Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৬ কার্তিক ১৪২১ শুক্রবার ২৪ অক্টোবার ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
মোম, আতশের আলোয় মাতোয়ারা রাজ্যে থিমও এবার নায়ক--কাকলি মুখোপাধ্যায় ।। আজ খাগড়াগড়ের ঘটনাস্হলে যাবেন এন আই এ-র ডি জি--চন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় ।। পুলিস হাসপাতালের সামনেই দেদার ‘ক্যাডবেরি’!--সোমনাথ মণ্ডল ।। টাকার উৎস খুঁজতে জেলা পুলিসেরই সাহায্য নিচ্ছে এন আই এ, ই ডি ।। কলকাতার কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠক ডাকলেন মমতা--দীপঙ্কর নন্দী ।। তৃণমূল কাউন্সিলরের নেতৃত্বে তথ্যপ্রযুক্তি কর্তাকে মারধর, অফিস ভাঙচুর দুর্গাপুরে ।। শিবসেনা: ১৯৯৫-এর সূত্র বি জে পি: কী করে হবে? ।। শরিফকে গদিচ্যুত করতে জনমত গড়বেন বিলাওল ।। কেশপুরে তৃণমূল নেত্রী খুনে সন্দেহের তীর স্বামীর দিকে ।। জনসংযোগ বাড়াতে রাজ্য মানবাধিকার কমিশন এবার ফেসবুকে ।। সিয়াচেনের হিম-কঠোর উচ্চতায় মোদির দেওয়ালি ।। খুলেও খুলল না জেসপ, হতাশায় ৬৫০ শ্রমিক!
বাংলা

মোম, আতশের আলোয় মাতোয়ারা রাজ্যে থিমও এবার নায়ক

আলোয় ভাসছে বারাসত, পুজো উদ্বোধনে মন্ত্রী থেকে অভিনেত্রী

টাকার উৎস খুঁজতে জেলা পুলিসেরই সাহায্য নিচ্ছে এন আই এ, ই ডি

পুলিস হাসপাতালের সামনেই দেদার ‘ক্যাডবেরি’!

কেশপুরে তৃণমূল নেত্রী খুনে সন্দেহের তীর স্বামীর দিকে

তৃণমূল কাউন্সিলরের নেতৃত্বে তথ্যপ্রযুক্তি কর্তাকে মারধর, অফিস ভাঙচুর দুর্গাপুরে

বসিরহাটে তৃণমূল নেতা গুলিবিদ্ধ, এলাকায় আতঙ্ক

ঝাড়পোঁছ চলছেই, উৎপাদন শুরু নিয়ে সংশয়ে শ্রমিকরা

জনসংযোগ বাড়াতে রাজ্য মানবাধিকার কমিশন এবার ফেসবুকে

আজ খাগড়াগড়ের ঘটনাস্হলে যাবেন এন আই এ-র ডি জি

খুলেও খুলল না জেসপ, হতাশায় ৬৫০ শ্রমিক!

কাটোয়ায় জমি কিনে শিল্প গড়ছে এন টি পি সি

ক্যানিং থেকে গ্রেপ্তার জাল ও বি সি সার্টিফিকেটের চাঁই

জলে ডুবে মৃত্যু সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রের

মোম, আতশের আলোয় মাতোয়ারা রাজ্যে থিমও এবার নায়ক

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

কাকলি মুখোপাধ্যায়




আতশের রোশনাই, আলোর সজ্জায় উজ্জ্বল হয়ে উঠল রাজ্য৷‌ দীপাবলির উৎসবে কলকাতা-সহ গোটা রাজ্যই বৃহস্পতিবার সন্ধে থেকে মেতে ওঠে৷‌ আলোর মালায়, আলোর বাজিতে ঝলমলে হয়ে ওঠে কালীপুজোর রাত৷‌ সারা দেশে সাড়ম্বরে হল দেওয়ালি উৎসব৷‌ তবে এবারও শব্দদৈত্যের দাপট ছিল বেশ কলকাতা, শহরতলিতে, জেলায় জেলায়৷‌ দুর্গাপুজোর পর কালীপুজোতেও থিমের চমক৷‌ বারাসত, মধ্যমগ্রাম থেকে হলদিয়ায় দেখা গেছে থিমের মণ্ডপ৷‌ দেখতে মানুষের ঢল৷‌ কালীঘাট, দক্ষিণেশ্বর, আদ্যাপীঠের মতো পীঠস্হানগুলিতে পুজো দিতে সকাল থেকে হাজির হয়েছিলেন হাজার হাজার পুণ্যার্থী৷‌ আলোকসজ্জায় সেজে ওঠে তিলোত্তমা কলকাতা৷‌ কলকাতার প্রাচীনতম পুজোগুলির আয়োজন ছিল জমজমাট৷‌ ঠনঠনিয়া, লেক কালীবাড়ি, ফিরিঙ্গি কালীবাড়ি, করুণাময়ী, কাপালিটোলা লেনের দাসবাড়ির পুজোয় ভিড় জমিয়েছিলেন অসংখ্য ভক্ত৷‌ পুরনো কলকাতার পুজোগুলির মধ্যে অন্যতম আমহার্স্ট স্ট্রিটের সাধারণ কালী পুজো কমিটির পুজো৷‌ সোমেন মিত্রের পুজো বলে পরিচিত৷‌ এবার আমহার্স্ট স্ট্রিটের পুজোমণ্ডপ সেজে উঠেছে হস্তশিল্পের সমাহারে৷‌ কলকাতার পুরনো পুজোগুলির মধ্যে অন্যতম ফাটাকেষ্টর পুজো৷‌ যা আজও একই আড়ম্বরের সঙ্গে হচ্ছে৷‌ প্যাগোডার আদলে তৈরি হয়েছে ফাটাকেষ্টর মণ্ডপ৷‌ প্রতিমা সাজানো হয়েছে সোনার গয়নায়৷‌ কালীপুজোয় সেরার লড়াইয়ে এগিয়ে রইল দক্ষিণ কলকাতা৷‌ বিশাল শিবলিঙ্গের আদলে তৈরি হয়েছে চেতলা অগ্রণীর মণ্ডপ৷‌ রয়েছে চোখ ধাঁধানো মায়াবি আলোর সমাহার৷‌ দক্ষিণেশ্বরে ভবতারিণীর মন্দির তৈরির আগে বরানগরে কালীমন্দির তৈরি করেছিল জয় মিত্র পরিবার৷‌ ৫ বছর বরানগর কালীমন্দিরেই পুজো হয়৷‌ কথিত আছে, রানী রাসমণির ওই মন্দির দেখে পছন্দ হয় এবং তিনি ওই মন্দিরের আদলে তৈরি করেন দক্ষিণেশ্বর মন্দির৷‌ বেলুড় মঠে মহা ধুমধাম করে কালীপুজো হয়েছে৷‌ মঠের মধ্যেই শ্যামা প্রতিমা তৈরি করে পুজো হয়৷‌ রাত ৯টা থেকে পুজো শুরু হয়৷‌ মঠের মূল মন্দিরে পুজোর আয়োজন করা হয়৷‌ পুজো চলে সারারাত৷‌ তবে কোনও বলি দেওয়া হয় না৷‌ শুধু কালীপুজোয় প্রতিমা তৈরি করে পুজো হয় বেলুড় মঠে৷‌ দক্ষিণেশ্বর, তারাপীঠ, আদ্যাপীঠে সকাল থেকেই মানুষের ঢল নামে৷‌ উত্তর কলকাতার ৮৪ নম্বর মুক্তারামবাবু স্ট্রিটের রামসুন্দর মিত্রের বাড়ির কালী মিঠাই কালী নামে পরিচিত৷‌ ৩৫৭ বছরের পুরনো এই পুজো৷‌ প্রতিমার গলার সমান থরে থরে সাজানো হয় নানা রকম মিষ্টি৷‌ এর মধ্যে দেড়শো কেজি লাড্ডু দেওয়া হয়৷‌ এ ছাড়া থাকে খাজা, গজা এবং অন্যান্য মিষ্টি৷‌ অমরনাথ মিত্র, অহিন মিত্র ও অরূপ মিত্রর তত্ত্বাবধানে বর্তমানে মিত্রবাড়ির পুজো একই মর্যাদায় হয়ে আসছে৷‌ বেহালা সরশুনার বাগপোতা নেতাজি সঙেঘর পুজো এবার ১৭ বছরে পড়ল৷‌ এবারে তাদের থিম পাটের ব্যবহার৷‌ দূষণমুক্ত পরিবেশ গড়তে আরও বেশি করে পাট ব্যবহার করা হোক– এই বার্তা দিয়েই তাদের পুজোমণ্ডপ পাটকাঠি দিয়ে তৈরি৷‌ সমগ্র পরিকল্পনায় সৌমিত সর্দার এবং প্রলয় সর্দার৷‌ নেপালের মনোকামনা মন্দিরের আদলে তৈরি হয়েছে সল্টলেকের মৈত্রী সঙেঘর মণ্ডপ৷‌ বিধাননগর বি এফ ব্লকের এই পুজো বিধায়ক সব্যসাচী দত্তের পুজো বলে পরিচিত৷‌ বিধাননগরের সেরা পুজোর মধ্যে অন্যতম বি ডি ব্লকের বলাকা স্পোর্টস ক্লাবের পুজো৷‌ টেরাকোটা মন্দিরের আদলে তৈরি হয়েছে মণ্ডপ৷‌ প্রতিমার অলঙ্কার সোনার৷‌ পুজোর প্রধান পৃষ্ঠপোষক বিধাননগরের পুরপ্রধান পারিষদ অনুপম দত্ত৷‌ এ ছাড়া সুকাম্তনগর সেন্ট্রার ফর কালচার অ্যান্ড স্পোর্টস, সুকাম্তনগর স্পোর্টিং ক্লাব, নবজ্যোতি স্পোর্টিং ক্লাব ও সুকাম্তননগর বিবেকানন্দ স্পোর্টিং ক্লাবের পুজো উল্লেখযোগ্য৷‌ যোধপুর পার্ক গোল্ডেন ড্রিমস ক্লাবের শ্যামা পুজোর উদ্বোধনে ছিলেন শোভনদেব চ্যাটার্জি, রতন দে, অনিমেষ ভট্টাচার্য, শঙ্করলাল রায় প্রমুখ৷‌ বাগুইআটির স্কুলপাড়ায় কৈশোরিক-এর পুজোমণ্ডপে এক সঙ্গে ৬৬টি প্রতিমার পুজোর আয়োজন করা হয়েছে৷‌ ৬৬ জন পুরোহিত এক সঙ্গে বসে পুজো করছেন৷‌ কেষ্টপুরের হানাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাব ও প্রগতি সঙেঘর পুজোও বেশ আকর্ষণীয়৷‌ এ ছাড়া কৃষ্ণপুর পালপাড়া বালক সঙেঘর পুজো এবার ২৬ বছরে পড়ল৷‌ এদিকে হলদিয়ায় চৈতন্যপুর বিবেকানন্দপুর মিশন আশ্রমে নিষ্ঠা সহকারে কালীপুজো হয়৷‌ হুগলির ভাণ্ডারহাটি যোগ, ন্যাচারোপ্যাথি ও স্বাস্হ্য দপ্তরের উদ্যোগে কালীপুজোর আয়োজন করা হয়৷‌ পুজোর উদ্বোধন করেন শ্রম দপ্তরের পরিষদীয় সচিব তপন দাস৷‌ ছিলেন যোগ বিশারদ তুষার শীল৷‌ এদিন বয়স্কদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়৷‌ রাজাবাজার, নিউ টাউন, বারাসত, নৈহাটি– সর্বত্র জমজমাট কালীপুজোর আসর৷‌ বাবা-মা সব সমস্যার মধ্যে দিয়ে সম্তানকে বড় করে তোলেন৷‌ আর শেষ বয়সে তাঁর আশ্রয়স্হল হয় বৃদ্ধাশ্রম৷‌ বৃদ্ধাশ্রমকে থিম করেই সেজে উঠেছে দমদমের বন্ধুবান্ধব ক্লাবের পুজোমণ্ডপ৷‌ দেশ-বিদেশের নানা গাছের পাতা ও ছাল দিয়ে সাজানো হয়েছে মণ্ডপটি৷‌





kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited