Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৮ শ্রাবণ ১৪২১ শুক্রবার ২৫ জুলাই ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
শিশুকে গণধর্ষণ! তান্ত্রিক মরল গণপিটুনিতে ।। ব্যাঙ্কের কর্মী পরিচয় দিয়ে ছাত্রীকে অ্যাসিড ছুঁড়ে পলাতক যুবক ।। সারদায় আমিই প্রতারিত: ই ডি-কে বললেন মিঠুন ।। ই সি এলের চুনীলাল সাসপেন্ড হতেই গ্রেপ্তার ।। পাক-বধূ বলে সানিয়াকে অপমান বি জে পি-র! ।। বিদেশি পুঁজি বাড়ল, বিমা বিল এবার? ।। শপথ নিয়ে কেশরীনাথ: মমতার সঙ্গে সঙঘাত নয় ।। কুমোরটুলিতে মশাসুরের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে পুরসভা ।। এবার আফ্রিকায়! বিমান ধ্বংস ১১৬ আরোহী নিয়ে ।। পূজার খোঁজে ভিন রাজ্যে হানা পুলিসের ।। উত্তম-সুচিত্রা চলচ্চিত্র উৎসব শুরু নন্দনে ।। দুটি ফিল্মসিটি হবে রাজ্যে: মুখ্যমন্ত্রী
আজকাল-ত্রিপুরা

গোপেশ দেবনাথ স্মরণসভায় বিজন ধর

মানুষকে বোকা বানানো যায় না

উত্তরবঙ্গ, আসামের পর থাবা ত্রিপুরাতেও

সমবায় ব্যাঙ্কে ক্ষুদ্র সঞ্চয় সঙ্কোচনের চেষ্টা? প্রকল্পের এজেন্টরা ক্রমেই বিপাকে

ককবরক অফিসের আগুন

তৃতীয় ডিভিশন লিগ ফুটবল

আখাউড়া রেলপথের জন্য জমি অধিগ্রহণ শুরু পুজোর আগেই

গ্যাস সিলিন্ডারে ওজনে কারচুপির অভিযোগে ধুন্ধুমার কাণ্ড বিলোনিয়ার বল্লামুখে

পেটে পাইপ রেখেই সেলাই মামলা চলবে: হাইকোর্টে

ইদ‍্ উপলক্ষে বস্ত্রদান সোনামুড়ায়

গোপেশ দেবনাথ স্মরণসভায় বিজন ধর

মানুষের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক রেখে সততার সঙ্গে কাজ করুন

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

আজকালের প্রতিবেদন: কৈলাসহর, ২৪ জুলাই– পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যের মানুষ আস্হা ও বিশ্বাস দেখিয়েছেন৷‌ মানুষের সঙ্গে নিবিড় যোগাযোগ, সততা ও স্বচ্ছতার সঙ্গে দায়বদ্ধতা দেখিয়ে অগ্রগতির পথে এগিয়ে যেতে হবে৷‌ সি পি এম রাজ্য কমিটির সদস্য প্রয়াত গোপেশ দেবনাথের স্মরণসভায় এ কথা বললেন সি পি এম রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর৷‌ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় ভিড়ে ঠাসা টাউন হলে সি পি এম কৈলাসহর বিভাগীয় কমিটির উদ্যোগে স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়৷‌ সভার শুরুতে প্রয়াত গোপেশ দেবনাথের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান সি পি এম রাজ্য কমিটির সম্পাদক বিজন ধর, রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য তপন চক্রবর্তী, সম্পাদক বিজয় রায়-সহ অন্য নেতৃবৃন্দ৷‌ পার্টি নেতা লক্ষণ কর, গোপীরমণ দত্ত, রুকিয়া বেগম, মেঘবরণ চাকমার সভাপতিত্বে স্মরণসভার কাজ শুরু হয়৷‌ শোকপ্রস্তাব পাঠ করেন বিভাগীয় সম্পাদক বিজয় রায়৷‌ প্রয়াত গোপেশ দেবনাথের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন উপস্হিত নেতা-কর্মীরা৷‌ স্মরণসভায় মূলত আলোচনা করেন সি পি এম রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য তপন চক্রবর্তী এবং রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর৷‌ গোপেশ দেবনাথের স্মৃতিচারণ করে গিয়ে তপন চক্রবর্তী বলেন, ‘গোপেশদা ১৯৭৯ সালে প্রথম পঞ্চায়েত নির্বাচনে পার্টির প্রধান প্রার্থী হিসেবে সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন৷‌ আমি তখন বিভাগীয় নেতৃত্বের দায়িত্বে৷‌ পঞ্চায়েত নির্বাচনে দাঁড়ানোর প্রস্তাব নিয়ে গেলে তিনি অত্যম্ত বিনয়ের সঙ্গে বলেন, আমি পার্টির সিদ্ধাম্ত মেনে চলব৷‌ বিরোধী প্রতাপশালী প্রার্থীকে বিপুল ভোটে পরাজিত করেন৷‌ সে সময়ে অবিভক্ত লংতরাইভ্যালি নিয়ে ছিল কৈলাসহর বিভাগ৷‌ পার্টি সদস্য ১৭৪ জন৷‌ মূলত উপজাতি এলাকায় পার্টির বিস্তার ছিল৷‌ সমতল এলাকায় পার্টির বিস্তারে যে ক’জন নেতৃত্বের অবদান রয়েছে, তার মধ্যে গোপেশদা অন্যতম৷‌ পুরনো পার্টি কর্মীদের প্রতি শ্রদ্ধা তাঁর অন্যতম বড় গুণ৷‌ সততা, স্বচ্ছতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে পার্টি ও প্রশাসনের দায়িত্ব পালন করেছেন৷‌ প্রথাগত শিক্ষায় কোনও বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি ছিল না, কিন্তু মার্কসবাদী শিক্ষায় তিনি সে কাজটি পূরণ করেছিলেন৷‌ রাজনৈতিক ও মতাদর্শগত শিক্ষায় নিজেকে একজন পার্টি সদস্য হওয়ার মতো উপযুক্ত করেছিলেন৷‌ আর এই মুহূর্তে পার্টি সদস্য সংখ্যা যখন বাড়ছে, তখন গুণগত দিকটি নিয়ে প্রশ্ন উঠছে৷‌ গোপেশদাকে শ্রদ্ধা জানাতে গেলে পার্টি কর্মীদের গুণগত মানকে উন্নত করতে হবে৷‌ তিনি সততা, নিষ্ঠা এবং শৃঙ্খলার প্রশ্নে ছিলেন আপসহীন৷‌ আমরা কোনও সিদ্ধাম্ত নিই যৌথভাবে৷‌ সিদ্ধাম্ত গ্রহণ করা হচ্ছে যৌথ দায়িত্ব, সিদ্ধাম্তের বাস্তবায়ন হচ্ছে ব্যক্তিগত দায়বদ্ধতা৷‌ ব্যক্তিগত দায়বদ্ধতার ঘাটতি হলেই গোপেশদা অসন্তুষ্ট হতেন৷‌’ পঞ্চায়েত নির্বাচনে বামফ্রন্টের সাফল্যকে অপ্রত্যাশিত বলে তপন চক্রবর্তী বলেন, ‘গত নির্বাচনে গোটা রাজ্যে ৮৬ শতাংশ পঞ্চায়েত বামফ্রন্টের দখলে ছিল৷‌ আমরা বলেছিলাম এই শতাংশ বাড়াতে হবে৷‌ কিন্তু ৯৫ শতাংশ পঞ্চায়েত আমরা পাব, এটা প্রত্যাশার বাইরে ছিল৷‌ এই সাফল্যে রাজ্যের মানুষের অবদান রয়েছে৷‌ সব দিক থেকে নিজেকে ঠিক রেখে কাজ করতে হবে৷‌ সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে মানুষের আস্হা ও বিশ্বাসের মর্যাদা ফিরিয়ে দিতে পারলেই গোপেশদাকে সম্মান ও শ্রদ্ধা জানানো হবে৷‌’ স্মরণসভার প্রধান বক্তা সি পি এম রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর বলেন, ‘গোপেশ দেবনাথ সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করেছেন৷‌ মতাদর্শের ওপর ভিত্তি করে এগিয়ে যাওয়া এবং অগ্রগতির প্রক্রিয়ায় প্রচুর মানুষ চাই৷‌ গোপেশ দেবনাথ রাজনৈতিক ও মতাদর্শে অটল থেকে সেই কাজ করেছেন৷‌ পুঁজিবাদী দেশে অর্থনৈতিক সঙ্কট থেকে পরিত্রাণের জন্য সাধারণ মানুষের প্রতিবাদের অভিমুখ ঘুরিয়ে দেওয়ার জন্য মানুষের ঐক্যকে ভাঙতে চায়৷‌ গাজা ভূখণ্ডে বোমা ফেলে নজর ঘুরিয়ে দিতে চায়৷‌ লাতিন আমেরিকার দেশগুলি বাদ দিলে আমেরিকা ও ইউরোপের দেশগুলিতে মানুষের ক্ষোভকে কাজে লাগিয়ে চূড়াম্ত দক্ষিণপম্হী দলগুলি নির্বাচনে জয়লাভ করছে৷‌ আমাদের দেশেও সঙ্কট মোকাবিলা করে জিনিসপত্রের দাম কমানো, দুর্নীতি প্রভৃতি বিষয়ে প্রাক‍্ নির্বাচনী প্রচারে ঝড় তুলে বি জে পি সরকারে নিরঙ্কুশ আসন নিয়ে বসে৷‌ কিন্তু দেখা গেল, এ সবের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছে না৷‌ উল্টে আরও দাম বাড়াচ্ছে৷‌ সারা দেশে যেখানে বামপম্হীদের মুছে দেওয়ার চেষ্টা চলছে, সেখানে আমাদের রাজ্য উল্টো পথে হেঁটে বামপম্হীদের প্রতি বিপুল আস্হা ও বিশ্বাস রেখেছে৷‌ বামফ্রন্ট সরকারের জনমুখী কর্মসূচির সাফল্য এনেছে ত্রিস্তর পঞ্চায়েত৷‌ মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক, যোগাযোগ, সততা ও স্বচ্ছতার সঙ্গে দায়বদ্ধতা নিয়ে কাজ করতে হবে৷‌ পঞ্চায়েতের কাজ করতে গিয়ে কোনও প্রকার গোপনীয়তা রাখা চলবে না৷‌ প্রকাশ্যে কাজের হিসেব দিতে হবে৷‌ চুরি, দুর্নীতির সঙ্গে কোনও সদস্য জড়িত হলে তা পার্টির কাছে তুলে ধরা ও গঠনমূলক সমালোচনাকে উৎসাহ দিতে হবে৷‌ অধিকাংশ কর্মীদের আত্মত্যাগে এই সাফল্য, এ কথা ভুললে চলবে না৷‌ কাজ করলে ভুল হবে৷‌ তবে মতাদর্শে অবিচল থেকে অগ্রগতির প্রক্রিয়ায় থাকার মধ্য দিয়েই গোপেশ দেবনাথকে প্রকৃত শ্রদ্ধা জানানো হবে৷‌ কৈলাসহর টাউন হলে কুমারঘাট, ফটিকরায়, কাঞ্চনবাড়ি-সহ চণ্ডীপুর ও গৌরনগর ব্লক এলাকার প্রতিটি অঞ্চল এলাকা থেকে প্রচুর সংখ্যক নেতা-কর্মী স্মরণসভায় যোগ দেন৷‌


kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited