Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ১ আশ্বিন ১৪২১ বৃহস্পতিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
তুলকালাম কাণ্ড ঘটল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে ।। আজ থেকে লাগাতার ‌ট্যাক্সি ধর্মঘট, কাল পরিবহণ ।। আত্মঘাতী আসামের প্রাক্তন ডি জি শঙ্কর--সব্যসাচী সরকার ।। মোহনবাগানের কর্তারা গেলেন ই ডি দপ্তরে--সদানন্দের ফের হেফাজত, রতিকাম্ত বসু সি বি আই দপ্তরে ।। বসিরহাট দক্ষিণ: ২১শে পর্যালোচনায় গৌতম ।। জঙ্গলমহলে গুলির লড়াই, মৃত ১ কোবরা জওয়ান ।। অভিযোগ নথিভুক্ত না হলেও ‘লাভ জেহাদ’ আছে: মানেকা ।। বাঙালি বিধবাদের বৃন্দাবন ছাড়তে বললেন হেমা মালিনী! ।। যাদবপুর-কাণ্ড: প্রতিবাদে ধিক্কার মিছিল অধ্যাপকদের ।। সাঈদির ফাঁসি রদ, শাহবাগ ফের উত্তাল ।। আজ ছাত্র ধর্মঘট ।। রাজ্যপালের কাছে পার্থ
বাংলা

অন্ধকাবের জীবরা বেরিয়ে পড়েছে: সূর্যকাম্ত

পুজোর ক’দিন নাকে নথ, পায়ে মল শীল বাড়ির মেয়েদের

আজ থেকে লাগাতার ‌ট্যাক্সি ধর্মঘট, কাল পরিবহণ

টিভি দেখানোর নাম করে মুখে কাপড় বেঁধে ধর্ষণ শিশুকন্যাকে!

তৃণমূল নিশ্চিত: বসিরহাট দক্ষিণে কংগ্রেসই বি জে পি-কে জিতিয়ে দিল

মোহনবাগানের কর্তারা গেলেন ই ডি দপ্তরে

আত্মঘাতী আসামের প্রাক্তন ডি জি শঙ্কর

বসিরহাট দক্ষিণ: ২১শে পর্যালোচনায় গৌতম

জঙ্গলমহলে গুলির লড়াই, মৃত ১ কোবরা জওয়ান

রাজ্যপালের কাছে পার্থ, রাজ্যের হাতে ভিডিও ফুটেজ আছে

এগরার পানিপারুলে ভরদুপুরে ২২ লক্ষ ব্যাঙ্ক ডাকাতি!

কারখানা থেকে চলম্ত ট্রেন!

অতুলপ্রসাদের গানে রাজ্যসেরা চোপড়ার মেয়ে

আজ ছাত্র ধর্মঘট

২২ সেপ্টেম্বর বামফ্রন্টের সারদা-বিরোধী মিছিল

বিনা অনুমতিতে রেল স্টেশনে গাছ কাটা যাবে না

তাপস পাল-কাণ্ড: তৃতীয় বিচারপতির ভূমিকা কি?

নবান্নে বিশ্বকর্মা পুজোয় ভোগ খেলেন মুখ্যমন্ত্রীও

ত্রাণ দেওয়ার নামে শিশুকে বাড়িতে ডেকে ধর্ষণ!

অন্ধকাবের জীবরা বেরিয়ে পড়েছে: সূর্যকাম্ত

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

আজকালের প্রতিবেদন: যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে মাঝরাতে পুলিসের লাঠিচার্জ ও মারধরের ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া জানাল রাজ্যের ডান, বাম-সহ বিরোধী দলগুলি৷‌ রাজ্যপাল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর কাছে তাঁর হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন বি জে পি নেতারা৷‌ রাজ্যের বিরোধী দলনেতা বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে ছাত্রছাত্রীদের পাশে দাঁড়ান৷‌ সেখানেই রীতিমতো ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, অন্ধকারের জীবরা বেরিয়ে পড়েছে৷‌ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনায় তা ফের একবার প্রমাণিত৷‌ যাদবপুরের আহত ছাত্রছাত্রীদের হাসপাতালে দেখতে গিয়ে একথা বললেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা ডা৷‌ সূর্যকাম্ত মিশ্র৷‌ তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্ধকার আকাশ থেকে আসেনি৷‌ ইচ্ছে করে আলো নিভিয়ে ছাত্রছাত্রীদের মারা হয়েছে৷‌ রাজ্যে অন্ধকারের রাজত্ব চলছে, তাই অন্ধকারের জীবরা বেরিয়ে পড়েছে বলে তিনি মম্তব্য করেন৷‌ তিনি বলেন, পুরুষ পুলিসরাই মহিলাদের জামা-কাপড় ছিঁড়ে দিয়েছে৷‌ এর থেকে লজ্জার আর কিছুই হতে পারে না৷‌ উপাচার্য সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, এই উপাচার্যের থেকে এর চেয়ে বেশি কিছু আশা করা যায় না৷‌ আচার্য রাজ্যপাল একবার এই উপাচার্যের মনোনয়ন বাতিল করে দিয়েছিলেন৷‌ তারপরও সরকার এই উপাচার্যকেই নিয়োগ করেছে৷‌ এখন বোঝা যাচ্ছে আই আই টি থেকে যে অধ্যাপক এসেছিলেন তাঁকে কাজ করতে দেওয়া হয়নি, যাতে এই উপাচার্যকে ফিরিয়ে আনা যায়৷‌ বর্তমান উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চলে গেলেই মঙ্গল হয়৷‌ তিনি জানান, এই ন্যক্কারজনক ঘটনার পেছনে উপাচার্য, পুলিস, শাসকদল, সরকার একসঙ্গে রয়েছে৷‌ সিটু নেতা শ্যামল চক্রবর্তী এদিন বলেছেন, ছাত্রছাত্রীরা তো গণটোকাটুকির দাবিতে বা উপাচার্যকে নিগ্রহ করার জন্য আন্দোলন করছিল না৷‌ তাঁরা ন্যায্য একটি দাবিতে, এক ছাত্রীর নিগ্রহের প্রতিবাদে কিছু দাবিদাওয়া পেশ করছিল৷‌ এতে একেবারে পুলিস ডাকতে হল? আই এন টি ইউ সি নেতা রমেন পান্ডে বলেন, আমরা সারাবছর শ্রমিকদের দাবিদাওয়া নিয়ে আন্দোলন করি৷‌ কিন্তু যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে যা ঘটেছে তাতে চুপ করে থাকা যাচ্ছে না৷‌ আমরা এর প্রতিবাদে ছাত্ররা যে আন্দোলন করছে তার পাশে আছি৷‌ বামফ্রন্টের সমস্ত শরিকদল এদিন তীব্র নিন্দা করেছে এই ঘটনার৷‌ চেয়ারম্যান বিমান বসু সাংবাদিকদের বলেছেন, রাতে আলো নিভিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে পুলিস এসে আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীদের মারধর করছে! এমন ঘটনা অতীতে ঘটেছে বলে মনে করতে পারছি না৷‌ উত্তাল দিনে ছাত্র আন্দোলন করা বিমান বসু এদিন বলেন, আমরাও আন্দোলন করেছি৷‌ কংগ্রেস আমলে ক্যাম্পাসে পুলিস ঢোকার ঘটনা ঘটলেও এভাবে মারধরের ঘটনা ঘটেছে বলে মনে করতে পারছি না৷‌ ছাত্রছাত্রীরা তো উপাচার্যের সম্তানসম৷‌ তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে দলতন্ত্র কায়েম করার ফল এই ঘটনা৷‌ নির্বাচিত সমস্ত সংস্হার ক্ষমতা কমিয়ে দিয়ে মনোনীতদের প্রাধান্য দিয়েছে এই সরকার৷‌ সে জন্যই একজন উপাচার্য তাঁর সম্তানসম ছাত্রছাত্রীদের ওপর এমন করতে পেরেছেন৷‌ তাদের এভাবে পুলিস দিয়ে মার খাওয়ানো যায়? তাঁর প্রশ্ন, ২৮ আগস্ট এই আন্দোলন শুরু হয়েছে বলে জানি৷‌ আজ ১৭ সেপ্টেম্বর৷‌ ছাত্রদের দাবিদাওয়া নিয়ে আন্দোলন এতদিন ধরে চলছে কেন? কর্তৃপক্ষ কী করছিল? সমস্যা তো আলোচনার মাধ্যমে মেটানো যায়৷‌ ছাত্ররা কী এমন দাবিতে আন্দোলন করছিল? আসলে এটা শিক্ষায় দলতন্ত্র প্রতিষ্ঠারই ফল৷‌ তিনি বলেন, নিন্দা জানানো ছাড়া আর কোনও কোনও ভাষা আসে না মুখে৷‌ বিমান বসুর আবেদন, ছাত্র-যুব সংগঠনের সমস্ত সদস্য তীব্র প্রতিবাদে সোচ্চার হোন৷‌ আমাদের সমর্থন থাকবে৷‌ বি জে পি রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহা জানান, এই বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে গর্ব করি৷‌ ঐতিহ্যবাহী এই প্রতিষ্ঠানের সম্মান নষ্ট করতে চাইছে তৃণমূল৷‌ তাঁর অভিযোগ, বহিরাগতদের পাঠিয়ে পুলিসের সঙ্গে হামলা চালানো হয়েছে৷‌ উপাচার্যের অপসারণ দাবি করেন তিনি৷‌ সি পি আই (এম এল) লিবারেশন রাজ্য সম্পাদক পার্থ ঘোষ জানিয়েছেন, অবিলম্বে এর সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে শাস্তি দেওয়া উচিত৷‌ রাজ্য সরকারটা কীভাবে চলছে, তা এই ঘটনা দেখে বোঝা যাচ্ছে৷‌ এদিন যাদবপুর নিয়ে তীব্র আন্দোলনের নির্দেশ দেন বিমান বসু৷‌ বুধবার আলিমুদ্দিনে রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠকের দিন ছিল না, তবু মদন ঘোষ ও অন্যদের ডেকে নেন বিমানবাবু৷‌ ডাকেন যাদবপুরের প্রাক্তনী, বর্তমানে রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য সুজন চক্রবর্তী, আরেক প্রাক্তনী শমীক লাহিড়ীকে৷‌ আলোচনার পরই অন্য দুই বাম ছাত্র সংগঠন পি এস ইউ এবং এ আই এস এফের সঙ্গে ডি এস ও-কে সঙ্গে নিয়ে টানা ক্লাস বয়কটের ডাক দেওয়া হয়৷‌ ঠিক হয়েছে ছাত্রদের এই আন্দোলনকে অন্যদের নিয়ে বৃহত্তর পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে৷‌ কিন্তু এতে সাধারণ ছাত্রদের অভিমত নিতে আজ বিকেলে আবার ছাত্র সভার বৈঠক ডাকা হয়েছে৷‌ জুটার বামপম্হী অধ্যাপক নেতৃত্বকেও সক্রিয় করা হয়েছে৷‌ এদিন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরি বলেন, শুধু যাদবপুরে নয়, গোটা বাংলা জুড়েই সন্ত্রাস চালানো হচ্ছে৷‌ শিক্ষা ব্যবস্হায় নৈরাজ্য চলছে৷‌ আইন নেই, শৃঙ্খলা নেই৷‌ পুলিসের অস্তিত্ব নেই৷‌ সবাই সারদা নিয়েই ব্যস্ত৷‌ সারদা-কাণ্ড থেকে বাঁচতে মন্ত্রীরা প্রতিদিনই হয় দক্ষিণেশ্বর, নয় কালীঘাটে যাচ্ছেন৷‌ নকশালপম্হী নেতা অসীম চ্যাটার্জি বলেন, এই আন্দোলন সারা বাংলার ছাত্রদের আন্দোলন৷‌ এখান থেকেই তৃণমূল সরকারের শেষের শুরু হয়েছে৷‌ উপাচার্য তৃণমূলের ক্যাডারের মতো ব্যবহার করছেন৷‌ রাতের অন্ধকারে পুলিসকে ডেকে তিনি যা করেছেন, ইতিহাসে তার নজির নেই৷‌ সি পি এম সাংসদ, এস এফ আই সাধারণ সম্পাদক ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, তৃণমূলের ঠ্যাঙাড়ে বাহিনী সর্বত্র অত্যাচার চালাচ্ছে৷‌ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসও বাদ যাচ্ছে না৷‌ এর প্রতিবাদে আন্দোলন করতেই হবে৷‌ সরকার যে ভাষা বোঝে সেই ভাষাতেই প্রতিবাদ করতে হবে৷‌ এস ইউ সি-র রাজ্য কমিটির সম্পাদক সৌমেন বসু এই ঘটনার নিন্দা করেছেন৷‌ এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, পুলিসের এই আচরণ গণতান্ত্রিক রীতিনীতির চূড়াম্ত পরিপম্হী৷‌ স্বাধীনতার আগে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুও ছাত্র আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছেন৷‌ স্বাধীনতার পরেও ছাত্র আন্দোলন হয়েছে৷‌ কিন্তু পুলিস শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে তাঁদের মারধর করবে সেটা ভাবাই যেত না৷‌ কিন্তু গত এক দশকে বার বার পুলিস শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে মারধর করেছে৷‌ ২০০৫-এও ফ্রন্ট সরকারের সময় একই ঘটনা ঘটেছিল৷‌ বন্দীমুক্তি কমিটির পক্ষে ছোটন দাস এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে অবিলম্বে দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন৷‌


kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited