থেকে সঠিক কাগজপত্র জমা দেওয়া হল৷‌ সদ্য তৈরি হওয়া দলের কর্মসমিতির সদস্যদের নামের তালিকাও নির্বাচন কমিশনের কাছে জমা দেওয়া হয়েছে৷‌ দল তৈরির শুরুতেই সুব্রত বক্সি রাজ্য সভাপতি৷‌ তৃণমূল তৈরির সময় নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে মমতাকে কোনও বিশেষ প্রতীক দেওয়া হয়নি৷‌ মমতা নিজেই সে সময় জোড়া ফুল এঁকে নির্বাচন কমিশনকে জমা দেন৷‌ কমিশন মমতাকে বলে, জোড়া ফুল দেওয়া যেতে পারে, কিন্তু আগামী লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলকে ৪ শতাংশ ভোট পেতে হবে৷‌ ১৯৯৮ লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল ৯টি আসন পায়৷‌ দল তৈরির সময় মমতা ছাড়াও ছিলেন সুদীপ ব্যানার্জি ও অজিত পাঁজা৷‌ রাজ্য কমিটি তৈরি হয়েছিল, তাতে কয়েকজন সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে মুকুলও একজন ছিলেন৷‌ সেই সময় কংগ্রেস থেকে এফিডেভিট করে যাঁরা তৃণমূলে এসেছিলেন, তাঁদের কাগজপত্র সবই আছে৷‌ নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, সমস্ত কাগজপত্র দলের পক্ষ থেকে জমা দেওয়া হয়েছে৷‌ মুকুলের দেওয়া ভুল তথ্য প্রমাণ করার জন্যই নির্বাচন কমিশনের কাছে আবার কাগজপত্র জমা দেওয়া হল৷‌ সেই সঙ্গে দলের আয়-ব্যয় হিসেবও জমা দেওয়া হয়েছে৷‌ নিজাম প্যালেসে বসে রবিবারই মুকুল জানিয়েছিলেন, সুব্রত বক্সি যেসময় দলে এসেছেন, সে সময় তিনি ব্যাঙ্কের কর্মী ছিলেন৷‌ ফলে কাগজপত্রে স্বাক্ষর করার কোনও অধিকার তাঁর ছিল না৷‌ মুকুল ঠিক তথ্য দিচ্ছেন না বলে দলের পক্ষ থেকে অনেকেই জানিয়েছেন৷‌ ২০০০ সালে সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেস তৈরি হয়৷‌ তার আগে রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস তৈরি হয়ে গেছে৷‌ নির্বাচন কমিশন চেয়ারম্যানের পদকে স্বীকৃতি দেয় না৷‌ দল থেকে এ নিয়ে কিছু জানানো হয় না৷‌ রাজ্য সভাপতিকেই নির্বাচন কমিশন স্বীকৃতি দেয়৷‌ সোমবার ভোরের বিমানে মুকুল দিল্লি গেছেন৷‌ তার পরের বিমানে দিল্লি গেছেন রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি৷‌ দিল্লির সূত্রে জানা গেছে, কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে এদিন তিনি নির্বাচন কমিশনে গিয়েছিলেন৷‌ শনিবার মমতার কালীঘাটের বাড়িতে বৈঠকে দলের সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে মুকুলকে সরিয়ে নিয়ে আসা হয় রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সিকে৷‌ এও বলা হয়, এখন থেকে তিনি নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে মুকুলের পরিবর্তে যোগাযোগ রাখবেন৷‌ মমতা সবসময় দলের স্বচ্ছতা বজায় রাখতে চান৷‌ অন্য রাজ্যের তৃণমূল নেতাদের সঙ্গেও বক্সি সমন্বয় রেখে কাজ করবেন৷‌ বক্সির অনেকটাই দায়িত্ব বাড়িয়ে দিলেন মমতা৷‌ দিল্লিতে দলকে যাতে কেউ অপদস্হ করতে না পারে তার জন্য দলের নেতাদের বিশেষ নির্দেশ দিয়েছেন নেত্রী৷‌ চোখ-কান খোলা রাখতে বলেছেন৷‌ মুকুলের গতিপথের ওপরও নজর রাখছে দল৷‌ তৃণমূলের সঙ্গে গোলমাল শুরু হওয়ার সময় যাঁরা মুকুলের সঙ্গে ছিলেন, তাঁদের মধ্যে অনেকেই মুকুলের পাশে এখন নেই৷‌ ছেলে বিধায়ক শুভ্রাংশু রায় ইতিমধ্যেই বিধানসভায় মমতার পা ছুঁয়ে প্রণাম করেছেন৷‌ সোমবার শুভ্রাংশু বিধানসভায় এসেছিলেন৷‌ অনেকক্ষণ তিনি খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের ঘরে সময় কাটিয়ে যান৷‌ যদিও উত্তর ২৪ পরগনায় নির্বাচন কমিটিতে শুভ্রাংশুকে রাখা হয়নি৷‌ শুভ্রাংশুর অবশ্য এতে কোনও আক্ষেপ নেই৷‌ দলকে জানিয়েছেন, তিনি একজন অনুগত সৈনিকের মতো কাজ করবেন৷‌ এদিন বিধানসভায় নিজের ঘরে বসে দলের মহাসচিব পার্থ চ্যাটার্জি সাংবাদিকদের বলেন, মুকুল ভেসে থাকার জন্য নানারকম কথা বলছেন৷‌ তিনি তো দলেই আছেন৷‌ তাই ওর বিরুদ্ধে কি মম্তব্য করব? দলের মধ্যে থেকে দল সম্পর্কে যদি বলেন, তা হলে সেটা প্রাসঙ্গিক৷‌ বাইরে থেকে কেউ যদি কোনও কথা বলেন, সেটা অপ্রাসঙ্গিক হয়ে পড়ে৷‌ বি জে পি-র সর্বভারতীয় নেতা সিদ্ধার্থনাথ সিং এদিন কলকাতায় এসে মুকুল সম্পর্কে বলেছেন, দুর্নীতির সঙ্গে যারা যুক্ত থাকেন বি জে পি-তে তাদের স্হান নেই৷‌ পার্থ বলেন, বনগাঁ, কৃষ্ণগঞ্জ নির্বাচনের সময় সিদ্ধার্থনাথ বাংলায় এসে বড় বড় ভাষণ দেন৷‌ দুটি উপনির্বাচনে ফল ঘোষণার পর দেখা গেল, সিদ্ধার্থনাথকে সাধারণ মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে৷‌ আসলে তিনি বাংলার রাজনৈতিক ইতিহাস জানেন না, তাঁর সঙ্গে দেখা হলে তাঁর হাতে রাজনৈতিক ইতিহাসের বই তুলে দেব৷‌ ওর কথার কোনও গুরুত্ব নেই৷‌ রাজ্য নেতারা যা শিখিয়ে দিচ্ছেন, তাই তিনি বলছেন৷‌





kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited