Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ১১ চৈত্র ১৪২১ বৃহস্পতিবার ২৬ মার্চ ২০১৫
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
রোজভ্যালি কর্তা গৌতম কুণ্ডু গ্রেপ্তার ।। বি জে পি রাজ্য দপ্তরে বুধবার ধুন্ধুমার কাণ্ড! ।। চোখে চোখ রেখে কথা বলব: রোহিত--দেবাশিস দত্ত, সিডনি ।। বিদায়ের ঘণ্টা ফ্লেচারের!--দেবাশিস দত্ত, সিডনি ।। অস্ট্রেলিয়াই ফেবারিট--গ্লেন ম্যাকগ্রাথ ।। ভারত জিতলে অবাক হবেন বুকানন!--দেবাশিস দত্ত, সিডনি ।। মহিলাদের বিরুদ্ধে অপরাধ দমনে বাহিনী হবে রাজ্যে ।। ক্রিকেট জুয়া চক্রে কলকাতার সঙ্গে জড়িয়ে গেল কেরল থেকে সিঙ্গুর ।। সাহারা প্রধানের জামিনের চেষ্টা ফের মুখ থুবড়ে পড়ল ।। স্বাধীনতা দিবসে গ্রেপ্তারের ভয়ে শহিদ মিনারে যাবেন না খালেদা ।। বাংলাদেশ ৪৫: শুভেচ্ছা রাষ্ট্রপতির ।। গৌতম দেব বাড়ি গেলেন
আজকাল-ত্রিপুরা

৯৫ ভাগ মানুষ সরকারি স্বাস্হ্য পরিষেবার সুযোগ পান, দেশে আর কোনও রাজ্য নেই

বাজার অন্ধকার করে পিটিয়েছে মাতাল জওয়ানরা

মাখন-সেতু উদ্বোধন করলেন মানিক

৮৫ শ্রমদিবসের দিকে ত্রিপুরা

অর্থনীতি পড়া রূপালি কেন স্বামী শ্বশুর-শাশুড়ির বিরুদ্ধে থানায়?

ভারত-বাংলাদেশের সিভিল সোসাইটি হোক: মুনতাসীর

টি-২০: সোলাঙ্কির লড়াই ব্যর্থ

টুয়েপ-এর কাজ না পেয়ে আমবাসা পুর পরিষদের অফিস ঘেরাও করে রাখলেন মহিলারা

এ ডি সি ভোটে দলের প্রার্থী খুঁজে পাচ্ছে না কংগ্রেস

ঝড়বৃষ্টি হলেই অন্ধকার আর নয়

এ ডি সি ভোটে জোট-এর কাঙাল

৯৫ ভাগ মানুষ সরকারি স্বাস্হ্য পরিষেবার সুযোগ পান, দেশে আর কোনও রাজ্য নেই

খোয়াইয়ে জেলা হাসপাতাল সূচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

অনুপ দত্ত চৌধুরি, খোয়াই

২৫ মার্চ– ত্রিপুরায় শতকরা পঁচানব্বই ভাগ মানুষ সরকারি স্বাস্হ্য পরিষেবার সুযোগটুকু পান৷‌ ভারতের অন্য কোনও রাজ্যে এই অবস্হা নেই৷‌ বক্তা মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার৷‌ বুধবার বেলা ১২টা ১০ মিনিটে কয়েক হাজার মানুষকে সাক্ষী রেখে খোয়াই জেলা হাসপাতালের উদ্বোধন করে কথাগুলি বলেন মানিক সরকার৷‌ খোয়াই মহকুমা হাসপাতালের পুরনো বাড়িটিকেই এদিন মুখ্যমন্ত্রী জেলা হাসপাতালের মুকুট পরান৷‌ বৈদ্যুতিক বোতাম টিপে, প্রদীপ জ্বালিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে খোয়াই জেলা হাসপাতালের উদ্বোধন করেন তিনি৷‌ আনন্দঘন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিদের মধ্যে ছিলেন উপজাতি কল্যাণমন্ত্রী অঘোর দেববর্মা, সমবায়মন্ত্রী খগেন্দ্র জমতিয়া, বিধানসভায় বামফ্রন্টের মুখ্য সচেতক সমীর দেব সরকার, খোয়াই জেলা পরিষদের সভাধিপতি সাইনি সরকার, বিধায়ক পদ্মকুমার দেববর্মা, গৌরী দাস প্রমুখ৷‌ নৃপেন চক্রবর্তী অ্যাভিনিউয়ের ‘মোহর’ মঞ্চে স্বাস্হ্যমন্ত্রী বাদল চৌধুরিকে সভাপতি করে শুরু উদ্বোধনী অনুষ্ঠান৷‌ শুরুতে বক্তব্য পেশ করেন স্বাস্হ্য দপ্তরের সচিব এম নাগারাজু৷‌ তিনি ভাষণে জানান, খোয়াই জেলা হাসপাতালে প্রাথমিক শয্যা সংখ্যা বর্তমানে একশো৷‌ ১০ জন চিকিৎসক ও ৩৭ জন নার্স কর্মরত আছেন৷‌ ভবিষ্যতে স্বাস্হ্য পরিষেবার সমস্ত সুযোগ ধীরে ধীরে এখানে তৈরি করা হবে৷‌ উদ্বোধকের ভাষণে মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার বলেন, রাজ্যে ১১০০টি গ্রাম এবং এ ডি সি ভিলেজের মধ্যে হেলথ সাব-সেন্টার খোলার কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে৷‌ ৩০-৩৫টি গ্রামে পাকাবাড়ি তৈরির কাজ চলছে৷‌ ত্রিপুরায় ২০ থেকে ২২ হাজার মানুষ যেখানে বসবাস করেন সেখানে প্রাথমিক স্বাস্হ্যকেন্দ্র চালু করা হয়েছে৷‌ প্রতিটি মহকুমা ও জেলা সদরে আধুনিক উন্নত চিকিৎসাসম্পন্ন হাসপাতাল চালু করার চেষ্টা চলছে৷‌ মানিক বলেন, শিক্ষা ও স্বাস্হ্য হল মানুষের জীবনে দুটো মৌলিক পরিষেবা৷‌ পূর্বের মনমোহন সিংয়ের নেতৃত্বে সরকার স্বাস্হ্য পরিষেবাকে বেসরকারীকরণের পথে ঠেলে দেওয়ার চেষ্টা করেছিল৷‌ কিন্তু ত্রিপুরায় বামফ্রন্ট সরকার বিপক্ষ অবস্হান নিয়ে দৃঢ়ভাবে জানিয়ে দেয়, স্বাস্হ্যক্ষেত্রে বেসরকারীকরণ আমরা মানব না৷‌ মানিক বলেন, শিক্ষা ও স্বাস্হ্যের মতো মৌলিক পরিষেবা আমরা মানুষের দুয়ারে পৌঁছতে চাই৷‌ আমরা চাই না গ্রামের মানুষ সাধারণ অসুখ নিয়ে আগরতলায় ছুটে যান৷‌ ত্রিপুরায় থেকেই যাতে মানুষ সুযোগ নিতে পারেন তার জন্য রাজ্যস্তরীয় হাসপাতালগুলোকে সাজানোর চেষ্টা হচ্ছে৷‌ আগরতলার ২টি মেডিক্যাল কলেজ থেকে প্রতি বছর ৮০-১০০ জন ডাক্তার পাস করে বেরোচ্ছেন৷‌ তাঁদের প্রত্যেকের সঙ্গে আমাদের চুক্তি, কম করে ৫ বছর গ্রামের হাসপাতালে গিয়ে কাজ করতে হবে৷‌ মানিক বলেন, শুধুমাত্র চিকিৎসক নয়, নার্স তৈরি করার জন্য ৫টি প্রতিষ্ঠান প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সরকারি সাহায্যে রাজ্যে চালু হয়েছে৷‌ বি এসসি নার্সিং কলেজ খোলার চেষ্টা হচ্ছে৷‌ স্বাস্হ্য পরিষেবার জন্য রাজ্যকে স্বয়ংসম্পন্ন করতে ৯০-৯৫ জন এগিয়ে গেছি আমরা৷‌ বিশেষ: জটিল রোগের জন্য ডাক্তার তৈরি করা আমাদের রাজ্যে কষ্টসাধ্য৷‌ মেডিক্যাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া সব ক্ষেত্রে সম্মতি না দিলেও কিছু কিছু ক্ষেত্রে পি জি কোর্সের জন্য ছাত্র ভর্তি হচ্ছে প্রতি বছর৷‌ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ১৭টা জটিল রোগ চিহ্নিত করে বছরে যাঁদের আয় দেড় লক্ষ টাকার কম, তাঁদের ১ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা করে রাজ্যে চিকিৎসার সুযোগ করে দিচ্ছে সরকার৷‌ তিনি বলেন, আমাদের রাজ্যে, জেলা সদরে কেউ বেসরকারিভাবে হাসপাতাল খুলতে চাইলে আমাদের আপত্তি নেই৷‌ কিন্তু তারা যেন জটিল রোগের সুযোগ নিয়ে মানুষকে ভক্ষণ করতে না পারে তার দিকে আমাদের সতর্ক দৃষ্টি থাকতে হবে৷‌ সব শেষে মানিক বলেন, স্বাস্হ্যসেবার এত সুযোগ সৃষ্টির পরও আমরা চাই না মানুষ অসুস্হ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হোক৷‌ বিশুদ্ধ পানীয় জল ও পাকা শৌচাগার একেবারে দুর্গম গ্রামে পৌঁছে দিয়ে মানুষকে সচেতন করে সুস্হ রাখতে চায় বামফ্রন্ট সরকার৷‌ গ্রামে গ্রামে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে শৌচালয় তৈরি করে দিয়ে দারুণ সাফল্য এসেছে৷‌ জম্পুইয়ের উঁচু পাহাড়ে পাইপলাইনে জল পৌঁছনোর কাজ চলছে৷‌ এখন ত্রিপুরার মানুষকে আর না খেয়ে মরতে হয় না৷‌ ক্ষুধার জ্বালায় মাকে সম্তান বিক্রি করতে হয় না৷‌ রাজ্যের প্রতিটি মানুষকে শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করাতে চাই আমরা৷‌ মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও মন্ত্রী খগেন্দ্র জমাতিয়া, মন্ত্রী অঘোর দেববর্মা ও মুখ্য সচেতক সমীর দেব সরকার বক্তব্য পেশ করেন৷‌





kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || khela || Tripura ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited