Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ১০ ভাদ্র ১৪২১ বুধবার ২৭ আগস্ট ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
সংসদীয় বোর্ড থেকে বাদ আদবানি, যোশি ।। অধীর সরিয়ে দিতেই ক্ষুব্ধ শঙ্কর: অকৃতজ্ঞ ।। ডি ভি সি: রঘুনাথপুরে জমি বিক্রির চেক নিতে অভূতপূর্ব সাড়া! ।। নকল: অপমানিত অধ্যক্ষপদত্যাগ করেও ফিরলেন ।। মুম্বই, চেন্নাইয়ের ব্যবসায়ীর খোঁজে সি বি আই ।। সোনিয়াকে ভাঙন ঠেকাবার প্রস্তাব দিলেন মানস ।। বি জে পি-কে চাপ শিবসেনার: মোদি হাওয়ায় ভরসা নেই ।। ‌ট্যাক্সি ফের উধাও হবে কলকাতায়? ।। রায়দিঘি-খুন: জেল থেকে ছাড়া পেলেন সি পি এম নেতা বিমল ।। রাজস্হানে কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে এস এফ আইয়ের বিরাট জয় ।। ১৩ সেপ্টেম্বর বি জে পি-র ফের পরীক্ষা ।। রাজারহাটের নীলোৎপল কোথায়?
বাংলা

নকল: অপমানিত অধ্যক্ষপদত্যাগ করেও ফিরলেন

অধীর সরিয়ে দিতেই ক্ষুব্ধ শঙ্কর: অকৃতজ্ঞ

রাজ্যে এলোমেলো সরকার চলছে: রাহুল

মোদি-হাওয়া কাটছে, মোহভঙ্গ হচ্ছে: এক মত কং, তৃণমূল, সি পি এম

তদম্ত আরও দ্রুত করুক সি বি আই: অসীম

মুম্বই, চেন্নাইয়ের ব্যবসায়ীর খোঁজে সি বি আই

যারা শিল্প তাড়ায় তাদের ডাকে শিল্প আসে? শ্যামল

তাপস-মামলা: জট খুলল না

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর রুট

রায়দিঘি-খুন: জেল থেকে ছাড়া পেলেন সি পি এম নেতা বিমল

ডি ভি সি: রঘুনাথপুরে জমি বিক্রির চেক নিতে অভূতপূর্ব সাড়া!

সরকারের প্রশ্রয় তোলাবাজদের

শারদোৎসবে দিল্লি মাতাবে মছলন্দপুরের প্রমীলা ঢাকি

বসিরহাট দক্ষিণ উপনির্বাচনের জন্য কংগ্রেস, বি জে পি, সি পি এমের মনোনয়ন পেশ

শিল্পতালুকে ১০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ, ১১০০ জনের কর্মসংস্হান: অমিত

মনোনয়ন জমা দিলেন ফৈয়াজ, রীতেশ

রাজারহাটের নীলোৎপল কোথায়?

নকল: অপমানিত অধ্যক্ষপদত্যাগ করেও ফিরলেন

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

অমিতকুমার ঘোষ, কৃষ্ণনগর

২৬ আগস্ট– পরীক্ষায় অবাধে টুকতে দেওয়ার দাবি করেছিলেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যরা৷‌ অধ্যক্ষ সেই অন্যায় দাবি মানেননি৷‌ স্বচ্ছভাবে পরীক্ষার ব্যবস্হা করেছিলেন৷‌ আর এর জেরেই তাঁকে হেনস্হা, অপমান করা হয়৷‌ কটু কথাও শুনতে হয় ছাত্রদের কাছে৷‌ পরীক্ষা শেষে অপমানিত অধ্যক্ষ ড. কৃষ্ণগোপাল রায় দারোয়ানের হাতে পদত্যাগপত্র দিয়ে বেরিয়ে যান৷‌ এই ঘটনা নদীয়ার চাপড়া বাঙ্গালঝি কলেজে৷‌ এর পরিপ্রেক্ষিতে কড়া মনোভাব নেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি৷‌ বলেন, ‘দোষীদের নাম পাঠাতে বলেছি৷‌ কড়া ব্যবস্হা নেব৷‌’ কলেজের পরিচালন সমিতির কাছে দোষীদের নাম চেয়েও পাঠান৷‌ যদিও তিনি বলেন, তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যরা এর সঙ্গে জড়িত নয়৷‌ কলেজের সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা এটা করেছে৷‌ সরকার অধ্যক্ষের পাশে আছে৷‌ তাঁকে পদত্যাগপত্র প্রত্যাহারেরও অনুরোধ করেন পার্থবাবু৷‌ এরপর রাতে অধ্যক্ষ ড. কৃষ্ণগোপাল রায় তৃণমূল জেলা সভাপতি গৌরী দত্তর বাড়িতে সাংবাদিক বৈঠক করেন৷‌ বলেন, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে৷‌ উনি পাশে আছেন৷‌ তাঁর সদর্থক মনোভাবের কারণে আমি পদত্যাগপত্র প্রত্যাহার করব৷‌ সোমবার ছিল কলেজে বি এ পার্ট ১-এর পরীক্ষা৷‌ হোম সেন্টারেই পরীক্ষা দিচ্ছিলেন ছাত্রছাত্রীরা৷‌ তৃণমূল ছাত্র পরিষদ চেয়েছিল অবাধে টুকতে দিতে হবে কলেজের ছাত্রছাত্রীদের৷‌ অধ্যক্ষ ড. কৃষ্ণগোপাল রায় এই অন্যায় দাবি মানেননি৷‌ স্বচ্ছভাবে পরীক্ষা হবে বলে জানিয়ে দেন৷‌ টুকতে বাধা পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন ছাত্রছাত্রীরা৷‌ কলেজের দাদাদের জানান৷‌ তাঁরা অধ্যক্ষকে হেনস্হা করেন৷‌ কটু কথা শোনান৷‌ কলেজ ছুটির পর অপমানিত অধ্যক্ষ দারোয়ানের হাতে একটি খাম ধরিয়ে বেরিয়ে যান৷‌ মঙ্গলবার জানা যায়, অধ্যক্ষ পদত্যাগপত্রই দারোয়ানের হাতে দিয়ে বেরিয়ে গেছেন৷‌ সে-কথা স্বীকারও করেন পরিচালন সমিতির সভাপতি অজিত তরফদার৷‌ তিনি জানিয়েছেন, ‘কলেজের অধ্যক্ষ কৃষ্ণগোপাল রায়ের পদত্যাগপত্র মঙ্গলবার দুপুরে পেয়েছি৷‌ তিনি শারীরিক কারণে পদত্যাগ করছেন বলে লিখেছেন৷‌’ এদিকে পদত্যাগপত্রে যা-ই লেখা থাক, পরীক্ষায় টুকতে না দেওয়ার পর তৃণমূল ছাত্রছাত্রীদের হেনস্হা, কটু কথায় অপমানিত হয়েই তিনি শেষ পর্যম্ত পদত্যাগ করেছেন বলে অভিযোগ৷‌ এ বিষয়ে অধ্যক্ষ কৃষ্ণগোপাল রায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি৷‌ তাঁর মোবাইলে ফোন করা হলে তিনি ধরেননি৷‌ এ বিষয়ে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের নদীয়া জেলা সভাপতি অয়ন দত্ত জানিয়েছেন, ‘খোঁজখবর নিচ্ছি৷‌ যদি আমাদের কেউ জড়িত থাকলে কড়া ব্যবস্হা নেওয়া হবে৷‌ নদীয়ার চাপড়া বাঙ্গালঝি কলেজ প্রায় ১৫ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত৷‌ প্রথম থেকেই এই কলেজের অধ্যক্ষ পদে আছেন ড. কৃষ্ণগোপাল রায়৷‌ পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তির মানুষ ড. রায় অন্যায়ের কাছে মাথা নত করার মানুষ নন৷‌ চাপড়ার এই কলেজের শৈশব থেকে পরিণত অবস্হায় পৌঁছনোর ক্ষেত্রে তাঁর ভূমিকা অপরিসীম৷‌ চাপড়ার প্রাক্তন বিধায়ক শামসুল ইসলাম মোল্লা জানিয়েছেন, ‘অধ্যক্ষ ড. রায় খুবই ভাল মানুষ৷‌ কলেজের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে তাঁর ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ৷‌’ কলেজের পরিচালন সমিতির সভাপতি অজিত তরফদার জানিয়েছেন, ‘অধ্যক্ষ মানুষ হিসেবে খুবই ভাল৷‌ কলেজের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে তাঁর ভূমিকা অনস্বীকার্য৷‌ পরীক্ষায় নকল করতে বাধা দিতে গিয়ে তাঁকে অপমানিত হতে হয়েছে বলে শুনছি৷‌ তবে তাঁর পদত্যাগপত্রে সেসব কিছু লেখা নেই৷‌ শারীরিক অসুস্হতার কারণে তাঁর পদত্যাগ বলে তিনি জানিয়েছেন৷‌ এ বিষয়ে বুধবার কলেজের পরিচালন সমিতির বৈঠক ডাকা হয়েছে৷‌ এদিকে এস এফ আই মঙ্গলবার কলেজের সামনে সভা করে এই ঘটনার প্রতিবাদে৷‌ তারা ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে স্বাক্ষর সংগ্রহ করে অধ্যক্ষকে পদে বহাল রাখার জন্যে আবেদনপত্র পাঠিয়েছে পরিচালন সমিতির সভাপতির কাছে৷‌ এস এফ আইয়ের নদীয়া জেলা সম্পাদক জাহাঙ্গির আলি জানিয়েছেন, ‘আমরা দোষীদের শাস্তি দাবি করছি৷‌’ সোমবার কলেজে বি এ পার্ট ১-এর পরিবেশবিদ্যার পরীক্ষা ছিল৷‌ এই পরীক্ষায় হোম সেন্টারেই পরীক্ষা দেওয়া যায়৷‌ আর সেই পরীক্ষায় টুকতে দেওয়ার ব্যবস্হা করতে চেয়েছিল তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ও তাদের পরিচালিত ছাত্র সংসদ৷‌ কিন্তু অধ্যক্ষ বাধা দেন৷‌ তার ফলে কিছু ছাত্র অধ্যক্ষকে কটু কথা বলে৷‌ এতে অপমানিত হয়ে অধ্যক্ষ সোমবার দিনের শেষে কলেজের এক দারোয়ানের হাতে পদত্যাগপত্র দিয়ে চলে যান৷‌ কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করা হয়েছে৷‌ সংগঠনের সম্পাদক অধ্যাপক শ্রুতিনাথ প্রহরাজ দাবি করেছেন, অধ্যক্ষ যাতে মর্যাদার সঙ্গে ওই কলেজে কাজ করতে পারেন তার ব্যবস্হা করতে হবে৷‌


kolkata || bangla || bharat || editorial || post editorial || khela || Tripura ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited