Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৫ আশ্বিন ১৪২১ সোমবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
যাদবপুরে ছাত্রী নির্যাতন: নিরপেক্ষ তদম্ত কমিটি গড়ছে রাজ্য ।। যাদবপুর-কাণ্ড: পতাকা ছাড়া আজ তৃণমূলের মিছিল ।। নলিনী চিদম্বরমকে জেরা করল সি বি আই ।। যাদবপুর: জাতীয় মহিলা কমিশনে যাবে বি জে পি ।। কাল থেকে আকাশ পরিষ্কার হলেও পুজোয় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা ।। উত্তরবঙ্গে এইমস: জোরালো দাবি ইসলামপুরে, গলা মেলাল বিহারও! ।। আজ মিছিল বামপম্হীদের, কৃষকদের নিয়ে পথে বি জে পি ।। যাদবপুর: পড়ুয়াদের অভিনন্দন জানাল এস এফ আই কেন্দ্রীয় কমিটি ।। বিহারে জোটশক্তি চিম্তার কারণ, স্বীকার বি জে পি-র ।। তরুণীকে পিষে দিল ডাম্পার, টিকিয়াপাড়ায় ভাঙচুর ৭ বাস ।। কবে ‌ট্যাক্সি পাওয়া যাবে? ।। তৈরি উন্নতির নকশা: মোদি
ভারত

মোদি বললেই ‘একলা চলো’

আমার দুর্গা শুকনো পাতা

যাদবপুর: জাতীয় মহিলা কমিশনে যাবে বি জে পি

নলিনী চিদম্বরমকে জেরা করল সি বি আই

মঙ্গল-অভিযান: আজ চূড়াম্ত পর্বের প্রস্তুতি

বিহারে জোটশক্তি চিম্তার কারণ, স্বীকার বি জে পি-র

প্রার্থী সুষমার বোন, কং-ছুটরা পুরস্কৃত

তৈরি উন্নতির নকশা: মোদি

খুচরো খবর

মোদি বললেই ‘একলা চলো’

১১৯! বি জে পি-কে ‘শেষ কথা’ উদ্ধবের

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share



মুম্বই ও দিল্লি, ২১ সেপ্টেম্বর (সংবাদ সরংস্হা) – ১১৯ আসন৷‌ মহারাষ্ট্রে বি জে পি-কে এর বেশি আসন ছাড়বে না শিবসেনা৷‌ খোদ উদ্ধব ঠাকরে আজ জানিয়ে দিলেন, জোট ধরে রাখার স্বার্থে এটাই তাঁর ‘শেষ চেষ্টা’৷‌ বি জে পি-র জবাব, এতে আর নতুন কী আছে! জোট করার পর থেকে মহারাষ্ট্র বিধানসভার ভোটে বি জে পি তো বরাবর ১১৯ আসনেই লড়ে যাচ্ছে৷‌ রাতে দিল্লিতে বি জে পি সদর দপ্তরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং সভাপতি অমিত শাহের উপস্হিতিতে বসে দলের কেন্দ্রীয় নির্বাচনী কমিটির গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক৷‌ অন্যদিকে মুম্বইয়ে উদ্ধব ঠাকরেও দলের নেতাদের সঙ্গে বসে যান প্রার্থী তালিকা ঠিক করতে৷‌ একটি সূত্রের খবর, মহারাষ্ট্রের বি জে পি নেতারা মোদির কাছে ‘একলা চলো’ লাইন নেওয়ার অনুমতি চেয়েছেন৷‌ বি জে পি নেতারা আরও চটেছেন, উদ্ধব নতুন করে আজ মোদিকে ঠেস দিয়ে কথা বলায়৷‌ মুম্বইয়ে উদ্ধব বলেছেন, ২০০২ -এর গুজরাট দাঙ্গার সময় দেশ জোড়া সমালোচনার মুখেও মোদির পাশে দাঁড়িয়েছিলেন বাল ঠাকরে৷‌ বি জে পি এবার এর প্রতিদান দিক৷‌ দুই বড় শরিকের লড়াইয়ে ছোট শরিকেরা উদ্বিগ্ন৷‌ জোট ছাড়ার হুমকিও দিচ্ছে৷‌ এর পাশাপাশি কংগ্রেস-এন সি পি জোটেও আজ বেরিয়ে এল না কোনও মীমাংসার লক্ষণ৷‌ গতকাল কংগ্রেসকে ২৪ ঘণ্টা সময় দিয়েছিলেন এন সি পি নেতা প্রফুল প্যাটেল৷‌ আজ তিনি জানান, কংগ্রেসের দিক থেকে নতুন কোনও প্রস্তাব আসেনি৷‌ আগামী কাল এন সি পি-র কোর কমিটির বৈঠক বসছে৷‌ এন সি পি এখনও ১৪৪ আসনের দাবিতে অনড়, জানিয়ে দেন প্রফুল প্যাটেল৷‌ মুম্বইয়ে উদ্ধব ঠাকরে আজ বলেন, আজ আমি মহাজুতি (মহাজোট)-কে বাঁচানোর জন্য শেষ চেষ্টা করছি৷‌ আমরা এবার ১৬০ আসনে লড়তে চেয়েছিলাম৷‌ সেখান থেকে ৯টি আসন আমরা ছেড়ে দিতে রাজি৷‌ শিবসেনা লড়বে ১৫১ আসনে, বি জে পি ১১৯ আসনে, বাকি ১৮টি আসন ‘মহাজুতি’র শরিকদের জন্য৷‌ এর বেশি আর সম্ভব নয়, পরিষ্কার জানিয়ে দেন উদ্ধব ঠাকরে৷‌ আজ সকালে শিবসেনার কার্যনির্বাহী সদস্যদের এক বৈঠকের পর কর্মিসভায় ভাষণ দিচ্ছিলেন উদ্ধব৷‌ তিনি জানান, বি জে পি-র রাজ্য সভাপতি দেবেন্দ্র ফড়নবিশ কাল রাতে তাঁর সঙ্গে দেখা করেছিলেন৷‌ বি জে পি নেতা প্রস্তাব দেন, ২৮৮ আসনের মধ্যে ১৩০ আসন দেওয়া হোক তাঁদের, শিবসেনা লড়ুক ১৪০ আসনে, ১৮ আসন উদ্ধবের সঙ্গে৷‌ এই প্রস্তাব তিনি মেনে নিতে পারেননি৷‌ ‘কারণ তাতে শিবসেনার কর্মীরা হতাশ হবে৷‌’ শিবসেনার নেতৃত্বেই সরকার করতে হবে, এটাই তাঁদের লক্ষ্য৷‌ এবং মুখ্যমন্ত্রী পদের দিকে তাঁর নজর, তা আরও একবার স্পষ্ট করে দেন উদ্ধব৷‌ তাঁর ঘোষণা, আমি ক্ষমতা চাই৷‌ যে-কোনও মূল্যে তা আদায় করে নেব৷‌ ক্ষমতা চাই, মহারাষ্ট্রকে কিছু দেব বলে৷‌ নিজের জন্য নয়৷‌ বি জে পি লোকসভা ভোটে ২৭২ আসনের লক্ষ্য নিয়ে লড়েছে, তা স্মরণ করিয়ে দিয়ে উদ্ধব বলেন, শিবসেনা এতে বাদ সাধেনি৷‌ এবার আমরা মহারাষ্ট্রে ১৫০ আসনের লক্ষ্য নিয়ে এগোতে চাইলে বি জে পি-র সেটা মেনে নেওয়া উচিত৷‌ একে তো বাড়তি আসনের দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন, তার ওপর নতুন করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে খোঁচা দিয়ে বি জে পি-কে আবারও চটিয়েছেন আজ উদ্ধব৷‌ তিনি স্মরণ করিয়ে দেন, ২০০২-এর গুজরাট দাঙ্গার পর চারদিক থেকে যখন নরেন্দ্র মোদিকে মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে সরানোর দাবি উঠছে, সেই কঠিন সময়েও তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন প্রয়াত শিবসেনা প্রধান বাল ঠাকরে৷‌ লালকৃষ্ণ আদবানিকে বাল ঠাকরে বলেছিলেন, মোদিকে যেন না সরানো হয়৷‌ কারণ তিনি হিন্দুত্বের পথে চলছেন৷‌ রাজ্যের বিধানসভা এবং বিধান পরিষদের বি জে পি দলনেতা একনাথ খাড়সে দিল্লিতে বলেন, শিবসেনা নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে আমরা কিন্তু বলেছিলাম, আমাদের নেতা নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে যে-সব মম্তব্য করা হচ্ছে, তাতে আমরা ক্রুদ্ধ৷‌ খাড়সে এবং বিধান পরিষদের বি জে পি নেতা বিনোদ তাওড়ে বলেন, ১১৯ আসনের প্রস্তাব আদৌ নতুন কিছু নয়৷‌ আমরা ১৩৫ চেয়েছিলাম, ১৩০ পেলেও রফা হতে পারে৷‌ উল্লেখ্য, গতকাল শোনা যাচ্ছিল, বি জে পি-কে ১২৫ আসন পর্যম্ত ছাড়তে রাজি হয়েছে শিবসেনা৷‌ ২৭ সেপ্টেম্বর মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন৷‌ মহাজুতি-র ছোট শরিকেরা উদ্বিগ্ন৷‌ রাষ্ট্রীয় সমাজ পার্টির নেতা মহাদেও জানকার আজ হুমকি দেন, শিবসেনা এবং বি জে পি কালকের মধ্যে আসন বোঝাপড়া চূড়াম্ত না করলে মহাজুতি থেকে বেরিয়ে যাব৷‌ কংগ্রেস নেতা, রাজ্যের মন্ত্রী নারায়ণ রানে আজ বলেন, মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন, সে-নিয়েই আসলে লড়ছে শিবসেনা-বি জে পি৷‌


kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || khela || Tripura ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited