Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ১৫ ভাদ্র ১৪২১ সোমবার ১ সেপ্টেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
সেরা খাবড়া, দ্বিতীয় দীপক--অহেতুক ফাতাই-নির্ভরতা ।। হ্যাটট্রিক নিয়ে ভাবেননি, দাবি রন্টির--অগ্নি পান্ডে ।। সুভাষ: ওটা ধনচন্দ্রর বুট বাঁধার সময়?--নজরুল ইসলাম ।। কোচ ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, হারলেই চলে যাবেন--মেহতাব হোসেন ।। তৃণমূলের সঙ্গে কোনও কথা নয়, দেখা হবে ময়দানেই: বুদ্ধদেব ।। সারদা-কাণ্ডের তদম্ত দ্রুত শেষ করুক সি বি আই: অসীম ।। সূর্যকাম্ত: মমতার সঙ্গে জোটের প্রশ্নই ওঠে না! ।। হিমঘর তৈরির নামে ৩০০ কোটি হাতান সুদীপ্ত সেন ।। ৩ দিনের ধর্মঘট থেকে পিছু হটলেন আলু ব্যবসায়ীরা ।। প্রতিরক্ষায় সহযোগিতা আরও বাড়াতে রাজি মোদি, অ্যাবে ।। আজ ১৫ বাম দলের মহামিছিল ।। বাগনানে তৃণমূলের গোষ্ঠীসঙঘর্ষ, জখম ১৪
বিদেশ

হিংস্র ইমরান, কাদরির প্রতিবাদ

প্রতিরক্ষায় সহযোগিতা আরও বাড়াতে রাজি মোদি, অ্যাবে

হিংস্র ইমরান, কাদরির প্রতিবাদ

পাক পুলিসের গুলিতে মৃত ৩

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share



ইসলামাবাদ, ৩১ আগস্ট (পি টি আই)– প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ওপর চাপ বাড়াতে গিয়ে প্রতিশ্রুতি ভেঙে হিংস্র হয়ে উঠল ইমরান, কাদরির প্রতিবাদ৷‌ মারা গেলেন ৩ জন৷‌ আহত প্রায় পাঁচশো, তাঁদের মধ্যে বেশ কয়েকজন সাংবাদিক৷‌ পরিস্হিতি মোকাবিলা করতে রবিবার সন্ধ্যায় সেনাবাহিনীর কমান্ডারদের বিশেষ বৈঠক ডেকেছেন পাকিস্তানি সেনাপ্রধান রাহিল শারিফ৷‌ সোমবার সকালে এই বৈঠক হওয়ার কথা ছিল৷‌ কিন্তু অবস্হা বিবেচনা করে তা এগিয়ে আনেন সেনাপ্রধান৷‌ পাকিস্তানে সেনাবাহিনীর গুরুত্ব কারও অজানা নয়৷‌ তাই এই বৈঠকে কী সিদ্ধাম্ত হয় সেদিকে তাকিয়ে রয়েছে গোটা দেশ৷‌ সেনাবাহিনীর মধ্যস্হতায় সরকারের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের কথা ব্যর্থ হওয়ায় শনিবারই ইমরান এবং ধর্মীয় নেতা কাদরি এখনকার জায়গা ছেড়ে নওয়াজের বাড়ির সামনে গিয়ে কর্মীদের ধর্নায় বসার নির্দেশ দেন৷‌ এ কথা শুনেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছিল, বিক্ষোভকারীদের থামানোর জন্য সেনাবাহিনী নিয়োগ করা হবে৷‌ তবুও দমেননি প্রতিবাদীরা৷‌ নিরাপত্তার ঘেরাটোপে-থাকা প্রধানমন্ত্রীর বাড়ির দিকে মিছিল শুরু করেন৷‌ অনেকে পাশেই সংসদ ভবনেও ঢুকে পড়েন৷‌ পুলিস বিক্ষোভকারীদের তাড়া করে সংসদের প্রধান গেটের দিকে নিয়ে যায়৷‌ ততক্ষণে এসে পড়েছে সেনাবাহিনী৷‌ পুলিস কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট ছোঁড়ে৷‌ শুরু হয় লাঠিচার্জ৷‌ পুলিসের দিকেও পাল্টা উড়ে আসে ইট-পাথর৷‌ মারা যান ৩ জন৷‌ ৯০ পুলিসকর্মী এবং ৫ সেনাকর্মীও আহত হয়েছেন, গ্রেপ্তার হয়েছেন প্রায় ১০০৷‌ ইসলামাবাদের পুলিসপ্রধান খালিদ খাট্টাক জানান, বিক্ষোভকারীরা মোটেই নিরস্ত্র ছিলেন না৷‌ অনেকের হাতেই লাঠি-সহ অস্ত্রশস্ত্র ছিল৷‌ কাদরির দল টুইটারে দাবি করেছে, তাদের ৭ সমর্থক পুলিসের গুলিতে নাকি মারা গেছেন! যদিও সরকারিভাবে তার সমর্থন মেলেনি৷‌ তবে পাকিস্তান ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেসের ডাঃ আয়েষা ইসানি টিভি চ্যালেনকে জানিয়েছেন, আমাদের হাসপাতালে মারা গিয়েছেন ৩ জন৷‌ দু’জন হাসপাতালে৷‌ অপর জনকে মৃত অবস্হাতেই হাসপাতালে আনা হয়েছিল৷‌ শনিবার সারা রাত ধরে সঙঘর্ষের পর রবিবার ফের একজোট হয়ে প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করেন দুই দলের কর্মীরা৷‌ আগুন লাগানো হয়েছে বেশ কয়েকটি কন্টেনার এবং গাড়িতে৷‌ পুলিসের গুলিতে কর্মীদের মৃত্যুতে নওয়াজ এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এফ আই আর করার হুমকি দিয়ে ইমরান খান বলেছেন, ‘ইয়া আজাদি ইয়া মওত’৷‌ দাবি আদায়ে মৃত্যু পর্যম্ত লড়াই চালিয়ে যাব৷‌ তাঁদের উসকানিকে সমর্থন করে জানিয়েছেন, যাঁরা বলছেন প্রধানমন্ত্রীর বাড়ির দিকে মিছিল করে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া উচিত হয়নি, তাঁরা স্বাধীনতা এবং দাসত্বের মধ্যে পার্থক্য জানেন না৷‌ আমাদের কর্মীরা শাম্তিপূর্ণভাবে মিছিল করছিলেন৷‌ গণতন্ত্রে শাম্তিপূর্ণ প্রতিবাদের অধিকার রয়েছে৷‌ কিন্তু নওয়াজ একজন ফ্যাসিস্ত৷‌ গণতন্ত্রের অর্থ বোঝেন না৷‌ কাদরি বলেছেন, এটা জনগণের ওপর অবিশ্বাস্য আক্রমণ৷‌ এত কিছুর পরও নিরাপত্তার বেড়া ভেঙে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনে ঢুকতে পারেননি প্রতিবাদীরা৷‌ নওয়াজ শরিফ অবশ্য রাজধানীতে তাঁর সরকারি বাসভবন আক্রাম্ত হতে পারে ভেবে লাহোরে নিজের বাড়িতে চলে যান শুক্রবারই৷‌ পুলিস বিক্ষোভকারীদের না সরানো পর্যম্ত ফিরবেন না বলে প্রথমে জানালেও, পুলিসের গুলি এবং মৃত্যুর জেরে তড়িঘড়ি ইসলামাবাদে ফিরে আসেন রবিবার৷‌ দুপুরে তিনি মন্ত্রিসভার সদস্যদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক করেছেন৷‌ বৈঠকের পর তথ্যমন্ত্রী পারভেজ রাসিদ জানান, ফের বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে কথা শুরু করতে তৈরি সরকার৷‌ তবে সঙঘর্ষ আমরা শুরু করিনি, করছেন প্রতিবাদীরাই৷‌ সংসদ গণতন্ত্রের প্রতীক৷‌ সেই সংসদ ভবনে হামলা চালিয়ে অপরাধ করেছেন প্রতিবাদীরা৷‌ ইসলামাবাদে পুলিসের গুলি, লাঠি চালানোর প্রতিক্রিয়া লাহোরেও হতে পারে এই আশঙ্কা থেকে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে লাহোরে নওয়াজের বাড়ি ঘিরে৷‌ এদিকে হিংসার জন্য ইমরান এবং কাদরির সমালোচনা করেছে বিরোধী পি পি পি-সহ বিভিন্ন দলের নেতারা৷‌ বলেছেন, এভাবে প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবিটাই বেআইনি৷‌ এই দুই নেতা যা করলেন সেটা নিঃসন্দেহে সব রকমের আম্তর্জাতিক রীতিনীতির বিরোধী৷‌ এদিনের হিংসার জন্য ইমরান আর কাদরিই দায়ী৷‌


kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || khela || Tripura ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited