Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২১ রবিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  নেপথ্য ভাষন  খেলা  রবিবাসর   আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
নেপথ্য ভাষন -অশোক দাশগুপ্ত--ডাক্তার যদি না-ও হতেন ।। মোদিকে বার্তা মমতার, আমাকে আঘাত করেছেন, প্রত্যাঘাত পেতে হবে ।। সৃঞ্জয়কে ২৬ নভেম্বর পর্যম্ত সি বি আই হেফাজতের নির্দেশ--অগ্নি পান্ডে ।। অসীম: স্বাধীনতার পর এত বড় আর্থিক কেলেঙ্কারি আর হয়নি--উদয় বসু ।। কাশ্মীরে দুই পরিবারকে হটানোর ডাক মোদির ।। সি বি আই জেরায় এবার খোদ নবীনের ডান হাত ।। বহরমপুর কলেজে কং, তৃণমূল ছাত্রদের ব্যাপক সঙঘর্ষ, জখম ৬ ।। সোমেন: সি বি আইয়ের আমাকে ডাকা ভাগ্যের পরিহাস ।। শ্রমিকদের হাতে খুন চা-বাগানের মালিক ।। সার্ক রেলপথে জুড়বে লাহোর-দিল্লি-কলকাতা-ঢাকা? ।। শ্বাসকষ্ট আছে মদনের ।। কলকাতা পুরভোটের প্রচার শুরু বামফ্রন্টের
সম্পাদকীয়

বোধসঙ্কট

বোধসঙ্কট

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

কলকাতার নাগরিক সমাজে এখন এক বিচিত্র বোধসঙ্কট উপস্হিত৷‌ কেউ যদি প্রশ্ন করেন– কেন? তার কোনও নির্দিষ্ট উত্তর নেই৷‌ এন আর এস-এর হস্টেলে একজন মানুষ নির্দয় প্রহারে মারা গেছেন৷‌ কারা সেই প্রহার-বীর তা গত কয়েকদিনে জেনে গেছেন শহরবাসী৷‌ হবু ডাক্তাররা আজও নিশ্চয় আর্তজনের সেবার প্রশ্নে মানসিকতা অর্জনে বিশ্বাসী, সেই জন্য তাঁরা কাণ্ডটা ঘটিয়েছিলেন৷‌ নির্মম ঘটনাটা ঘটেছিল গত ১৬ নভেম্বর রবিবার৷‌ এতদিনেও পুলিস ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ধরেনি৷‌ অথবা বলা যায় উৎসাহিতই হয়নি৷‌ চারদিন পরেও মেডিক্যাল কলেজটির মাননীয়া অধ্যক্ষা সহজ স্বীকারোক্তিতে জানিয়েছেন পুলিস নাকি পরে নামের তালিকা চেয়েছে৷‌ সেখানে হুবু ডাক্তারদের ঠিকানা ও ফোন নম্বর চাওয়া হয়নি৷‌ এই সংবাদের পরেও কিন্তু উত্তেজিত হওয়া উচিত হবে না, স্হির বিবেচনায় কাউকে নির্বোধও বলা যাবে না৷‌ মৃত্যুর ঘটনাটি জঘন্য অপরাধ, বিশেষ করে এক অসহায় ব্যক্তিকে অনেকে মিলে ক্রমাগত আঘাত করলে কখন তার মৃত্যু ঘটবে– এই অনুমান ক্ষমতা অন্যদের তুলনায় ছাত্র-ডাক্তারদের একটু বেশিই থাকা উচিত৷‌ এতকাল এ দেশে বেঁচে থেকে দেশবাসী নিশ্চয় জেনে গেছেন পুলিস সাধারণত দুই প্রকার– সরকারি ও দরকারি৷‌ প্রগতিশীল বর্তমানে অবশ্য যে কোনও লগ্নে চরিত্রের পরিবর্তন ঘটতে পারে৷‌ স্বামীর মৃত্যুর চারদিন পরে নিহত কোরপান শা-এর স্ত্রী খুনিদের ধরার জন্য আবেদন জানাতে এলে পুলিসবাবুরা তাঁদের গরমভাত খাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন৷‌ এরপরেও সরকারি পুলিসদের বোধবুদ্ধি, সহৃদয়তা সম্পর্কে কোনও সন্দেহ থাকা উচিত নয়৷‌ তবে হ্যাঁ, খুনিদের ধরে ফেলার কাজটা যে তেমন সহজ নয়, আর পরিস্হিতি, পরিবেশ ও অনুল্লেখিত নির্দেশ ইত্যাদির স্বাস্হ্যকর সংমিশ্রণে কাজটায় বেশ বিলম্ব ঘটবে তা বুঝিয়ে দেওয়া গেছে৷‌ কোথায় সত্যিই বোধবুদ্ধির প্রয়োজন ঘটে, কোথায় দ্রুত সিদ্ধাম্ত নিয়ে নিহতের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য করতে হয়– এই সব বুঝতে জনগণকেও খানিকটা বোধবুদ্ধি খরচ করতে হবে, যদি সেটা আদৌ থাকে৷‌





kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || nepathya bhasan ||
khela || sunday || Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited