Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ১৪ চৈত্র ১৪২১ রবিবার ২৯ মার্চ ২০১৫
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  নেপথ্য ভাষন  খেলা  রবিবাসর   আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
নেপথ্য ভাষন -অশোক দাশগুপ্ত--গোঁফে তেল, ডাহা ফেল ।। দেবজিতের মাইলস্টোন--সুরজিৎ সেনগুপ্ত ।। ক্লার্কের শেষ ওয়ান ডে ।। ইতিহাস গড়ে ফাইনালে ।। হুমকি, হামলা, মারধর, ভয়, মনোনয়ন তুলল বিরোধীরা ।। প্রহসনের ভোট শুরু হয়ে গেল, অভিযোগ সমস্ত বিরোধীর ।। রোজভ্যালির কোর কমিটির সদস্যদের জেরা ।। ভোটের আগেই ৩ পুরসভা তৃণমূলের দখলে ।। যোগেন্দ্র, প্রশাম্তকে তাড়িয়ে ছাড়লেন কেজরিওয়াল ।। বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রবেশ: উদ্বেগ জানালেন রাজ্যপাল, সিদ্ধার্থনাথ ।। খাগড়াগড়-কাণ্ডে ঢাকায় ধৃত ১ ।। আরেকটি উপগ্রহ
আজকাল-ত্রিপুরা

রাজ্যেও বেকারি বিরোধী দিবস পালিত

জেলা হাসপাতালের উদ্বোধন ঘিরে উৎসবমুখর শাম্তিরবাজার

আগরতলায় এন এস এস উৎসবের উদ্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী

ব্যাবিওসিস রোগে মৃত্যু চিতাবাঘের

আগরতলায় শুরু এ টি জি ডি এ-র সম্মেলন

মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিতে বরাদ্দ ৩২ কোটি

পদ্মবিলের অনুষ্ঠানে থাকবেন বিজন, অঘোর, রমা

অম্পি-কিল্লা ব্লকে নারীর সংখ্যা বাড়ছে

রাজ্য সিনিয়র ক্রিকেট (প্লেট গ্রুপ): অর্জুনের অর্ধশতরান

সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-২০, বাংলার কাছেও হারল ত্রিপুরা

রাজ্যেও বেকারি বিরোধী দিবস পালিত

কংগ্রেস-বি জে পি-র কর্মসঙ্কোচন নীতির বিরুদ্ধে লড়াই শক্তিশালী করার ডাক

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

আজকালের প্রতিবেদন: গণসংগঠনসমূহের জাতীয় মঞ্চের ডাকে শনিবার রাজ্যেও বেকারি বিরোধী দিবস পালন করা হল৷‌ ডাক দেওয়া হল সকলের জন্য কাজের দাবিতে গণআন্দোলন গড়ে তোলার৷‌ কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মসঙ্কোচন নীতিরও সমালোচনা করলেন বাম যুবক শ্রমিক কর্মচারী নেতৃত্ব৷‌ এদিন রাজ্যের প্রতিটি বিভাগে হয় বেকারি বিরোধী দিবসের সমাবেশ৷‌ আগরতলায় কেন্দ্রীয় সমাবেশ হয় রবীন্দ্র শতবার্ষিকী ভবনের সামনের রাস্তায়৷‌ প্রধান বক্তা ছিলেন সিটুর রাজ্য কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাংসদ শঙ্করপ্রসাদ দত্ত৷‌ বক্তব্য পেশ করেন সিটুর কার্যকরী সভাপতি পীযূষ নাগ, ডি ওয়াই এফ রাজ্য সম্পাদক অমল চক্রবর্তী, ত্রিপুরা কর্মচারী সমন্বয় কমিটির (এইচ বি রোড) সাধারণ সম্পাদক অসীম পাল, টাসেক নেতা দিলীপ ভৌমিক, কলেজ-শিক্ষক নেতা নিত্যানন্দ দাস, ব্যাঙ্ক কর্মচারী নেতা নিখিল দাস, বি এস এন এল নেতা তীর্থঙ্কর দাস, এ আই টি ইউ সি নেতা ধনমনী সিং৷‌ মঞ্চে ছিলেন পাঞ্চালী ভট্টাচার্য, মিলন বৈদ্য, দিলীপ দাস, মিতালি ভট্টাচার্য, সলিল দেববর্মা৷‌ সব বক্তাই নেতা না, নীতি বদলের ডাক দেন৷‌ কংগ্রেস-বি জে পি’র বিরুদ্ধে লড়াই ছাড়া কাজের গ্যারান্টি নিশ্চিত করা সম্ভব না, দৃঢ় কন্ঠেই জানান৷‌ যারা বেকার বিরোধী, যাদের হাত ধরে বেকারের বিরুদ্ধে নীতি তৈরি হয়, সেই শ্রেণীশত্রুদের বিরুদ্ধে লড়াই মজবুত করার আহ্বান জানানো হয় সভা থেকে৷‌ কংগ্রেসের পর বি জে পি-র সরকার মাত্র কয়েক মাসের মধ্যে দেশের মানুষকে যে বিপদের মুখে ঠেলে দিতে চাইছে, তা তথ্যসহ তুলে ধরেন সাংসদ শঙ্করপ্রসাদ দত্ত৷‌ শ্রম আইন সংশোধন, জমি অধিগ্রহণ বিল, কর্পোরেট স্বার্থে মোটা অঙ্কের কর ছাড়, ব্যাঙ্ক, বিমা ক্ষেত্রকে বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার বিপদ তুলে ধরেন তিনি৷‌ রেগায় বরাদ্দ কমানো থেকে কর্মসংস্হানহীন উন্নয়নের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের নীতির কড়া সমালোচনা করেন সিটুর রাজ্য সম্পাদক৷‌

উদয়পুর থেকে আজকাল প্রতিনিধি: বেকারি বিরোধী দিবস পালন হয় উদয়পুরেও৷‌ সারা রাজ্যের সঙ্গে উদয়পুরেও হয় মিছিল৷‌ বাম শিবিরের বিভিন্ন সংগঠন, সমিতি মিছিলে অংশ নেয়৷‌ সভা হয় জামতলে৷‌ কেন্দ্রীয় সরকারের জনবিরোধীমূলক কর্মসূচিগুলির বিরুদ্ধে ভাষণ দেন সি পি এম নেতৃত্ব৷‌ সভায় সভাপতিত্ব করেন বিধায়ক মাধব সাহা৷‌ এ ছাড়াও সভায় উপস্হিত ছিলেন পার্টির বিভাগীয় সম্পাদক মানিক বিশ্বাস ও অন্যান্য নেতৃত্ব নিতাই বিশ্বাস, মৃণাল মজুমদার, স্বপন দেবনাথ, নিরঞ্জন দেববর্মা৷‌

কুমারঘাট থেকে আজকাল প্রতিনিধি: কুমারঘাট মহকুমার কাঞ্চনবাড়ি, পেচারথল, ফটিকরায়– সর্বত্র পালিত হল বেকারি বিরোধী দিবস৷‌ কুমারঘাটে স্বপনকুমার বৈষ্ণব, ফটিকরায়ে সঞ্চয় ভট্টাচার্য, কাঞ্চনবাড়িতে পীযূষ চক্রবর্তী ও পেচারথলে সমর রায়, বেকারদের কর্মসংস্হানের প্রশ্নে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে অবিলম্বে বেকার যুবকদের কাজের দাবি জানান৷‌

রাজনগর থেকে আজকালের প্রতিনিধি: শূন্যপদ বাতিলের নির্দেশ, নতুন নিয়োগে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার-সহ বেকার সমস্যা সমাধানে কেন্দ্রকে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানিয়ে আরও নানান দাবি-সহ পথে নামলেন হাজারো শ্রমিক-কর্মচারী৷‌ শনিবার গণসংগঠনসমূহের যৌথ মঞ্চের ডাকে বিলোনিয়া মহকুমার প্রায় সব ক’টি জনপদে তীব্র প্রতিবাদ আন্দোলনে পা মেলালেন সবাই৷‌ কৃষিমজুর, দিনমজুরদের মাসিক ১৫ হাজার টাকা মজুরি প্রদান, সারা দেশে শূন্যপদগুলোতে দ্রুত নিয়োগ নিয়ে বিভিন্ন সভায় সরব হন শ্রমিক-শিক্ষক ও কর্মচারী-নেতারা৷‌ চোত্তাখলা, রাজনগর, বড়পাথরি, বিলোনিয়া-সহ সব ক’টি জায়গায় এদিন বিকেলেই ভিড় করে প্রতিবাদ মিছিল কেন্দ্র করে বনকরে সভায় ছিলেন দীপঙ্কর সেন, বিজয় তিলক, রিপু সাহা, অধীর বিশ্বাস প্রমুখ নেতারা৷‌ মতাই বাজারে বক্তব্য রাখেন টি জি টি এ বিভাগীয় সভাপতি সমীরণ বৈদ্য৷‌

কমলপুর থেকে আজকাল প্রতিনিধি: কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মনাশা ও কর্মসঙ্কোচন নীতির প্রতিবাদে, বেকারিদের স্হায়ী কর্মসংস্হান ও সরকারি কর্মচারীদের কর্মক্ষেত্রে অনিশ্চয়তা দূর করার দাবিতে গণসংগঠন সমূহের জাতীয় মঞ্চের ডাকে বেকার বিরোধী দিবসের মিছিলে পা মেলালেন ছাত্র, যুব, কর্মচারী থেকে শুরু করে বিভিন্ন পেশার শ্রমজীবী জনগণ, প্রাকৃতিক দুর্যোগকে উপেক্ষা করে শনিবার দলে দলে লোক রামঠাকুর আশ্রম সংলগ্ন স্হানে এসে সমবেত হন৷‌ মোটর স্ট্যান্ড সংলগ্ন স্হানে এসে জমায়েতে মিলিত হয়৷‌ জমায়েতে সিটু বিভাগীয় সভাপতি হরিমাধব শর্মা ও যুব নেতা প্রদীপ ঘোষ সভাপতিত্বে বক্তব্য পেশ করেন সিটু কমলপুর বিভাগীয় সম্পাদক অঞ্জন দাস, কর্মচারী সমন্বয় কমিটির নেতা সুনীল দেব, কৃষক নেতা বীরেন্দ্র পাল৷‌





kolkata || bangla || bharat || editorial || post editorial || nepathya bhasan || khela ||
sunday || Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited