Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২১ শুক্রবার ২১ নভেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
বেলভিউ ছেড়ে হঠাৎ এস এস কে এমে ভর্তি হলেন মদন ।। পাড়ুইয়ে তৃণমূল সমর্থকের বাড়িতে আগুন, লুটপাট, অভিযুক্ত বি জে পি ।। তল্লাশিতে সি বি আই পেল সুদীপ্তর পুরনো পাসপোর্ট ।। অবসরের মুখে ২জি তদম্ত থেকে অপসৃত রঞ্জিত সিন‍্হা ।। কলকাতা বিমানবন্দরে জঙ্গি হামলার ছক, বাড়ল নিরাপত্তা ।। অমিতের সভা: আজ হাইকোর্টকে সিদ্ধাম্ত জানাবে কলকাতা পুলিস ।। সম্প্রীতি রক্ষায় বাম, কংগ্রেস, তৃণমূল সহমত ।। একশো দিনের কাজের বকেয়া চেয়ে এককাট্টা তৃণমূল, বাম, কংগ্রেস ।। ৮ ফুট বরফের নিচে বাফেলো শহর--মৃত ৭, মোকাবিলায় জরুরি অবস্হা ।। বাংলার ধাঁচে ওড়িশা সরকারও গড়ল তহবিল--বরেন্দ্রকৃষ্ণ ধল, ভুবনেশ্বর ।। বাম ছাত্র-যুবর মিছিলে পুলিসের বেপরোয়া লাঠি ।। জেলায় শীত এসেই গেল
আজকাল-ত্রিপুরা

কংগ্রেসের বন‍্ধ ঘিরে হাঙ্গামা, গ্রেপ্তার তিন হাজার

বিশাল সমাবেশ করে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে গণডেপুটেশন দিলেন বাম শিক্ষক-কর্মচারীরা

সংরক্ষণ মামলা, দ্বিতীয় দিনেও জোর সওয়াল

সফর নিয়ে খোঁজ নিচ্ছে পি এম অফিস

বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী মঞ্চের প্রতিনিধিরা জানালেন

মারা গেলেন প্রবীণ বামপম্হী উপজাতি নেতা চন্দ্রমাল

খোয়াইয়ের সমাবেশে বললেন সমীর

কংগ্রেসের শক্তির আরও ক্ষয়, প্রমাণ বিলোনিয়ার বন‍্ধে

প্রথম ডিভিশন ফুটবল

বন‍্ধে মিশ্র সাড়া ধর্মনগরেও

দুটি আসরে অংশ নেবে আত্মবিশ্বাসী দাবাড়ু সৌরদীপ

বিধ্বংসী আগুনে পুড়ল কেমতলি বাজারের একাংশ

হৃদ‍্রোগে মৃত্যু, কংগ্রেসের দাবি ক্যাডার আক্রমণের কারণে

কংগ্রেসের বন‍্ধ ঘিরে হাঙ্গামা, গ্রেপ্তার তিন হাজার

সর্বাত্মক সফল: কংগ্রেস

সম্পূর্ণ প্রত্যাখ্যাত: সি পি এম

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

আজকালের প্রতিবেদন: কংগ্রেসের ডাকা বন‍্ধে মিশ্র প্রতিক্রিয়া পড়েছে রাজ্যে৷‌ অফিস-আদালতে স্বাভাবিক হাজিরা থাকলেও রাস্তাঘাটে যানবাহন ছিল কম৷‌ রাজ্যের অধিকাংশ মহকুমা শহরে দোকানপাট খোলা থাকলেও আগরতলা শহরে সাধারণভাবে দোকানপাট বন্ধ ছিল স্কুল-কলেজ, অফিস-আদালত, ব্যাঙ্ক বেশিরভাগ ক্ষেত্রে খোলা ছিল৷‌ যথারীতি বিমান চলেছে৷‌ হাইকোর্ট বসেছে৷‌ বন‍্ধের বাইরে থাকায় অধিকাংশ স্কুলে পরীক্ষা হয়েছে৷‌ খোলা ছিল স্টেট মিউজিয়াম৷‌ আগরতলা থেকে দূরপাল্লার বাস চলাচল না করলেও স্হানীয়ভাবে ছোট গাড়ি চলাচল করেছে৷‌ গ্রাম ত্রিপুরার সর্বত্র বন‍্ধের প্রভাব দেখা যায়নি৷‌ সরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রায় স্বাভাবিক কাজকর্ম হলেও বহুক্ষেত্রে কংগ্রেস দলের পিকেটারদের হুজ্জতির স্বীকার হতে হয়েছে কর্মচারীদের৷‌ রেহায় পাননি মহিলা কর্মীরা৷‌ কৈলাসহরে কংগ্রেস কর্মীরা ভেঙে দিয়েছে হাসপাতালের গাড়ি৷‌ পুলিস-সহ নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর ছোঁড়া হয়েছে ইটপাটকেল৷‌ ধর্মনগর ও কৈলাসহরে কংগ্রেস দলের পিকেটাররা সরকারি অফিসে ঢুকে ভাঙচুর চালায়৷‌ আগরতলায় বিরোধী দলনেতা সুদীপ রায়বর্মনের বিধানসভা এলাকায় সরকারি অফিসে ঢুকেও হুজ্জতি চালানো হয়৷‌ অভয়নগর সমাজকল্যাণ দপ্তরে ঢুকে কর্মীদের অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন কংগ্রেস কর্মীরা৷‌ অফিসে ঢুকে অপমান করা হয়েছে বামপম্হী কর্মচারী নেত্রী মহুয়া রায়কে৷‌ কয়েকটি অফিসে কর্মচারীরা অফিসের ঢোকার পর দুপুরের দিকে তাঁদের জোর করে বের করে দেওয়া হয়৷‌ আগরতলা স্টেশনে করিমগঞ্জগামী যাত্রীট্রেন আটকে দেয় পিকেটাররা৷‌ যদিও টিকিট নিয়ে যাত্রীরা বসা ছিলেন ট্রেনে৷‌ স্বাভাবিক কাজকর্ম হয়েছে ত্রিপুরা জুটমিলে৷‌ তারপরও এই ১২ ঘণ্টার ত্রিপুরা বন‍্ধকে সর্বাত্মক সফল দাবি করেছে প্রদেশ কংগ্রেস৷‌ অন্যদিকে, সি পি এমের দাবি, কংগ্রেসের ডাকা ১২ ঘণ্টার ত্রিপুরা বন‍্ধ রাজ্যের অধিকাংশ স্হানে সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাখ্যাত হয়েছে৷‌ আগরতলা শহরে এদিন ব্যাপক পিকেটিং করেছে কংগ্রেস৷‌ বিরোধী দলনেতা সুদীপ রায়বর্মন, কার্যকরী সভাপতি আশিস সাহা, সাধারণ সম্পাদক দীপক মজুমদার, হিম্মত সিং রাউথ, বিধায়ক গোপালচন্দ্র রায়, যুব কংগ্রেস সভাপতি সুশাম্ত চৌধুরি, ভিকিপ্রসাদ, বলাই গোস্বামী, কাউন্সিলর রত্না দত্ত, প্রবীর চক্রবর্তী-সহ প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের সামনে পিকেটিংয়ের নেতৃত্ব দেন৷‌ কংগ্রেসের পতাকা লাগিয়ে বাইক বাহিনীর আস্ফালন ছিল সর্বত্র৷‌ মহাকরণের সামনে থেকে গোর্খাবস্তি, মোটরস্ট্যান্ড, সূর্য চৌমুহনি, নাগেরজলা সর্বত্র পিকেটিং হয়৷‌ সুদীপ-আশিস-দীপকসহ পাঁচশোর বেশি কংগ্রেস কর্মী আগরতলা থেকে পিকেটিং করার দায়ে গ্রেপ্তার হন৷‌ এডিনগর পুলিস লাইন থেকে বিকেলে তাঁদের জামিন দেওয়া হয়৷‌ এদিকে, কংগ্রেস ভবনে সাংবাদিক সম্মেলন করে আশিস সাহা বলেন, ‘সারা রাজ্যে ক্যাডার তাণ্ডব, রাষ্ট্রশক্তি ও পুলিসকে ব্যবহার করে বন‍্ধ ব্যর্থ করার চেষ্টা করেছে সি পি এম৷‌ জায়গায় জায়গায় পুলিসের হুমকির মুখে পড়তে হয়েছে পিকেটারদের৷‌ পুলিস প্ররোচনা দিয়েছে৷‌ তারপরও সর্বাত্মক বন‍্ধ হওয়ায় রাজ্যবাসীকে অভিনন্দন জানিয়েছে কংগ্রেস৷‌ এদিকে, সি পি এম রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলী কংগ্রেসের ডাকা রাজনৈতিক দূরভিসন্ধিমূলক ত্রিপুরা বন‍্ধ শাম্তিপূর্ণভাবে প্রত্যাখ্যান করায় রাজ্যের সব অংশের শাম্তিপ্রিয়, ধর্মনিরপেক্ষ সম্প্রতি ও উন্নয়নকামী জনগণকে অভিনন্দন জানিয়েছে৷‌ সি পি এম জনমনে বিভ্রাম্তি ছড়ানোর যে কোনও প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে জনগণের শত্রুদের আরও কোণঠাসা করার আহ্বান জানিয়েছে৷‌

খোয়াই থেকে আজকাল প্রতিনিধি: আইন অমান্য আন্দোলনে পুলিসের লাঠিচার্জের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের ডাকা কর্মনাশা বন‍্ধের আংশিক সাড়া পড়ল খোয়াইয়ে৷‌ দোকানপাট বন্ধ থাকলেও সরকারি অফিস-সহ স্কুল-কলেজ সর্বত্র খোয়াই মহকুমায় খোলা ছিল৷‌ অন্য দিনগুলির মতোই অফিসযাত্রীদের অধিকাংশ দপ্তরে দপ্তরে কাজে যোগ দেন৷‌ বন‍্ধের পক্ষে পিকেটিং করার জন্য খোয়াই মহকুমায় মাত্র ৩৭ জন কংগ্রেসের নেতা-কর্মী সকাল ১০টার মধ্যে গ্রেপ্তার করে পুলিস৷‌ সরকারি দ্বাদশ স্কুলে অস্হায়ী জেলে রেখে বিকেলে এদের দেওয়া হয়৷‌

জোলাইবাড়ি থেকে আজকাল প্রতিনিধি: বন‍্ধের তেমন প্রভাব পড়েনি জোলাইবাড়ি বাইখোরা, শাম্তিরবাজার ও বীরচন্দ্র মনু এলাকায়৷‌ জোলাইবাড়ি সাপ্তাহিক বন্ধের কারণে এমনিতেই বন্ধ ছিল দোকানপাট৷‌ স্কুল-অফিসে কাজকর্ম হয়েছে অন্যদিনের মতোই৷‌ কোয়াইফাং হাটবারে অন্যদিনের মতোই ভিড় হয়েছে৷‌ দূরপাল্লার বাস যাত্রী না পাওয়ার কারণে চলাচল না করলেও অটোরিকশ, জিপের মতো ছোট গাড়িগুলি ছিল রাস্তায়৷‌ জোলাইবাড়িতে প্রাক্তন বিধায়ক ব্রজ মগ চৌধুরি ৩৷‌৪ জন কর্মী নিয়ে ব্যাঙ্ক স্কুল ও দোকানে দোকানে গিয়ে বন‍্ধ মানতে বললেও বন্ধ হয়নি৷‌ কোনও পিকেটারও গ্রেপ্তার হয়নি বলে জানান মহকুমা পুলিস আধিকারিক সুরজিৎ ধর৷‌

অমরপুর থেকে আজকাল প্রতিনিধি: বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের ডাকা ১২ ঘণ্টা বন‍্ধে অমরপুরে মিশ্র সাড়া পরিলক্ষিত হয়েছে৷‌ সমস্ত সরকারি প্রতিষ্ঠানে ১০০ শতাংশ উপস্হিতি লক্ষ্য করা গেছে৷‌ মহকুমাশাসকের অফিস, বি ডি ও-অফিস, কৃষি তত্ত্বাবধায়ক অফিস, পূর্ত দপ্তর, জলের উৎস দপ্তর, তথ্য-সংস্কৃতি দপ্তর-সহ সমস্ত বিদ্যালয়ে পঠনপাঠন অব্যাহত ছিল৷‌ এদিন দপ্তর আধিকারিকরা জানিয়েছেন, নিরাপত্তা রক্ষীরা অফিস-আদালত চত্বরে পাহারায় ছিলেন৷‌ তবে কোথাও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি৷‌ অম্পি তৈদু নতুন বাজার এলাকায় দোকানপাট খোলা ছিল৷‌ যানবাহন চলাচল ছিল নগণ্য৷‌

উদয়পুর থেকে আজকাল প্রতিনিধি: রাজ্যজুড়ে কংগ্রেসের ডাকা বন‍্ধকে অস্বীকার করল বামফ্রন্ট৷‌ আর তারও ফল প্রকাশিত হল বৃহস্পতিবার উদয়পুরে৷‌ অন্যান্য দিনের মতো যানবাহন, দোকানপাটে ভিড় তেমন পরিলক্ষিত না হলেও একেবারে কমও ছিল না৷‌ শহর এলাকার কিছু দোকান ছাড়া শহরতলির অধিকাংশ দোকান খোলা অবস্হায় ছিল৷‌ কাকড়াবন-কিল্লা এলাকারও দোকানপাটে ভিড় দেখা যায়৷‌ সমস্ত উদয়পুর শহরেই স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীরা, শিক্ষক-শিক্ষিকারা ব্যস্ত ছিলেন তাঁদের শিক্ষা আদানপ্রদানে৷‌ পরীক্ষা ব্যবস্হাও চালু ছিল৷‌ অফিস-আদালত সমস্ত স্তরই খোলা অবস্হায় ছিল৷‌ ছিল ব্যস্ত অফিসকর্মীরাও৷‌ রমেশ চৌমুহনি এলাকাসহ কিছু কিছু জায়গায় কংগ্রেসের কর্মী-সমর্থকেরা টায়ার-টিউব ইত্যাদি পুড়িয়ে বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি করেছিল৷‌ যদিও পুলিস-প্রশাসনের সহযোগিতায় পরিস্হিতি সম্পূর্ণ শাম্তিপূর্ণই ছিল৷‌

রাজনগর থেকে আজকাল প্রতিনিধি: অফিস-আদালত, স্কুল-বাজার সর্বত্রই বৃহস্পতিবার স্বাভাবিক ছিল রাজনগরে৷‌ অন্য এলাকা যেমনই থাক, বরাবরের মতোই বিরোধী দল কংগ্রেসের ডাকা ১২ ঘণ্টার রাজ্য বন‍্ধের ডাক ব্যর্থই হয়েছে গোটা রাজনগর ব্লক এলাকায়৷‌ এদিন সকালেই যথারীতি রাধানগর, রাঙামুড়া, একিনপুর, বড়পাথরিতে স্কুলগুলিতে ছাত্ররা ভিড় করেছে৷‌ বিলোনিয়ার দিক থেকে দূরপাল্লার গাড়ি একেবারেই কম থাকায় রাজনগর ব্লক-সহ বেশ কিছু অফিস, স্কুলে কিছু কর্মচারীর উপস্হিতি ছিল না৷‌ হাতে-গোনা কিছু গাড়ি ছাড়া দিনভর যাত্রীগাড়ি ছিল না রাস্তায়৷‌ এই একটি ক্ষেত্র ছাড়া অন্য কোনও ক্ষেত্রে বন‍্ধের প্রভাব ছিল না৷‌ বিধায়ক সুধন দাস বন‍্ধ ব্যর্থ হওয়ায় অভিনন্দন জানান সকলকে৷‌ গৌরাঙ্গবাজার, ডিমাতলি থেকেও এদিন রাজধানীর দিকে আসা-যাওয়া করেনি কোনও যাত্রীগাড়ি৷‌ বিলোনিয়া থেকে বিরাট নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন ছিল সব কটি গ্রামীণ বাজার এলাকায়৷‌ পরিস্হিতি একেবারে শাম্তিপূর্ণ থাকায় শুক্রবার বিভিন্ন থানার কালীপুজোর বাজারহাটের কাজও সেরে ফেলেন আরক্ষা কর্মীরা৷‌





kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited