Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২১ বুধবার ২6 নভেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
তৃণমূল সংসদ তাতাল কালো ছাতা বিক্ষোভে ।। ট্রেন থেকে ধাক্কা! মৃত ৩ শিশু-সহ ৫ ।। সারদা: আজ ই ডি-র জেরার মুখে শুভাপ্রসন্ন ।। বন্দুক নিয়ে ছাত্র স্কুলে, কাটোয়ায় ক্ষোভ অভিভাবকদের ।। রোজভ্যালির সমস্ত ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট বন্ধ থাকবে, জানাল হাইকোর্ট ।। সরকারি জমি কাজে না লাগলে বাসিন্দাদেরই পাট্টা: মুখ্যমন্ত্রী ।। প্রবল শীতেও কাশ্মীরে ৭০শতাংশ--২ রাজ্যেই পরিবর্তনের ঝোঁক? ।। ইন্দিরা-আমল: প্রণবের কলমে--দেবারুণ রায় ।। নওয়াজের সঙ্গে কথা? মোদি কাঠমান্ডুতে ।। নজর রাখতে কুণালের সেলে দিন-রাত আলো, সি সি টিভি ।। বাউন্সার মাথায়! কোমায় হিউজ ।। ৫ বছরের রেকর্ড: ১৫C নভেম্বরেই!
আজকাল-ত্রিপুরা

শিলান্যাস করলেন তপন চক্রবর্তী

দেবকুন্ডু

প্রধানমন্ত্রী ত্রিপুরাসুন্দরী দর্শনে যেতে পারেন ভেবে প্রস্তুতি মাতাবাড়িতেও

রেগা সঙ্কোচন: আজ দিল্লি-ধর্না

নারী সমিতির কনভেনশনে কেন্দ্রের জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে সঙঘবদ্ধ লড়াইয়ের আওয়াজ উঠল

আজ বিলোনিয়ায় জুয়েলসের সামনে ফরোয়ার্ড

সি পি এমের সম্মেলন সমাপ্ত কাঞ্চনপুরে

ভর্ৎসনার মিথ্যা খবরে ক্ষুব্ধ হাইকোর্ট: পত্রিকাকে নোটিস

দুই মাফিয়া গোষ্ঠীর গুলির লড়াইয়ে জখম ভারতীয় যুবক নরসিংদিতে, ক্ষতিপূরণের আর্জি

৬ জনের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে তালা

সি পি এমের দক্ষিণ জেলার প্রথম সম্মেলন বিলোনিয়ায়, ২৮-২৯ জানুয়ারি

তৈরি হচ্ছে তিনটি উইকেট

শিলান্যাস করলেন তপন চক্রবর্তী

মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে চণ্ডীপুর ব্লকের বাড়ি হবে

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

আজকালের প্রতিবেদন: কৈলাসহর, ২৫ নভেম্বর– মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে চণ্ডীপুর ব্লকের সদর দপ্তর এখানকার পরিবেশ আরও আকর্ষণীয় করে তুলবে৷‌ সদর দপ্তরকে ভিত্তি করে ব্লকভিত্তিক অন্যান্য দপ্তরের বাড়িও হবে৷‌ মঙ্গলবার সকাল ১১টায় চণ্ডীপুর ব্লকের ১ কোটি ২৫ লক্ষ টাকায় নির্মিত পাকাবাড়ির শিলান্যাস করতে গিয়ে এ কথা বলেন উচ্চশিক্ষামন্ত্রী তপন চক্রবর্তী৷‌ শিলান্যাস অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন উনকাটি জেলা পরিষদের সভাধিপতি কল্পনা দেবনাথ, জেলাশাসক গোপিকারঞ্চন দাস, বিধায়ক টুলুবালা মালাকার, গ্রামোন্নয়ন দপ্তরের এস ই সাগরশোভন দেবরায়, মহকুমা শাসক অজিত শুক্লদাস প্রমুখ৷‌ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চণ্ডীপুর পঞ্চায়েত সমিতির ভাইস চেয়ারম্যান পুলিন পাল৷‌ প্রধান বক্তার ভাষণে উচ্চশিক্ষামন্ত্রী তপন চক্রবর্তী বলেন, প্রাকৃতিক পরিবেশকে অক্ষুন্ন রেখে পরিকাঠামোগত উন্নয়ন করতে হবে৷‌ রাজ্য সরকার উন্নয়নে আম্তরিক৷‌ আজকে রাজ্য সরকারকে দোষারোপ করে যাঁরা কথা বলছেন, তাঁদের সময়েই উন্নয়ন ব্যহত হয়েছে৷‌ কৈলাসহর বিমানবন্দর ১৯৯১ সালে বন্ধ হয়ে যায়৷‌ রাজ্য সরকারের সঙ্গে কথা না বলেই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ প্রযুক্তিগত পরিকাঠামো তুলে নিয়ে যায়৷‌ রাজ্য সরকার হেলিকপ্টার পরিষেবা চালু করেছে৷‌ বন্দরের মালিক, বিমান চালু করার মালিক কেন্দ্রীয় সরকার৷‌ চালু করার জন্য দীর্ঘ দিন ধরে রাজ্য সরকার কেন্দ্রের কাছে দরবার করছে৷‌ অবশেষে দীর্ঘ দিন টালবাহানার পর বন্দর কর্তৃপক্ষ বলল, বন্দর সম্প্রসারণ প্রয়োজন৷‌ কিন্তু জমির জন্য টাকা দেবে না৷‌ রাজ্য সরকার জমি অধিগ্রহণ করে দেবে৷‌ কিন্তু বন্দর কর্তৃপক্ষকে বলতে হবে, কবে থেকে বিমান চলবে৷‌ জমি অধিগ্রহণ হল অথচ বিমান চলবে না, তা হতে পারে না৷‌ তার উত্তর এখনও দেয়নি৷‌ রাজ্য সরকার গ্যাসভিত্তিক সার কারখানার দাবি করে আসছে৷‌ রাজ্যের মানুষের দীর্ঘ দিনের দাবি৷‌ ও এন জি সি-কে রাজ্য সরকার বলেছে গ্যাসভিত্তিক কারখানা করার জন্য৷‌ ও এন জি সি বলেছে পেচারথল ও পানিসাগরের মাঝখানে খোবাল গ্যাস কূপকে ভিত্তি করে করা যায়৷‌ ও এন জি সি একা পারবে না৷‌ বেসরকারি কোম্পানি চম্বল ফার্টিলাইজার উৎসাহ প্রকাশ করেছে৷‌ রাজ্য সরকার বলেছে, আপনারা দেখুন কোথায় করা যায়৷‌ এরা হাওরের জমি দেখেছে৷‌ পাশাপাশি রাজ্য সরকার পরামর্শ রেখেছে রুগ‍্ণ চা-বাগান যেখানে বন্ধ রয়েছে সেখানকার জমি দেখার জন্য৷‌ এখনও রাজ্য সরকারকে কেউ কিছু জানায়নি৷‌ তা হলে কেন রাজ্য সরকারকে উন্নয়ন-বিরোধী বলা হচ্ছে? সীমাম্তে আধুনি স্হলবন্দর চালু করার মালিক রাজ্য সরকার নয়৷‌ ভারত-বাংলাদেশ সীমাম্তে স্হলবন্দর করার দাবি উঠেছে৷‌ রাজ্য সরকার শ্রীনগর, শ্রীমম্তপুর এবং মনু ল্যান্ড কাস্টমকে কেন্দ্র করে স্হলবন্দরের জন্য জমি অধিগ্রহণের জন্য অর্থ বরাদ্দ করেছে৷‌ কৈলাসহর ল্যান্ড কাস্টমসে স্হলবন্দরের জন্য অর্থ বরাদ্দ করেছে৷‌ কিন্তু রাজ্য সরকার বা কেন্দ্রীয় সরকার এককভাবে চালু করতে পারবে না৷‌ এ জন্য ভারত ও বাংলাদেশ সরকারকে যৌথভাবে উদ্যোগ নিতে হবে৷‌ বাংলাদেশ সরকারকেও এ জন্য জমি দিতে হবে৷‌ কেন্দ্রীয় সরকারকে উদ্যোগ নেওয়ার জন্য বারবার চিঠি লিখছে৷‌ শিল্প কারখানা, বিমানবন্দর যাদের জন্য হল না, অর্থাৎ নাম না করে কংগ্রেসের কথা বলে মন্ত্রী বলেন, তাদের বিরুদ্ধে কোনও কথা নেই৷‌ অথচ রাজ্য সরকারের উদ্যোগকে খাটো করে দেখাতে গিয়ে বিরোধিতা করছেন উন্নয়নের৷‌ রেগা বন্ধ করার উদ্যোগ নিচ্ছে কেন্দ্র সরকার৷‌ এর বিরুদ্ধে কোনও বক্তব্য নেই৷‌ পাশাপাশি তিনি মনে করেন, সদর দপ্তরের ভিত্তিপ্রস্তর স্হাপনের মধ্য দিয়ে এখানকার উন্নয়নের গতি বাড়বে৷‌ বিধায়ক টুনুবালা মালাকার উন্নয়নের কাজে যুক্ত কর্মচারীদের অনুরোধ জানিয়ে বলেন, সময়ের কাজ সময়ে করুন৷‌ জনগণের পরিষেবা গতি এবং স্বচ্ছতার সঙ্গে করুন৷‌ চণ্ডীপুর পঞ্চায়েত সমিতির ভাইস চেয়ারম্যান পুলিন বলেন, এখানে ৪২ একর খাসজমি ছিল৷‌ অনেকেই বন্দোবস্ত নেওয়ার জন্য দাবি জানিয়েছিলেন৷‌ আমরা আপত্তি করেছিলাম৷‌ ভবিষ্যতের জন্য থাকুক, এতে অনেকে বিরক্তি প্রকাশ করেছিলেন৷‌ জমি ধরে রাখতে পেরেছিলাম বলেই আজ ব্লকের সদর দপ্তর-সহ সংশোধনাগার, গোডাউন, বিদ্যালয় পরিদর্শকের ভবন এখানে তৈরি হবে ধাপে ধাপে৷‌ শিলান্যাসকে কেন্দ্র করে উৎসুক মানুষের ভিড় উপচে পড়ে৷‌ অনুষ্ঠানে স্হানীয় শিল্পীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন৷‌





kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || khela || Tripura ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited