Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৫ ভাদ্র ১৪২১ শুক্রবার ২২ আগস্ট ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
সেবি-রহস্যে নীতুই তুরুপের তাস--সব্যসাচী সরকার ।। গারদে পাশাপাশি বসলেন দু’জনে--অগ্নি পান্ডে ।। পরিবহণ, দ্রব্যমূল্য নিয়ে এবার লাগাতার আন্দোলন বামফ্রন্টের ।। বসিরহাট দক্ষিণে মৃণাল চক্রবর্তী, চৌরঙ্গিতে ফৈয়াজ আহমেদ খান ।। কম জমিতে সিঙ্গাপুরের বিস্তার দেখে মুগ্ধ মমতা ।। ‘সরকার ফেলার চেষ্টা করবেন না’, ইমরানকে হুমকি দিল আমেরিকা ।। সি বি আই তদম্ত চেয়ে চিঠি এইমসের অপসারিত কর্তার--প্রশ্নের মুখে মোদির সরকার ।। লকারভর্তি সোনাদানা!--সেন্সর-কর্তার সর্বনেশে কীর্তি ।। পুজো সাজাবেন একঝাঁক মহিলাও--শিখর কর্মকার ।। ৫ দিন পরেও অধরা সুনিয়া-কাণ্ডের মূল অভিযুক্তরা--নিহতের বাড়িতে নিরাপত্তায় সিভিক পুলিস! ।। লালবাজার অভিযানে বিমান বসু ।। নির্ভরযোগ্য যাদবপুর
বিদেশ

কম জমিতে সিঙ্গাপুরের বিস্তার দেখে মুগ্ধ মমতা

‘সরকার ফেলার চেষ্টা করবেন না’, ইমরানকে হুমকি দিল আমেরিকা

কম জমিতে সিঙ্গাপুরের বিস্তার দেখে মুগ্ধ মমতা

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

দীপঙ্কর নন্দী, সিঙ্গাপুর




২২ আগস্ট– ভারতীয় শিল্পপতিদের কাছে বাংলায় বিনিয়োগ করার আহ্বান জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি৷‌ বৃহস্পতিবার সন্ধেয় ইন্ডিয়া ক্লাবে গিয়ে ভারতীয় শিল্পপতিদের উদ্দেশে মমতা এও বলেন, বাংলা তো আপনাদের সকলেরই চেনা৷‌ কেউ না কেউ কোনও সময়ে ওখানে কাটিয়েছেন৷‌ আপনারা নিশ্চয়ই চাইবেন বাংলা আরও এগিয়ে যাক৷‌ আমিও সেই চেষ্টাই করছি৷‌ আমার কিন্তু আজ আপনাদের এখানে আসার কথা ছিল না৷‌ অমিত মিত্রকেই আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল৷‌ তিনিই আপনাদের কাছে সমস্ত কিছু বিস্তারিত বলবেন৷‌ আমি আপনাদের কিছুটা অবাক করে দেওয়ার জন্য এসেছি৷‌ আপনারা ইতিমধ্যে জানেন সিঙ্গাপুর সরকারের আমন্ত্রণ পেয়ে এখানে এসেছি৷‌ বাণিজ্য প্রতিনিধিদল এখানে নিয়ে এসেছি৷‌ দু’তরফেই খুব ভাল আলোচনা হয়েছে৷‌ আবার আমি আসব৷‌ এদিন মমতা দুপুরে সিঙ্গাপুরের বিদেশমন্ত্রী কে ষম্মুগমের সঙ্গে বৈঠক করলেন৷‌ বৈঠকে দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা হয়৷‌ দুই দেশের মধ্যে ব্যবসা, শিল্প, সংস্কৃতির মধ্য দিয়ে যাতে নতুন সম্পর্ক গড়ে ওঠে, সে-বিষয়েও আলোকপাত করা হয় বৈঠকে৷‌ বৈঠকের পর সিঙ্গাপুরের বিদেশমন্ত্রীকে কলকাতায় আসার আমন্ত্রণ জানান মুখ্যমন্ত্রী৷‌ এদিন বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্হিত ছিলেন রাজ্যের অর্থ ও শিল্পমন্ত্রী অমিত মিত্র এবং মুখ্য সচিব সঞ্জয় মিত্র৷‌ অমিত মিত্র সাংবাদিকদের জানান, কন্যাশ্রী প্রকল্পের কথা মমতা ষম্মুগমকে জানিয়েছেন৷‌ এই প্রকল্পের কথা শুনে তিনি অবাক৷‌ ষম্মুগম মমতাকে বলেন, আপনার পক্ষে এটা কীভাবে সম্ভব হল৷‌ খুব ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে৷‌ আমরা খুবই আশাবাদী৷‌ পর্যটন নিয়ে আমাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে৷‌ শিল্প দপ্তরের সমস্ত অফিসারেরা সিঙ্গাপুরের ট্যুরিজম বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করেছেন৷‌ আলোচনায় ছিলেন মুখ্য সচিব সঞ্জয় মিত্র ও আলাপন বন্দোপাধ্যায়৷‌ বছরে সিঙ্গাপুরে দেড় কোটি পর্যটক আসেন৷‌ এত পর্যটকদের ওরা কীভাবে আকর্ষণ করে তা নিয়েও কথা হয়েছে৷‌ বাংলায় যে সমস্ত পর্যটনকেন্দ্র আছে, আরও হতে চলেছে, তাতে বিনিয়োগ করা নিয়েও আলোচনা হয়েছে৷‌ ক্ষুদ্রশিল্প নিয়েও আলোচনা হয়েছে সচিব রাজেশ সিনহার নেতৃত্বে৷‌ নগরোন্নয়ন দপ্তরের অফিসারদের সঙ্গেও আলোচনা হয়েছে৷‌ সিঙ্গাপুরে একটি জিনিস লক্ষ্য করা গেছে৷‌ কম জমিতে বাড়ি, হোটেল ও অফিস তৈরি করা হয়েছে৷‌ বাস্তবে এটা কীভাবে সম্ভব তা নিয়েও অফিসারেরা জানতে চেয়েছেন৷‌ ওঁরা আমাদের খুব ভাল করে বিষয়টি বুঝিয়েছেন৷‌ বিশ্ববাংলায় ওরা ফ্র্যাঞ্চাইজি চায়৷‌ ষম্মুগম বলেছেন, ওঁরা বাংলায় বাণিজ্য করতে চান৷‌ আমরা বলেছি, এটা নিয়ে এখনও আলোচনা হয়নি৷‌ আলোচনা করে আপনাদের জানাব৷‌ মুখ্যমন্ত্রী বিদেশমন্ত্রী ষম্মুগমকে জানিয়েছেন, বাংলায় শিল্পের পরিবেশ অনেক ভাল৷‌ আপনারা আমাদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন৷‌ এদিন অমিত মিত্র সাংবাদিকদের জানান, বাংলা ও সিঙ্গাপুরের বন্ধন অনেক দিনের৷‌ মমতা চান একসঙ্গে কাজ করতে৷‌ সেটা বিদেশমন্ত্রী ষম্মুগমকে বলা হয়েছে৷‌ ষম্মুগম এদিন মুখ্যমন্ত্রীর সম্মানে মধ্যাহ্নভোজের আয়োজন করেছিলেন৷‌ জানা গেছে, তিনি কলকাতা সম্পর্কে উৎসাহ প্রকাশ করেছেন৷‌ বিশেষত, এখানকার কৃষ্টি-সংস্কৃতি নিয়েও আলোচনা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে৷‌ প্রসঙ্গত, মঙ্গলবারই সেখানকার প্রধানমন্ত্রী লি শিয়েন লুং-এর সঙ্গে বৈঠক করেন মমতা৷‌ সেখানে তাঁকে কলকাতায় আসার আমন্ত্রণ জানান৷‌ সেই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বাবার নামে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে চেয়ার করার প্রস্তাবও দেওয়া হয়৷‌ এই বৈঠকের পর রাজ্যে শিল্পে বিনিয়োগের নতুন দিক খুলল৷‌ এমনকি সেদিন বৈঠকে কলকাতা-সিঙ্গাপুর বিজনেস সেন্টার করার বিষয়ে আলোচনা হয়৷‌ রাজ্যের হেরিটেজ বিল্ডিংগুলির সংস্কার নিয়েও আলোচনা হয়৷‌ এদিকে, গতকালের শিল্প বৈঠক নিয়ে এ রাজ্য থেকে যাওয়া শিল্পপতিদের মধ্যে যথেষ্ট উৎসাহের সৃষ্টি হয়৷‌ যে বিষয়গুলি নিয়ে মউ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে, সেগুলি রূপায়িত হলে বাংলায় কাজের নতুন দিশা খুলে যাবে৷‌ সেই সঙ্গে বেকার যুবক-যুবতীদের জন্য কাজের ক্ষেত্র আরও প্রসারিত হবে৷‌ যে বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা হয়েছে তার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হল, বাটায় আবাসন প্রকল্প ও নদীতীর সৌন্দর্যায়নের জন্য জি আই সি সিঙ্গাপুর এইচ ডি এফ সি ব্যাঙ্কের মাধ্যমে প্রায় ২০০ কোটি টাকা লগ্নি৷‌ কলকাতায় কেভেন্টার অ্যাগ্রো লিমিটেডের সঙ্গে সিঙ্গাপুরের ইনফ্রো কোম্পানির লেটার অফ ইনটেন্ট হয়েছে৷‌ এর ফলে, ডানকুনি ফুড পার্কের জন্য ১ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ আসবে৷‌ কোচবিহার-কলকাতা ভায়া দুর্গাপুর বিমান ও বাগডোগরায় রাতের বিমান চলাচলেও সমঝোতা হয়েছে৷‌ ইন্ডিয়া ক্লাব থেকে মমতা এদিন বাসেই নাইট সাফারিতে যান৷‌ বাংলাদেশ থেকে অনেকেই এসেছিলেন নাইট সাফারিতে৷‌ তাঁরা মমতাকে দেখে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন৷‌ তাঁরা মমতাকে বলেন, আপনার কথা খবরের কাগজে পড়ি, ছবি দেখি৷‌ বরিশাল থেকে আসা কয়েকজন বাংলাদেশি মমতাকে বলেন, আপনি ভাল থাকবেন৷‌ আপনাকে দেখে খুব ভাল লাগল৷‌ ট্রামে করে মমতাকে নাইট সাফারি ঘুরিয়ে দেখানো হয়৷‌ এটা চিড়িয়াখানার একটা অংশ৷‌ ভেতরে কখনও অন্ধকার, কখনও আলো৷‌ ঝিঁ ঝিঁ পোকার ডাক৷‌ আলোহীন রাতের গ্রামের রাস্তার মতো৷‌ বাঁদিকে, ডানদিকে ঘুরে বেড়াচ্ছে বাঘ, সিংহ, হরিণ, ভল্লুক, গন্ডার৷‌ বিভিন্ন প্রজাতির হরিণ, শুয়োর, নেকড়ে, হায়না, হাতি৷‌ প্রত্যেকের আলাদা আলাদা জায়গা৷‌ অদ্ভুত একটা পরিবেশ! নিস্তব্ধ এই পার্কে শুধুই ট্রামের আওয়াজ৷‌ ঝিঁ ঝিঁ পোকার শব্দ৷‌ কখনও নেকড়ে ডাকছে৷‌ ৪৫ মিনিট নাইট সাফারিতে ছিলেন মমতা৷‌ তিনি বলেন, সিঙ্গাপুর সরকার নাইট সাফারিতে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন৷‌ তাই আমি এসেছি৷‌ আমরাও সাফারি পার্ক তৈরি করছি৷‌ আমাদের চিড়িয়াখানায় এখন অনেক পর্যটক আসছেন৷‌ ইউনিয়নবাজি কিছুটা কমেছে৷‌ পশুপাখি দেখতে চিড়িয়াখানায় এখন অনেক মানুষ আসছেন৷‌ সিঙ্গাপুর সময়ে রাত ৯টা নাগাদ মমতার বাস হোটেলে ফিরে আসে৷‌ আজ মমতা সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের বিমানে সরাসরি ফিরে আসছেন কলকাতায়৷‌ পৌঁছতে রাত হবে৷‌ শুক্রবার মমতার সারাদিন কোনও কর্মসূচি নেই৷‌


kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited