Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৩১ ভাদ্র ১৪২১ বুধবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
বসিরহাট দক্ষিণে বি জে পি, চৌরঙ্গিতে তৃণমূল ।। বসিরহাটে বি জে পি-র জয়কে গুরুত্ব দিচ্ছে না তৃণমূল ।। কালিয়াচকে পুড়ল ৫ দোকান, জাতীয় সড়কে বোমাবাজি, অবরোধ ।। সূর্যকাম্ত: চিটফান্ডের মাধ্যমে লুট করা সব টাকাই আদায় করা হবে ।। রজত: মানসিক নির্যাতন করছে আমাকে--সি বি আই: উনি সহযোগিতা করছেন না ।। শহর জেতাল শমীককে--স্বদেশ ভট্টাচার্য ।। বাংলাদেশি ইলিশ আনতে কেন্দ্রকে আর্জি মৎস্যমন্ত্রীর ।। আজ আসছেন জিনপিং, অনেক আশায় মোদি ।। ক্যাম্পাসে যৌন হেনস্হার প্রতিবাদে যাদবপুরে উপাচার্য ঘেরাও ।। মেমারিতে বাবার কবরের পাশেই সমাহিত সৈফুদ্দিন--বিজয়প্রকাশ দাস ।। মোদি-হাওয়া উধাও ।। দাম কমবে ডিজেলের?
ভারত

মোদি-হাওয়া উধাও

বাংলাদেশি ইলিশ আনতে কেন্দ্রকে আর্জি মৎস্যমন্ত্রীর

আজ আসছেন জিনপিং, অনেক আশায় মোদি

দাম কমবে ডিজেলের?

ত্রিপুরার মনু কেন্দ্রে জিতল সি পি এম

খুচরো খবর

মোদি-হাওয়া উধাও

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

আজকালের প্রতিবেদন: দিল্লি, ১৬ সেপ্টেম্বর– মোদি-হাওয়ার এ কী হল! কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসার ৪ মাসের মধ্যে ‘দ্বিতীয় পরীক্ষায়’ মুখ থুবড়ে পড়ল নরেন্দ্রভাই দামোদরদাস মোদির দল৷‌ ১০ রাজ্যে উপনির্বাচনে ৩ লোকসভা আসনের বরোদা, মৈনপুরী, মেডকের ফল অপরিবর্তিত থাকলেও ৩২টি বিধানসভা আসনে আজ গণনার ফলে ডাহা ফেল বি জে পি৷‌ ১টি আসন ছত্তিশগড়ের অস্তগড় বিধানসভা আসনে আজ গণনা হয়নি, হবে ২০ সেপ্টেম্বর৷‌ এই ৩২টি বিধানসভা আসনে বি জে পি নিজেদেরই আসন ধরে রাখতে পেরেছে মাত্র ১০টি৷‌ অন্যের আসন কেড়ে প্রাপ্তিযোগ কেবল ২টিতে, পশ্চিমবঙ্গের বসিরহাট দক্ষিণ বিধানসভা আসন ও আসামের শিলচর বিধানসভা আসন৷‌ শোচনীয় হার উত্তরপ্রদেশের ১১ বিধানসভা আসনে মর্যাদার লড়াইয়ে বি জে পি পেয়েছে মাত্র ৩টি, ৮টি পেয়েছে সমাজবাদী পার্টি৷‌ বি জে পি শাসিত রাজস্হানে মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা রাজের মুখ ম্লান করে দিয়ে ৪টি বিধানসভা আসনের মধ্যে কংগ্রেস ছিনিয়ে নিয়েছে ৩টি৷‌ এমনকি মোদির রাজ্যে থাবা বসিয়ে গুজরাটের ৯টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ৩টি ছিনিয়ে নিয়েছে৷‌ উত্তরপ্রদেশের এই ১১ আসন, রাজস্হানের ৪ আসন, গুজরাটের ৯ আসন– সবই ছিল বি জে পি-র৷‌ এই তিন রাজ্যের ২৪ আসনের মধ্যে বি জে পি পেয়েছে মাত্র ১০টি৷‌ সবে ১০০ দিন পেরোনো মোদি-সরকারের কেন এ হাল উপনির্বাচনে, তা নিয়ে উদ্বিগ্ন বি জে পি নেতৃত্ব৷‌ সেই উদ্বেগের গলায় বি জে পি মুখপাত্র শাহনওয়াজ হুসেন দিল্লিতে বলেছেন, বেশ কিছু জায়গায় দলের ফল আশানুরূপ হয়নি৷‌ এরপরই শাহনওয়াজ বলেছেন, উপনির্বাচনে সাধারণত স্হানীয় ইস্যুগুলিই জনসাধারণের কাছে গুরুত্ব পায়৷‌ খতিয়ে দেখতে হবে কেন এমন ঘটল৷‌ উদ্বেগ ঢাকতে এরপরই শাহনওয়াজ মুখে হাসি এনে বলেছেন, পশ্চিমবঙ্গে তো পদ্মফুল ফুটেছে৷‌ উত্তরপ্রদেশে রাজ্য বি জে পি সভাপতি লক্ষ্মীকাম্ত বাজপেয়ী রাজ্যে দলের এই পরাজয় স্বীকার করে নিয়ে বলেছেন, কেন এরকম বিপর্যয় ঘটল, তা পর্যালোচনা করবে দল৷‌ লোকসভা নির্বাচনে উত্তরপ্রদেশে ৮০ আসনের ৭১টিই জিতে বি জে পি যে বিপুল সাফল্য অর্জন করেছিল, তার কারিগর অমিত শাহ পুরস্কৃত হয়েছেন বি জে পি-র সভাপতি পদলাভে৷‌ লোকসভা ভোটের সময় অমিত মুজফ‍্ফরনগর দাঙ্গার বিষয়টি মাথায় রেখে তীব্র প্রচার চালিয়েছিলেন বিভাজনের, এমনকি লোকসভা ভোটে ওই দাঙ্গার বদলা নেওয়ার কথা বলে নির্বাচন কমিশনের কোপেও পড়েছিলেন৷‌ উত্তরপ্রদেশে কিছুকাল তাঁর প্রচারে নিষেধাজ্ঞাও জারি করেছিল কমিশন৷‌ কিন্তু লোকসভা নির্বাচনে বিপুল জয়ে মোদির ডানহাত অমিত দলে প্রশংসা ও সম্মান প্রাপ্তির চূড়ায় উঠে যান৷‌ দলের সভাপতি অমিত এবারের উপনির্বাচনে আরও উগ্র সাম্প্রদায়িক বিভাজনের রাজনীতি চালাতে উত্তরপ্রদেশে প্রচারে নামিয়ে দেন যোগী আদিত্যনাথকে৷‌ মুসলিম ছেলের হিন্দু মেয়েকে বিয়ে করা নিয়ে ‘লভ জেহাদের’ বিরুদ্ধে জোর প্রচার চালান আদিত্যনাথ, কালরাজ মিশ্ররা৷‌ ভোটের ফলে বোঝা যাচ্ছে, সাম্প্রদায়িক বিভাজন, হিন্দুত্ববাদী এসব প্রচারে এবার আর সাড়া দেননি উত্তরপ্রদেশের মানুষ৷‌ যোগী আদিত্যনাথ বলেছেন, নির্বাচন কমিশন তাঁকে প্রচারে বারবার বাধা দেওয়ায় বি জে পি উত্তরপ্রদেশে হেরে গেছে৷‌ উত্তরপ্রদেশের উপনির্বাচনে বহুজন সমাজ পার্টি প্রার্থী দেয়নি৷‌ মায়াবতী জানিয়েছিলেন তাঁর দল উপনির্বাচনে লড়ে না৷‌ বি জে পি মায়াবতীর দলিত ভোট নিজেদের বাক্সে টানার চেষ্টা করেছিল, দেখা যাচ্ছে যে, দলিত ভোটও সংখ্যালঘু ভোটের সঙ্গে গেছে সমাজবাদী পার্টিরই বাক্সে৷‌ স পা অবশ্য বলেছে, নিজেদের জোরেই, অখিলেশ সরকারের কৃতিত্বে জিতেছে তারা৷‌ লোকসভা ভোটের হতাশা কাটিয়ে আজ বড়ই চাঙ্গা লেগেছে কংগ্রেস শিবিরকে৷‌ দিল্লিতে আজ বিকেলে কংগ্রেস মুখপাত্র শাকিল আহমেদ বলেছেন, এই উপনির্বাচনের ফলে বোঝা যাচ্ছে, মোদি-সরকারের মধুচন্দ্রিমা শেষ৷‌ উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেস কোনও আসন না পেলেও শাকিল বলেছেন, বি জে পি-র বিরুদ্ধে যে-ই জিতুক, সেটা ভাল খবর৷‌ শাকিল বলেছেন, উপনির্বাচনের এই ফলে বোঝা যাচ্ছে, সাম্প্রদায়িক বিভাজনের রাজনীতি শেষ পর্যম্ত জিততে পারে না৷‌ বি জে পি-র এত বড় হার হয়েছে সাম্প্রদায়িক বিভাজনের রাজনীতির দরুনই৷‌ রাজস্হানে বিধানসভার ৪ আসনের ৩টিতে জিতে, গুজরাটে বি জে পি-র হাত থেকে ৩টি আসন ছিনিয়ে নিয়ে উল্লসিত কংগ্রেস৷‌ কংগ্রেস নেতা অজয় মাকেনও টুইট করে বলেছেন, মোদি-সরকারের মধুচন্দ্রিমা বড়ই সংক্ষিপ্ত হয়ে গেল৷‌ ক্ষমতায় আসার ১০০ দিনেই কাহিল মোদি সরকার৷‌

৩টি লোকসভা আসন বরোদা, মৈনপুরী ও মেডকের ফল অপরিবর্তিত৷‌ বারাণসী লোকসভা কেন্দ্রে জেতায় বরোদা লোকসভা আসনটি ছেড়ে দিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদি৷‌ এই কেন্দ্রে বি জে পি-র শ্রীমতী রঞ্জন বেন ভাট্টি কংগ্রেস প্রার্থী নরেন্দ্র রাওয়াতকে ৩ লক্ষ ২৯ হাজার ৫০৭ ভোটে হারিয়েছেন৷‌ তবে বি জে পি-র ভোট কমেছে৷‌ ৪ মাস আগে নরেন্দ্র মোদি জিতেছিলেন ৫ লাখ ৭০ হাজার ১২৮ ভোটে৷‌ তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী হয়ে কে চন্দ্রশেখর রাও মেডক লোকসভা আসনটি ছেড়ে দিয়েছিলেন৷‌ উপনির্বাচনে এই কেন্দ্রে চন্দ্রশেখরের দল তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতির প্রার্থী কে প্রভাকর রেড্ডিই জিতেছেন ৫ লক্ষ ৭১ হাজার ৮০০ ভোট পেয়ে৷‌ কংগ্রেস প্রার্থী সুনীতালক্ষ্মী রেড্ডি পেয়েছেন ২ লাখ ১০ হাজার ৫২৩ ভোট৷‌ বি জে পি প্রার্থী টি জয়প্রকাশ রেড্ডি ১ লাখ ৮৬ হাজার ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন৷‌ উত্তরপ্রদেশের আজমগড় ও মৈনপুরী ২টি কেন্দ্রেই জিতে মুলায়ম সিং যাদব মৈনপুরী আসনটি ছেড়ে দিয়েছিলেন৷‌ উপনির্বাচনে মুলায়ম সিং যাদবের নাতি সমাজবাদী পার্টি প্রার্থী তেজপ্রতাপ সিং যাদব ৩ লক্ষ ২১ হাজার ভোটে বি জে পি প্রার্থী প্রেম সিং শাক্যকে হারিয়ে দিয়েছেন৷‌ উত্তরপ্রদেশের ১১টি বিধানসভা আসনের মধ্যে সমাজবাদী পার্টি জিতেছে ৮টিতে– বিজনৌর, ঠাকুরদ্বারা, নিঘাসান, হামিরপুর, চারঘারি, সিরাথু ও বালহায়৷‌ বি জে পি ধরে রেখেছে সাহারানপুর, লক্ষ্নৌ পূর্ব ও নয়ডা৷‌ গুজরাটে ৯ আসনের ৬টিতে জিতেছে বি জে পি– মণিনগর, টাঙ্কারা, তালাজা, আনন্দ, খেড়া ও লিমখেড়ায়৷‌ কংগ্রেস ছিনিয়ে নিয়েছে দেসা, মাংগ্রোল ও খামবালিয়া বিধানসভা আসন ৩টি৷‌ রাজস্হানে ৪ বিধানসভা আসনের ভেতর কংগ্রেস বি জে পি-র হাত থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে নাসিরাবাদ, সুরজগড়, ওয়েইর আসন ৩টি৷‌ বি জে পি শুধু ধরে রাখতে পেরেছে কোটা সিটি আসনটি৷‌ কংগ্রেসের এই জয়ে রাজস্হান প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি শচীন পাইলট বলেছেন, জনসাধারণ বসুন্ধরা রাজের স্বৈরতান্ত্রিক সরকারের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছেন৷‌ মুখ্যমন্ত্রী বসুন্ধরা যে ক্ষমতার অপব্যবহার করে চলেছেন, তার বিরুদ্ধেই এই গণরায়৷‌ আসামে ৩টি বিধানসভা আসনের মধ্যে শিলচর আসনটি বি জে পি ছিনিয়ে নিয়েছে কংগ্রেসের হাত থেকে৷‌ কংগ্রেস ধরে রেখেছে লক্ষ্মীপুর আসন৷‌ অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট ধরে রেখেছে যমুনামুখ বিধানসভা আসনটি৷‌ অন্ধ্রের নন্দীগামা বিধানসভা আসনটি ধরে রেখেছে তেলুগু দেশম পার্টি৷‌ সিকিমের রংগনং বিধানসভা আসনে নির্দল প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়ে জিতেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পবনকুমার চামলিংয়ের ভাই আর এন চামলিং৷‌ তিনি হারিয়েছেন সিকিম ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট প্রার্থী কুমারী মঙ্গারকে৷‌ বি জে পি প্রার্থী বিকাশ বাসনেট ৩৫১ ভোট পেয়ে তৃতীয় স্হানে৷‌ ত্রিপুরা মনু সংরক্ষিত আসনে সি পি এমের প্রভাত চৌধুরি কংগ্রেসের মৈলারফু মগ-কে ৫ হাজার ৭৮৮ ভোটে হারিয়ে দিয়েছেন৷‌ বি জে পি প্রার্থী নির্মলকুমার ত্রিপুরা তৃতীয় স্হান পেয়েছেন৷‌ আসনটি সি পি এমেরই ছিল৷‌ মে মাসে মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার পর উত্তরাখণ্ডে উপনির্বাচনে বি জে পি-র ফল আশানুরূপ হয়নি৷‌ গত মাসে বিহার, কর্ণাটক, পাঞ্জাব, মধ্যপ্রদেশের উপনির্বাচনে বি জে পি ১৮ বিধানসভা আসনের মধ্যে পেয়েছিল মাত্র ৭টি (ূ১ অকালি দল)৷‌ বড় ধাক্কা খেয়েছিল লালু-নীতীশ-কংগ্রেসের মহাজোটের কাছে বিহারের ১০ আসনের মাত্র ৪টি পেয়ে৷‌ এবার আরও বড় ধাক্কা৷‌ এদিকে, দলের এই বিপর্যয়ের মধ্যেই মঙ্গলবার রাতে আমেদাবাদ পৌঁছে গেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷‌ আগামীকাল তাঁর জন্মদিনে সেখানে এসে পৌঁছচ্ছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং৷‌


kolkata || bangla || bharat || editorial || post editorial || khela || Tripura ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited