Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ১৭ ফাল্গুন ১৪২১ সোমবার ২ মার্চ ২০১৫
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
জায়গা খুঁজছেন মুকুল--‘বি জে পি সাম্প্রদায়িক দল নয়’ ।। অভিজিৎ-হত্যার তদম্তে এফ বি আই?--জঙ্গি ফারাবি পশ্চিমবঙ্গে? ।। মুখ্যমন্ত্রী হয়েই পাকিস্তান ও জঙ্গিদের ধন্যবাদ ।। দল সাজাতে নোট দিয়েই রাহুল ইউরোপে উপসনায়? ।। মুকুলপম্হীদের সরিয়ে নতুন কমিটি নদীয়ায় ।। যথাযথ পালন করব নতুন দায়িত্ব: বক্সি ।। জাল টাকা, মাদক পাচার রুখতে খাল কাটছে বি এস এফ--সব্যসাচী সরকার ।। মুকুলের পাপ ঘাড়ে নিতে চায় না কং: অধীর--বিজয়প্রকাশ দাস, স্নেহাশিস সৈয়দ ।। ডালমিয়াই প্রেসিডেন্ট--দেবাশিস দত্ত ।। বিশ্বকাপে ১০ দল?--ঠান্ডা ঘরে বসে ওঁরা সিদ্ধাম্তটা নিন: ধোনি ।। অভিজিৎ-হত্যার প্রতিবাদে সোচ্চার কলকাতা ।। আবার মুফতি
ভারত

মুখ্যমন্ত্রী হয়েই পাকিস্তান ও জঙ্গিদের ধন্যবাদ

দল সাজাতে নোট দিয়েই রাহুল ইউরোপে উপসনায়?

আবার মুফতি

জাল টাকা, মাদক পাচার রুখতে খাল কাটছে বি এস এফ

বিচ্ছিন্নতাবাদী মন্ত্রী হলেন

কাটা ঘায়ে ....

খুচরো খবর

মুখ্যমন্ত্রী হয়েই পাকিস্তান ও জঙ্গিদের ধন্যবাদ

মাথায় মুফতি, কাশ্মীরে ক্ষমতায় এল বি জে পি

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share



জম্মু, ১ মার্চ (সংবাদ সংস্হা)– মুফতি মহম্মদ সঈদের নেতৃত্বে শপথ নিল পি ডি পি-বি জে পি জোট সরকার৷‌ জম্মু-কাশ্মীরে এক নতুন ইতিহাসের শুরু৷‌ এই প্রথম ক্ষমতায় এল বি জে পি৷‌ দীর্ঘ টানাপোড়েনের পর ৩৭০ ধারা, সেনাবাহিনীর বিশেষ ক্ষমতা সংক্রাম্ত আইন (আফস্পা)-এর মতো বিতর্কিত বিষয়গুলি চাপা দিয়ে দুই দলের এই ক্ষমতা ভাগাভাগি৷‌ আর ক্ষমতায় এসেই নতুন মুখ্যমন্ত্রী মুফতি রাজ্যে ভোটের অনুকূল পরিবেশ তৈরির জন্য বিচ্ছিন্নতাবাদী, জঙ্গি ও ‘সীমাম্তের ওপারের লোকদের’ অর্থাৎ পাকিস্তানকে ধন্যবাদ জানালেন৷‌ বি জে পি-কে অস্বস্তিতে ফেলে তৈরি করে দিলেন তাজা বিতর্ক৷‌ ন্যাশনাল কনফারেন্সের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা সঙ্গে সঙ্গে টুইট করলেন, বি জে পি এ ব্যাপারে তাদের অবস্হান স্পষ্ট করুক৷‌ ২৫ সদস্যের জোট মন্ত্রিসসভায় মুখ্যমন্ত্রী মুফতি-সহ ১৩ জন পি ডি পি-র৷‌ বি জে পি-কে ছাড়া হয়েছে ১২টি মন্ত্রিপদ৷‌ এই কোটা থেকে এক পিপলস কনফারেন্স নেতা সাজ্জাদ গনি লোনকেও পূর্ণমন্ত্রী করা হয়েছে৷‌ বাকি ১১ জন বি জে পি-র৷‌ এর মধ্যে নির্মল সিংকে উপমুখ্যমন্ত্রী পদ দেওয়া হয়েছে৷‌ এক সময়কার বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা সাজ্জাদ লোন নির্বাচনের আগে নরেন্দ্র মোদির পাশে দাঁড়ান৷‌ তিনি এবার সরকারের অংশীদার৷‌ জম্মুতে এই শপথ অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, বি জে পি সভাপতি অমিত শাহ, দলের প্রবীণ নেতা লালকৃষ্ণ আদবানি, মুরলী মনোহর যোশি, অন্যতম সাধারণ সম্পাদক রাম মাধব৷‌ মুফতি সরকারের শপথের সঙ্গে শেষ হল ৪৯ দিনের রাজ্যপালের শাসন৷‌ বিধানসভার ভোটে ত্রিশঙ্কু ফল রাজ্যে নিয়ে এসেছিল অচলাবস্হা৷‌ ৮৭ আসনের বিধানসভায় পি ডি পি-র আসন ছিল ২৮, বি জে পি-র ২৫৷‌ রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গিতে মেরুর দূরত্ব এই দুই বড় দলের৷‌ বোঝাপড়ার ক্ষেত্রে বড় অম্তরায় হয়ে ওঠে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সংক্রাম্ত ৩৭০ ধারা এবং আফস্পা৷‌ আজ শপথ অনুষ্ঠানের পর সঈদ এবং নির্মল সিং একসঙ্গে সাংবাদিকদের সামনে আসেন, প্রকাশ করেন ১৬ পাতার জোট কর্মসূচি৷‌ তাতে বলা হয়, ৩৭০ ধারা-সহ সমস্ত সাংবিধানিক বিষয়ে স্হিতাবস্হা বজায় থাকবে৷‌ বি জে পি তা হলে তাদের জাতীয় অবস্হানের সঙ্গে আপস করল? একটি সংবাদ চ্যানেলকে নির্মল সিং অবশ্য বলেন, বি জে পি-র কাছে এটি ক্লোজড চাপ্টার নয়৷‌ আফস্পা প্রত্যাহারের দাবিটিতে কিছুটা আপস করেছে পি ডি পি৷‌ এ ব্যাপারে ঠিক হয়েছে, আফস্পা প্রত্যাহারের জন্য বিভিন্ন এলাকায় উপদ্রুত এলাকার বিজ্ঞপ্তি তুলে নেওয়া যায় কি না তা পরীক্ষা করে দেখা হবে৷‌ মুফতির দাবি, তিনি দলের অবস্হান থেকে সরেননি৷‌ তাঁর বক্তব্য, সুবিধাবাদের জোট নয়, রাজ্যের স্বার্থেই এই জোট৷‌ রাজনীতিতে দুই মেরুর যোগসাধনের চেষ্টাও করতে হয়৷‌ দেশের একমাত্র মুসলিম-গরিষ্ঠ রাজ্য জম্মু-কাশ্মীর৷‌ সারা দেশের সামনে এই সরকার একটি দৃষ্টাম্ত৷‌ গুজরাটের মতোই কাশ্মীরকে উন্নয়নের পথে নিয়ে যেতে চান মুফতি৷‌ ভোটে জম্মু অঞ্চলে বিপুল সাফল্য পেয়েছে বি জে পি, কাশ্মীর উপত্যকা ছিল পি ডি পি-র দখলে৷‌ তা মনে রেখেই মুফতি দাবি করেন, রাজ্যের দুই অঞ্চলেরই বিরাট সমর্থন রয়েছে এই সরকারের পেছনে৷‌ পাকিস্তানের সঙ্গে সুসম্পর্ক এবং বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে সংযোগ তৈরির উদ্যোগ নিতে বলেন তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে৷‌ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নতুন সরকারকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, এটা ঐতিহাসিক মুহূর্ত, জম্মু-কাশ্মীরের সামনে এক বড় সুযোগ৷‌ শপথের পর মুফতিকে আলিঙ্গন করেন মোদি৷‌ গভীর আলিঙ্গনে জড়িয়ে নেন সাজ্জাদ লোনেকে৷‌ এবং আরও একজনকে৷‌ ইনি পি ডি পি বিধায়ক হাসিব দ্রাবু৷‌ বি জে পি-র সঙ্গে জোট নিয়ে কথাবার্তায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন৷‌ শপথ অনুষ্ঠান বয়কট করেছে ওমর আবদুল্লার ন্যাশনাল কনফারেন্স৷‌ প্রদেশ সভাপতি সৈফুদ্দিন সোজ ছাড়া কংগ্রেস নেতারাও আসেননি৷‌ পি ডি পি এবং বি জে পি-র ‘নীতিহীন’ জোটের সমালোচনায় মুখর কংগ্রেস, ন্যাশনাল কনফারেন্স, সি পি এম৷‌ টুইটারে ওমর স্মরণ করিয়ে দেন, কাশ্মীরের আলাদা সংবিধান তুলে দেওয়ার জন্য লড়েছিলেন শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়৷‌ বি জে পি কিন্তু সেই সংবিধান মেনেই আজ সরকারে এল৷‌ কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদের খোঁচা, এটা কিন্তু বি জে পি-র ধর্মাম্তরকরণের যুগ৷‌ পি ডি পি-র রাজনৈতিক ধর্মাম্তরকরণ না ঘটে যায়!





kolkata || bangla || bharat || khela || Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited