Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৩ পৌষ ১৪২১ শুক্রবার ১৯ ডিসেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
জোর করে পণ্য পরিষেবা কর চাপাচ্ছে কেন্দ্র, ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী ।। অপারেশন সফল, তাঁর খবর মিলে যাচ্ছে--অরুন্ধতী মুখার্জি ।। শরিফের শপথই সার, মুক্ত মুম্বই হামলার চক্রী লকভি ।। সুদীপ্তর ‘ফেরারি’ ভারতে এসেও কীভাবে উধাও! জাল গোটাচ্ছে ই ডি ।। ৩ দিনে ৩ সংগঠনকে ৩ জায়গায় সভার অনুমোদন দেবে পুরসভা ।। ঘুরে দাঁড়াতে উত্তর ২৪ পরগনাকে মডেল করতে চায় সি পি এম ।। লগ্নি করলে আম্তরিক সাহায্য ত্রিপুরায়: জিতেন্দ্র ।। ধর্মাম্তর: রাজ্যসভা অচল চতুর্থ দিনেও ।। ভারতকে এগিয়ে রাখলেন অশ্বিন ।। কাল ফাইনালে কিন্তু সমানে সমানে লড়াই ।। আচার্যের হুঁশিয়ারি! ।। ইরাকে ১৫০ বন্দী মহিলার শিরশ্ছেদ!
আজকাল-ত্রিপুরা

পানিসাগরে সি পি এমের সমাবেশে মানিক দে

ছৈলেংটায় বড় সমাবেশে মুখ্যমন্ত্রী

শতরান উৎসর্গ ফিল হিউজকে

ঘন কুয়াশায় শেষ দিনে মাত্র ২৯ ওভার

গাড়ির ধাক্কায় সাইকেল আরোহী নিহত কাঞ্চনপুরে

সন্ধে থেকেই ঘন কুয়াশা, শীত জাপটে ধরেছে: পারদ নেমে ৯.৬, নামবে আরও

আগরতলা-উদয়পুর ব্রডগেজ লাইন পাতা চলছে, শেষ হবে মার্চে

বিমান পরিষেবা বেহাল

লাকি শ্রীবাস্তব ট্রফি যাচ্ছে ত্রিপুরার বাইরে

উড়ালপুল: তিন নির্মাণ সংস্হার কাছে দরপত্র চাইল পূর্ত দপ্তর

রাজ্য দলে ১২-তে ১১ মণিপুরের বক্সার

রেকর্ড গড়লেন অনূর্ধ্ব-২৩ দল

শিশুধর্ষণে যুক্ত বখাটে গ্রেপ্তার

গন্ডাছড়ার ঠাকুরুছড়া থেকে কয়লার নমুনা নিলেন জি এস আই বিশেষজ্ঞরা

পানিসাগরে সি পি এমের সমাবেশে মানিক দে

না খেয়ে মরে না কেউ এ রাজ্যে, ভিনরাজ্যের মানুষ ত্রিপুরায় আসেন উন্নয়নের হালহকিকত দেখতে

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

আজকালের প্রতিবেদন: ধর্মনগর, ১৮ ডিসেম্বর– বি জে পি আর কংগ্রেসের মধ্যে ন্যূনতম কোনও ফারাক নেই৷‌ চিদম্বরমের অসম্পূর্ণ কাজগুলো এখন সম্পূর্ণ করছেন জেটলি৷‌ বললেন রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী মানিক দে৷‌ বৃহস্পতিবার বিকেলে৷‌ পানিসাগর রেগুলেটরি মার্কেটে৷‌ সি পি এমের পানিসাগর মহকুমা সম্মেলনের প্রকাশ্য সমাবেশে৷‌ প্রথম পানিসাগর মহকুমা সি পি এমের সম্মেলনের প্রকাশ্য সমাবেশে প্রধান বক্তা ছিলেন সি পি এমের রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর অন্যতম সদস্য মানিক দে৷‌ এ ছাড়াও মঞ্চে অন্যদের মধ্যে হাজির ছিলেন ত্রিপুরা বিধানসভার অধ্যক্ষ রমেন্দ্রচন্দ্র দেবনাথ, পানিসাগর নগর পঞ্চায়েতের চেয়ারম্যান অজিত দাস, প্রবীণ সি পি এম নেতা রসময় নাথ প্রমুখ৷‌ সভায় সভাপতিত্ব করেন সি পি এমের রাজ্য কমিটির সদস্য প্রবীণ বিধায়ক সুবোধ দাস৷‌ প্রকাশ্য সমাবেশের শুরুতেই সম্মেলনের গুরুত্ব এবং প্রেক্ষাপট নিয়ে আলোচনা করেন জেলা কমিটির আহ্বায়ক সি পি এমের রাজ্য কমিটির সদস্য অমিতাভ দত্ত৷‌ প্রধান বক্তার বক্তব্যে মন্ত্রী মানিক দে বলেন, রাজ্যে আমাদের যত সমর্থন বাড়ছে, তত আমাদের দায়িত্বও বাড়ছে৷‌ সেই কথা মাথায় রেখে আমরা আমাদের সংগঠনও বাড়িয়ে চলেছি৷‌ তাই আমরা পানিসাগরে নতুন মহকুমা কমিটি তৈরি করতে চলেছি এই সম্মেলনের মধ্য দিয়ে৷‌ এর পরই মন্ত্রী চলে যান পৃথিবীতে কমিউনিস্ট পার্টি কী করে তৈরি হল, সেই প্রসঙ্গে৷‌ ফিরে এলেন ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির ইতিহাসে৷‌ বললেন ৫০ বছরের ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির ইতিবৃত্ত৷‌ বললেন দলের বিস্তৃতির কথা৷‌ মন্ত্রী বললেন, সংসদে আমাদের ক’টা আসন আছে বা পেয়েছি, তা দিয়ে দলের শক্তি বিশ্লেষণ হয় না৷‌ বিশ্লেষণ হয় কত মানুষকে সঙ্গে নিয়ে আমরা কত মানুষের জন্য লড়াই আন্দোলন করছি তা দিয়ে৷‌ বললেন, সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকলে এবং বেশি সংগঠন সদস্য না থাকলে সরকারের জনবিরোধী নীতিগুলোর বিরুদ্ধে লড়াই করা যায় না৷‌ বি জে পি এবং কংগ্রেসের সঙ্গে বোঝাপড়া করে একটার পর একটা জনবিরোধী সিদ্ধাম্ত নিচ্ছে৷‌ বললেন, বি জে পি জোতদার-জমিদারদের খুশি করার জন্য রেগার কাজ বন্ধ করে দিতে চাইছে৷‌ ব্রিটিশদের শ্রম আইন ভেঙে দিতে চাইছে বি জে পি সরকার৷‌ বি জে পি, কংগ্রেস মিলে বিমা এবং ব্যাঙ্ক শিল্পকে বেসরকারি হাতে বিক্রি করে দিতে চলেছে৷‌ এতে আদতে প্রচণ্ড বিপাকে পড়বে দেশের সাধারণ গরিব মানুষ৷‌ বি জে পি এবং কংগ্রেস মিলে একসঙ্গে যে সর্বনাশ করছে দেশটার, তার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে৷‌ এবার মন্ত্রী এলেন রাজ্যের প্রসঙ্গে৷‌ বললেন রাজ্যের উন্নয়নের প্রসঙ্গ, প্রধানমন্ত্রীর সফরের কথা৷‌ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মন্ত্রিসভার বৈঠকের কথাও৷‌ বললেন, প্রধানমন্ত্রী রাজ্যের জঙ্গি দমনের রহস্যটা কোথায় জানতে চেয়েছেন৷‌ এ কথাও বললেন, গোটা দেশের মানুষ এই রাজ্যে আসেন রাজ্যের উন্নয়নের চিত্র দেখতে৷‌ দেখতে আসেন, কী করে এই রাজ্যে অনাহারের মৃত্যু মিছিল হয় না৷‌ এতে অবশ্য অনেকের ঈর্ষা হয়৷‌ মানিক আরও বলেন, বামফ্রন্টের রাজত্বে টাকা খরচ করলে চোখে দেখা যায় আর কংগ্রেস আমলে টাকা কিছু মানুষের পকেটে যেত৷‌ এই রাজ্যে কংগ্রেস বলে দুর্নীতির কথা৷‌ অথচ কংগ্রেস হচ্ছে দুর্নীতিগ্রস্ত দল, যাদের সারা শরীরে দুর্নীতির গন্ধ৷‌ তাদের মুখে দুর্নীতির কথা কি শোভা পায়? আক্ষেপ করে মন্ত্রী বলেন, বিশাল সঙ্কটের মুখে দেশটাকে ঠেলে দিচ্ছে কেন্দ্রের সরকার৷‌ পানিসাগরের কমিউনিটি হলে বৃহস্পতিবার সন্ধে থেকে শুরু হয়েছে দু’দিনের এই সম্মেলন৷‌ মহকুমার ৬টি অঞ্চল থেকে ২৫১ জন প্রতিনিধি যোগ দিয়েছেন এই সম্মেলনে৷‌ প্রথম পানিসাগর মহকুমা সম্পাদক কি প্রবীণ সি পি এম নেতা রসময় নাথ? প্রশ্নটা আপাতত সবার মুখে৷‌





kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || khela || Tripura ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited