Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২১ শুক্রবার ২১ নভেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
বেলভিউ ছেড়ে হঠাৎ এস এস কে এমে ভর্তি হলেন মদন ।। পাড়ুইয়ে তৃণমূল সমর্থকের বাড়িতে আগুন, লুটপাট, অভিযুক্ত বি জে পি ।। তল্লাশিতে সি বি আই পেল সুদীপ্তর পুরনো পাসপোর্ট ।। অবসরের মুখে ২জি তদম্ত থেকে অপসৃত রঞ্জিত সিন‍্হা ।। কলকাতা বিমানবন্দরে জঙ্গি হামলার ছক, বাড়ল নিরাপত্তা ।। অমিতের সভা: আজ হাইকোর্টকে সিদ্ধাম্ত জানাবে কলকাতা পুলিস ।। সম্প্রীতি রক্ষায় বাম, কংগ্রেস, তৃণমূল সহমত ।। একশো দিনের কাজের বকেয়া চেয়ে এককাট্টা তৃণমূল, বাম, কংগ্রেস ।। ৮ ফুট বরফের নিচে বাফেলো শহর--মৃত ৭, মোকাবিলায় জরুরি অবস্হা ।। বাংলার ধাঁচে ওড়িশা সরকারও গড়ল তহবিল--বরেন্দ্রকৃষ্ণ ধল, ভুবনেশ্বর ।। বাম ছাত্র-যুবর মিছিলে পুলিসের বেপরোয়া লাঠি ।। জেলায় শীত এসেই গেল
ভারত

সুপ্রিম কোর্টের ধাক্কা সি বি আই প্রধানকে

আশ্রমে নাকি বন্দী ছিলেন!

আদানির ঋণ নিয়ে প্রশ্ন তুলল কংগ্রেস

বাংলার ধাঁচে ওড়িশা সরকারও গড়ল তহবিল

মণিপুরি যুবককে মার তথ্য-প্রযুক্তি নগরীতে

খুচরো খবর

সুপ্রিম কোর্টের ধাক্কা সি বি আই প্রধানকে

অবসরের মুখে ২জি তদম্ত থেকে অপসৃত রঞ্জিত সিন‍্হা

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share



আজকালের প্রতিবেদন: দিল্লি, ২০ নভেম্বর– এক অভূতপূর্ব নির্দেশে টু-জি কেলেঙ্কারি মামলার তদম্ত প্রক্রিয়া থেকে সি বি আই অধিকর্তা রঞ্জিত সিন‍্হাকে সরিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট৷‌ দেশজুড়ে প্রশ্ন উঠে গেল বিভিন্ন মামলায় সি বি আই তদম্তের স্বচ্ছতা নিয়েও৷‌ চাকরি জীবন থেকে অবসর গ্রহণের মাত্র ১২ দিন আগে মস্ত ধাক্কা খেলেন সি বি আই প্রধান৷‌ ২ ডিসেম্বর অবসর নেবেন রঞ্জিত সিন‍্হা৷‌ সর্বোচ্চ আদালত বৃহস্পতিবার টু-জি কেলেঙ্কারি মামলার তদম্ত থেকে রঞ্জিত সিন‍্হাকে নিজে থেকেই সরে দাঁড়ানোর নির্দেশ দিয়েছে৷‌ আদালতের মম্তব্য, প্রাথমিকভাবে সি বি আই অধিকর্তার বিরুদ্ধে টু-জি মামলায় কয়েকজন অভিযুক্তকে আড়াল করার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে৷‌ সেই কারণেই এই মামলার তদম্ত থেকে সম্পূর্ণ ভাবে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হল৷‌ রঞ্জিত সিন‍্হার পরেই সি বি আইয়ে সব থেকে সিনিয়র অফিসার যিনি আছেন, তিনিই এখন এই মামলার তদম্তে নেতৃত্ব দেবেন৷‌ অর্থাৎ, এই মামলায় তিনিই সি বি আই অধিকর্তার ভূমিকা পালন করবেন৷‌ প্রধান বিচারপতি এইচ এল দাত্তুর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চের অন্য দুই সদস্য বিচারপতি এম বি লকুর এবং বিচারপতি এ কে সিক্রি৷‌ তাঁরা এই নির্দেশে বিস্তারিত কিছু লিপিবদ্ধ করতে চাননি৷‌ বলেছেন, বিস্তারিত নির্দেশ দেওয়া হলে সেটা দেশের অন্যতম প্রধান এই তদম্তকারী সংস্হার ভাবমূর্তি ও সুনাম নষ্ট করতে পারে৷‌ সি বি আই অধিকর্তার বিরুদ্ধে এই মামলার কয়েকজন অভিযুক্তের সঙ্গে বৈঠক করার অভিযোগ ছিলই৷‌ সেন্টার ফর পাবলিক ইন্টারেস্ট লিটিগেশন নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্হার পক্ষে আইনজীবী প্রশাম্ত ভূষণ রঞ্জিত সিন‍্হার আবাসনে আসা সাক্ষাৎকারীদের বিবরণ-সহ রেজিস্টারের কয়েকটি পাতা আদালতের সামনে পেশ করেছেন আগেই৷‌ এই নিয়ে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল৷‌ সিন‍্হার তরফে আবেদন করা হয়েছিল, তাঁর আবাসনে সাক্ষাৎকারীদের রেজিস্টার-সহ আরও কিছু গোপন নথি কে বা কারা ফাঁস করেছে সেটা প্রকাশ না করা হলে এই মামলার যেন শুনানি শুরু না হয়৷‌ আদালত আগে নাম জানানোর নির্দেশও দিয়েছিল৷‌ সেই নির্দেশ আজ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়৷‌ এদিন আদালত নিযুক্ত সরকারি আইনজীবী আনন্দ গ্রোভার ও সি বি আইয়ের আইনজীবী কে কে বেণুগোপালও রঞ্জিত সিন‍্হার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন৷‌ এমনকী গোপন নথি ফাঁস করার জন্য অন্য এক সি বি আইয়ের ডি আই জি সম্তোষ রস্তোগির নাম উল্লেখ করায় সিন‍্হার আইনজীবীকে এক হাত নেন বিচারপতিরা৷‌ মামলার শুনানির সময় মধ্যাহ্নভোজের বিরতিতে যাওয়ার আগে বিচারপতিরা রঞ্জিত সিন‍্হার আইনজীবীকে উপস্হিত থাকার নির্দেশ দেন৷‌ দ্বিতীয়ার্ধে প্রশাম্ত ভূষণের পেশ করা সমস্ত তথ্য ভুল ও মিথ্যা বলে দাবি করেছেন সিন‍্হার আইনজীবী বিকাশ সিং৷‌ তবে, অভিযুক্ত ব্যক্তিদের সঙ্গে রঞ্জিত সিন‍্হার একাধিক বৈঠকের প্রসঙ্গে সঠিক কোনও উত্তর দিতে পারেননি তিনি৷‌ শুনানিতে প্রশাম্ত ভূষণ বলেন, তিনি সম্তোষ রস্তোগিকে চেনেন না৷‌ কোনও দিন সাক্ষাৎও হয়নি তাঁর সঙ্গে৷‌ ফলে তাঁর কাছ থেকে গোপন নথি পাওয়ার কোনও প্রশ্নও নেই৷‌ স্বেচ্ছাসেবী সংস্হার পক্ষে আইনজীবী দুষ্মম্ত দাভে আদালতকে বলেন, সি বি আই অধিকর্তা নিজে সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকারে অভিযুক্তদের সঙ্গে বৈঠকের কথা স্বীকার করেছেন৷‌ বিচারপতিরা বলেন, যিনিই গোপন নথি দিয়ে থাকুন না কেন তাঁর পরিচয় জানার প্রয়োজন নেই৷‌ ওই ব্যক্তির নাম প্রকাশ্যে এলে ভবিষ্যতে আর কেউই এইভাবে গোপন নথি দিয়ে সাহায্য করবেন না৷‌ এদিন আদালত কক্ষে আর এক সি বি আই অফিসার অশোক তিওয়ারিকে ভর্ৎসনা করেন বিচারপতিরা৷‌ তাঁকে আদালত চত্বর থেকে বেরিয়ে যেতে বলেন৷‌ তিনি রঞ্জিত সিন‍্হার পক্ষ নিয়ে কিছু বলতে চাইতেই বিচারপতিরা বলেন, ‘আপনি সি বি আই অধিকর্তার প্রতিনিধি নন৷‌ নিজের কাজে যান৷‌’ এদিকে কয়লা কেলেঙ্কারির একটি মামলায় কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ বিজয় দারদা ও অন্যদের বিরুদ্ধে তদম্ত বন্ধ করে দেওয়ার রিপোর্ট জমা দিয়েছিল সি বি আই৷‌ বিশেষ আদালতের বিচারক ভারত পরশকার আজ তা উড়িয়ে দেন৷‌ সি বি আই-কে আরও তদম্ত চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন তিনি৷‌





kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited