Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৫ বৈশাখ ১৪২১ শনিবার ১৯ এপ্রিল ২০১৪
Aajkaal 33
 প্রথম পাতা   বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  সংস্কৃতি  ঘরোয়া  পর্দা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
রাতভর হোটেলে জেগে কাটালেন মমতা ।। আমাকে মেরে ফেলার চক্রাম্ত করা হয়েছিল: মমতা ।। মুখ্যমন্ত্রীর সভার কাছেই জিলেটিন স্টিক উদ্ধার হল! ।। বি জে পি-র অঙ্ক: পদ্ম ফুটবে বাংলা থেকে ।। সততার প্রতীক এখন সারদার প্রতীকে পরিণত হয়েছেন: বুদ্ধদেব ।। টাকা লেনদেনের দুই চিঠি পেল ই ডি, নজরে বহু ব্যবসায়ী ।। মোদি ঢেউ নেই যে যোশিকে কে জেতাবে!--দেবারুণ রায়, কানপুর ।। ক্ষমতায় এলে দুর্নীতিরোধেই জোর--নিজেও তদম্তের ঊধের্ব নই: মোদি ।। গার্সিয়া মার্কেস: অত্যাশ্চর্য জীবনের ইতি ।। এবার ইট-পাটকেল ধেয়ে এল কেজরিওয়ালের দিকে! ।। সারদার ১২৮০ কোটি টাকার খোঁজে ই ডি ।। সি বি আই চাইলেন বিমান
পর্দা

সুপারি কিলার যখন গোয়েন্দা

‘ভূত’ দেখছে পুঁজিবাদ

দোয়েলের অগ্নিপরীক্ষা

দৃষ্টিহীন লেখিকার প্রতিবাদ

ছোটদের প্রতিবাদ ‘মৃগয়া’

ভাড়া উসুল হল না

রামধনুর প্রথম ঝলক

সুপারি কিলার যখন গোয়েন্দা

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share



‘কাহানি’র সুপারি কিলার ‘বব বিশ্বাস’ ওরফে শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় এবার গোয়েন্দার ভূমিকায়৷‌ চরিত্রের নাম শবর দাশগুপ্ত৷‌ সম্প্রতি শুরু হল অরিন্দম শীলের পরিচালনায় এই ছবি ‘এবার শবর’-এর শুটিং৷‌

অরিজিৎ বসু

‘প্রথম ছবি ‘আবর্ত’র পর আমার পরিচালনায় এই দ্বিতীয় ছবি ‘এবার শবর’ সত্যিই আমার কাছে একটা চ্যালেঞ্জ৷‌ ‘আবর্ত’ ছিল শ্লথ গতির একটা ছবি, যার বিষয় ছিল মানুষের সঙ্গে মানুষের সম্পর্ক৷‌ আর ‘এবার শবর’-এর গতি ‘আবর্ত’র অম্তত দশগুণ৷‌ ছবিতে আছে মৃত্যু, রহস্য, তদম্ত এবং থ্রিলার এলিমেন্ট’, বললেন অরিন্দম শীল৷‌ সম্প্রতি বালিগঞ্জের এক বাড়িতে শুরু হয়ে গেল তাঁর নতুন ছবি ‘এবার শবর’-এর শুটিং৷‌ আর এই ছবিতেই ‘কাহানি’র সুপারি কিলার বব বিশ্বাস ওরফে শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় হয়ে উঠেছেন পুরোদস্তুর একজন গোয়েন্দা ‘শবর দাশগুপ্ত’৷‌ এর আগে ছোটপর্দায় ফেলুদার সহকারী তোপসে বা বড়পর্দায় ব্যোমকেশ বক্সির সহকারী অজিত হিসেবে দেখা গেছে শাশ্বতকে৷‌ এই প্রথম তিনি অভিনয় করছেন একজন গোয়েন্দার ভূমিকায়৷‌ অরিন্দম শীল অবশ্য বললেন, ‘অজিত নয়, ব্যোমকেশের ভূমিকাতেই অভিনয় করা উচিত ছিল শাশ্বতর৷‌ অম্তত আমি ব্যোমকেশকে নিয়ে ছবি করলে শাশ্বতকে ব্যোমকেশের চরিত্রেই কাস্টিং করতাম৷‌ আর গোয়েন্দা শবর দাশগুপ্তর চরিত্রে ওকে নেওয়ার কারণ, গল্পের শবর দাশগুপ্তর সঙ্গে বেশ কিছু মিল আছে বাস্তবের শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের৷‌’ অন্যদিকে শাশ্বত জানালেন, ‘অনেকদিন ধরেই ইচ্ছে ছিল গোয়েন্দার চরিত্রে অভিনয় করার৷‌ কিন্তু বারবার ফেলুদা আর ব্যোমকেশের সাকরেদি করা সত্ত্বেও গোয়েন্দা আর হয়ে ওঠা হচ্ছিল না৷‌ শেষ পর্যম্ত ‘এবার শবর’ আমার সেই স্বপ্নকে বাস্তবে পরিণত করল৷‌ আমি খুশি৷‌ আরও খুশি এই কারণে, এই শবর দাশগুপ্ত কিন্তু অন্যান্য গল্পের গোয়েন্দাদের মতো নয়৷‌ শবর দাশগুপ্ত অনেকটাই বাস্তবসম্মত রক্ত-মাংসের একটা চরিত্র৷‌’ কেমন চরিত্র এই শবর দাশগুপ্ত? এর আগে বিভিন্ন সাহিত্যিক-সৃষ্ট বিভিন্ন গোয়েন্দা চরিত্রের কীর্তিকলাপ ধরা পড়েছে বড়পর্দায়৷‌ সত্যজিৎ রায়ের ফেলুদা, শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যোমকেশ বক্সি এবং সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের কাকাবাবুর পর এই প্রথম বড়পর্দায় আসতে চলেছে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়-সৃষ্টি এই গোয়েন্দা শবর দাশগুপ্ত৷‌ তথাকথিত প্রাইভেট ইনভেস্টিগেটর, সত্যান্বেষী বা শখের রহস্যসন্ধানী নয়৷‌ এই শবর দাশগুপ্ত খোদ লালবাজারের পুলিস অফিসার৷‌ তবে এক সহকারীও আছে এই শবরের৷‌ তার নাম নন্দলাল৷‌ এই শবর দাশগুপ্তকে কেন্দ্রীয় চরিত্র করে পাঁচটি বড় গল্প লিখেছিলেন শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়৷‌ তারই একটির নাম ‘ঋণ’৷‌ এই গল্পটিকেই বড়পর্দায় তাঁর দ্বিতীয় ছবির বিষয় হিসেবে বেছে নিয়েছেন অরিন্দম শীল৷‌ ‘ছবিতে অবশ্য গল্পটাকে হুবহু অনুকরণ করা হয়নি৷‌ গল্পে খুন হয়ে যাওয়া মিতালী চরিত্রটি ছিল ডাক্তার৷‌ ছবিতে মিতালী একজন চিত্রশিল্পী৷‌ ছবিতে একদম এই সময়ের প্রেক্ষিতে ধরা হয়েছে গল্পটাকে৷‌ তার জন্যেও বেশ কিছু পরিবর্তন করা হয়েছে৷‌ তবে আমি আর পদ্মনাভ প্রায় বছরখানেক ধরে চিত্রনাট্য লেখার পর তা পড়ে শুনিয়েছি শীর্ষেন্দুদাকে৷‌ ওঁর পছন্দও হয়েছে৷‌’ বললেন অরিন্দম শীল৷‌ তবে কি ফেলুদা, ব্যোমকেশ বা কাকাবাবুর পর এবার বড়পর্দাতেও সিরিজ হিসেবে দেখা দেবে শবর দাশগুপ্তও? ‘এখনও নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না৷‌ আসলে সব কিছুই নির্ভর করছে এই ছবির সাফল্যের ওপর৷‌ যদি এই ছবি শীর্ষেন্দুদার ভাল লাগে তবে উনি শবরকে নিয়ে আরও গল্প লিখবেন’, মম্তব্য অরিন্দম শীলের৷‌ এই ‘ঋণ’ গল্পে হঠাৎই খুন হয়ে যাবে চিত্রশিল্পী মিতালী৷‌ আর সেই খুনেরই তদম্তে নামবে শবর দাশগুপ্ত৷‌ এই মিতালীর চরিত্রে অভিনয় করছেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়৷‌ বললেন, ‘এর আগে বিভিন্ন ছবিতে অরিন্দমদার সঙ্গে কাজ করেছি৷‌ তবে ওঁর পরিচালনায় এই প্রথম কাজ করছি৷‌ ছবিতে আমার চরিত্রের দৈর্ঘ্য হয়ত বড় নয়, তবে চরিত্রটা ছবিতে বেশ গুরুত্বপূর্ণ৷‌’ এই মিতালীরই তুতো বোন জয়িতা৷‌ এই চরিত্রে অভিনয় করছেন পায়েল সরকার৷‌ বললেন, ‘কোনও থ্রিলার ছবিতে এই প্রথম অভিনয় করছি৷‌ এই চরিত্রের জন্য নিজেকে অন্যভাবে তৈরি করেছি৷‌ অরিন্দমদা প্রত্যেক শটের আগে দৃশ্যটা বুঝিয়ে দিচ্ছেন৷‌ তাতে কাজটা আরও সহজ হচ্ছে৷‌’ বাংলা ছবিতে ব্যোমকেশ হিসেবে বেশ জনপ্রিয় আবির চট্টোপাধ্যায়৷‌ সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ও সব্যসাচী চক্রবর্তীর পর তৃতীয় ফেলুদা হিসেবেও দেখা যাবে তাঁকে৷‌ অরিন্দম শীলের এই ছবিতে পুলিস বা গোয়েন্দা নয়, বরং এক রহস্যজনক ‘মিটু’ নামক চরিত্রে অভিনয় করছেন আবির৷‌ মিতালী খুনের ঘটনায় যার দিকে উদ্যত সন্দেহের যাবতীয় তীর৷‌ এ ছাড়াও শবরের সহকারীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন শুভ্রজিৎ দত্ত৷‌ বিভিন্ন চরিত্রে আছেন সন্তু মুখোপাধ্যায়, জুন মালিয়া, দেবলীনা দত্ত, ঋত্বিক চক্রবর্তী, রাহুল, কৌশিক গাঙ্গুলি প্রমুখ৷‌ ছবির সঙ্গীত পরিচালনায় বিক্রম ঘোষ৷‌






bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela || sangskriti ||
ghoroa || tv/cinema || Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited