Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ১২ শ্রাবণ ১৪২১ মঙ্গলবার ২৯ জুলাই ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
তৃণমূলি বোমায় জখম সেই পুলিসকর্মী মারাই গেলেন ।। তাপস পাল: হাইকোর্টের তত্ত্বাবধানে সি আই ডি তদম্তের নির্দেশ ।। আগস্টে শুরু সারদা-ঘনিষ্ঠ প্রভাবশালীদের জেরা, তৈরি তালিকা ।। রোজভ্যালির সম্পত্তির একাংশ বাজেয়াপ্ত করল এনফোর্সমেন্ট ।। মাঝ আগস্টেই মোদির রদবদল ।। ডিজেলের দাম কমাতে রাজ্যের ওপর শুল্কহ্রাসের চাপ কেন্দ্রের ।। এনসেফেলাইটিস নিয়ে বিমান: মুখ্যমন্ত্রীকে শাস্তি দেবে কে? ।। এনসেফেলাইটিসের উপসর্গ নিয়ে মেডিক্যালে রেফার কেস বাড়ছে ।। রাষ্ট্রপুঞ্জের ডাকে গাজায় যুদ্ধবিরতি, তবু শিশুহত্যা ।। হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি হচ্ছেন মঞ্জুলা চেল্লুর ।। আজ ইদ উৎসব ।। লক্ষ্মণ-তমালিকা বি জে পি-র দিকে!
উত্তর সম্পাদকীয়

মালগুদাম

মালগুদাম

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

অসিত দাস

তাপস মাল মহাশয় নদীয়া জেলায় যে নদের নিমাইয়ের মতো অহিংসা দেখাবেন না, বরং নাকাশিপাড়ায় নিকেশ করার হুঙ্কার ছাড়বেন, তাতে আশ্চর্য হওয়ার কিছু নেই৷‌ বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে বারবার চন্দননগরের এই ‘সুসম্তান’-এর ভাষ্য তথা ভাষণ দেখানো হচ্ছে পক্ষকাল যাবৎ৷‌ মাঝে মাঝে মনে হচ্ছে বাংলাভাষার ‘শাম্তিপুরী’ সংস্করণ যে জেলায় তৈরি হয়েছিল, যা কিনা আমাদের বিদ্বান ও বিদ্বজ্জনের কাছে ‘মান্যচলিত ভাষা’, সেই জেলারই একটি অংশে বিরচিত হল ‘ভাষাধর্ষণ’ বা ‘ধর্ষণভাষ্য’৷‌ তবে মাঝে মাঝে এই সংশয়ও মনে উঁকি মারছে, তাপস মালবাবুর মুখনিঃসৃত ভাষার মধ্যে টালিগঞ্জের চিত্রনাট্যভাষার কিছু অবদান আছে কি না৷‌ এম এল এ ফাটাকেষ্ট, বাইশে শ্রাবণ, অটোগ্রাফ, কাঙাল মালসাট, হারবার্ট-এর নায়ক-নায়িকারা যে ভাষায় কথা বলছে, তাপস মাল যেন সেই ভাষাতেই কথা বলছেন৷‌ তিনি বাংলাভাষার যে লব‍্জগুলি ব্যবহার করছেন, তাঁর বাগ‍্ভঙ্গিমায় বা বাক্যবিন্যাসে যে ধারার প্রয়োগ করছেন, তা যেন আধুনিক চিত্রনাট্যের খেরোর খাতা থেকে উঠে আসছে৷‌ তাঁর মুখে খিস্তিখেউড় যেন কিস্তিতে কিস্তিতে সাপ্লাই দিচ্ছেন স্বখাত সলিল মার্কা চিত্রনাট্যকারগণ৷‌ ‘দাদার কীর্তি’ কিংবা ‘গুরুদক্ষিণা’ কিংবা ‘সাহেব’ কিংবা ‘ভালবাসা ভালবাসা’র রোমান্টিক সংলাপ-বলা জিভে নির্দ্বিধায় উঠে আসে এক অকৃত্রিম ধর্ষণভাষ্য, খুনখারাবির সুলিখিত চিত্রনাট্য৷‌ যেভাবে পায়ের জুতো খুলে তিনি সি পি এমের বাচ্চাদের দেখালেন, তাতেও যেন তাঁর অভিনয়-প্রতিভাই ধরা পড়ল৷‌

তবে একটা ব্যাপার নিয়ে কেউই যেন মুখ খুলছেন না৷‌ নব্য-হুতোম বা নব্য-আলালেরাও মুখ খুলতে সাহস করছে না৷‌ ওদের মা যে কুকুরের সঙ্গে সহবাস করেছিল, তাই ওরা মানুষ নয়, পা-চাটা কুত্তার দল, সে বিষয়ে তাপস মালবাবু নিঃসন্দেহ৷‌ মা-মাটি-মানুষের একটু অপমান হল না কি এই ‘অবভাষা’ বা স্ল্যাংয়ের দৌলতে? সি পি এমের মা-ও তো মা৷‌ সি পি এমের তাবড় তাবড় তাত্ত্বিক নেতাগণ বিষয়টা এড়িয়েই যাচ্ছেন৷‌ কেন জানি না, মুখ খুলে বিতর্কিত হতে চাইছেন না! একজন পোড়খাওয়া কমরেড আমার কানে কানে বললেন, ‘মালবাবু তো মা বলেছেন, মার্কস তো বলেননি! তা হলে আমরা খামোখা মুখ খুলতে যাবই বা কেন?’ তাঁর যুক্তি অকাট্য বলেই মনে হল, তবে এঙ্গেলস বললে তিনি কোন অ্যাঙ্গেল থেকে ব্যাপারটা ব্যাখ্যা করতেন, তা ঠিক ঠাওর করতে পারলাম না৷‌ ম্যাক্সিম গোর্কির ‘মা’ পড়েছিলাম বাংলা অনুবাদে৷‌ মনে হল, নিজের মাকে নিয়ে না বললে কমরেড মহাশয় কিছুই গায়ে মাখবেন না৷‌ ‘ডায়ালেকটিক‍্স’ বা দ্বন্দ্বমূলক বস্তুবাদে ‘দলের মা’ ও নিজের মা নিয়ে কোনও শ্রেণীগত বিভাজন করা হয়েছে কি না জানি না৷‌ অভ্যম্তরীণ গঠনতন্ত্র নিয়ে চুলচেরা বিচার-বিবেচনা না করে, দুম করে কিছু বলা নাকি শোভনীয় নয়৷‌ বৃন্দা কারাতের মতো সাহসী আর কতজনই বা হতে পারবেন!

তবে তাপস মালবাবু যে সমস্ত অস্ত্রের প্রয়োগের কথা বলেছেন, পিস্তল বাদ দিলে বাকিগুলি সবই আদিম ও পুরাতনপম্হী৷‌ বঁটি, টাঙি, কুড়ুল, ভোজালি প্রভৃতিরই ভজনা করেছেন মাল মহাশয়৷‌ এই সমস্ত প্রাগৈতিহাসিক অস্ত্রশস্ত্র মালগুদামের কোন গোপনগহন অন্ধকারে লুকিয়ে রেখেছিলেন তিনি? ফ্রয়েডীয় মনস্তত্ত্বের কোন গহীন স্তরে তিনি বিরাজ করছিলেন সেই ক্ষণজন্মা মুহূর্তে? যদি দেখানো যায় মালবাবু তাঁর অ্যান্টি এপিলেপ্টিক ওষুধগুলো আগের দিন খেতে ভুলে গিয়েছিলেন, প্রেশারের ওষুধও ঠিকঠাক খাচ্ছিলেন না, তবে কি আদালতে তিনি পার পেয়ে যেতে পারেন? মানসিক ভারসাম্যহীনতাই কি হতে পারে মাল মহাশয়ের একমাত্র রক্ষাকবচ? তবে সেয়ানা পাগলেরা ঠিক সময়ে ক্ষমা চেয়ে নেয়, ক্ষমাপ্রার্থনা কার কাছে করা হল সেটা বিবেচ্য নয়, তিনি ঈশ্বরের কাছে ক্ষমা চাইলেও সেটা গ্র্যান্ট হবে, মা-মাটি-মানুষ নিশ্চয় তাঁকে ক্ষমা করে দেবেন!

তবে একটা রহস্য কিছুতেই ধরতে পারছি না মালমশাই, সি পি এমের মা নিয়ে এত কিছু বললেন, কিন্তু কুকুরের মা নিয়ে কিছুই বললেন না কেন? কুকুরের মা স্বর্গবাসিনী সরমা৷‌ তাঁর সম্তানগণ তাই ‘সারমেয়’৷‌ এই মহতী কু!ুরীকে অপমান করা যায় না৷‌ বিভীষণ-পত্নীর সঙ্গে তাঁর নামের মিল থাকলেও তিনি অলকাপুরীর দেবনন্দিত কু!ুরী৷‌ সরমাকে কোনও কোনও সাহিত্যে দেবী হিসেবেও দেখানো হয়েছে৷‌ তাপস মালবাবু কি জানেন যুধিষ্ঠিরের শেষ যাত্রার সঙ্গীও এক কুকুর৷‌ কুকুর সম্পর্কে দু-চারটে কথা যা আমি জানি, তাতে দেখা যাচ্ছে, ড্ডত্থণ্ড-কে উল্টে দিলেই ণ্ডত্থড্ড (গড)৷‌ সি পি এমের মাকে নিয়ে এত কিছু বললেন, কুকুরের মাকে নিয়ে কেন যে কিছু বললেন না মাল মহাশয়! আর কুকুর-কু!ুরীর জন্য যে নায়িকা দিনে অনেকটা সময় বরাদ্দ করেন, তিনিও তাঁর ‘দাদার কীর্তি’ দেখে মালবাবুকে একটু ভর্ৎসনা পর্যম্ত করলেন না? বেচাল ও বাচাল মালবাবুর সারমেয়-ভাষ্য দেখেও পশুপ্রেমীরা কোনও প্রতিবাদ পর্যম্ত করলেন না৷‌ সি পি এমের মা কি কুকুরের চেয়েও অধম? মা মানেকা তুমি কোথায়?

তবে ফাঁদ একটা পাতা হয়েছে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে৷‌ যেভাবে দিনের পর দিন চ্যানেলগুলোয় ‘দাদার চতুর্কীর্তি’ দেখানো হচ্ছে দিনের পর দিন, তাতে মনে হচ্ছে একটা বামপম্হী প্রতিক্রিয়া যেন টিভি চ্যানেলওয়ালাদের এই মুহূর্তে ভীষণভাবেই দরকার৷‌ ‘ওদের মা৷‌...৷‌ শুয়েছিল’ এই কথাটা যেভাবে বারবার শোনানো হচ্ছে, তাতে মনে হচ্ছে ‘ওদের’ একটি প্রতিক্রিয়া অতীব জরুরি৷‌ কিন্তু সি পি এমের দলতন্ত্রে ‘পার্টির মা’ বলে যেহেতু কিছু হয় না, তাই সকলেই যেন নির্বিকার, সাবধানী৷‌ নেতাদের যেন নির্বিকল্প সমাধি হয়েছে৷‌ অনেকে ‘সাবজুডিস’ বলে ব্যাপারটা এড়িয়ে যাচ্ছেন৷‌ তবে মালবাবুকে একটু স্মরণ করিয়ে দেওয়া ভাল, বাংলাভাষায় ‘কালীঘাটের কুকুর’ বলে একটি শব্দবন্ধ বা লব‍্জ আছে৷‌ এর সঙ্গে ভাল, মন্দ যা-ই জড়িয়ে থাকুক না কেন, লব‍্জটি কিন্তু এখনও বাংলায় ব্যবহূত হয়৷‌ নেড়িকুত্তা, পা-চাটা কুত্তার সঙ্গে কিছুটা মিল পাওয়া যায় এই কালীঘাটের কুকুরের৷‌ কুকুরের স্বর্গীয় মাতা সরমা তাপস মালবাবুকে ক্ষমা করবেন কি না জানা যাচ্ছে না, তবে মর্ত্যধামের মানবীরা যে তাঁকে ক্ষমা করবেন না, এটা একপ্রকার নিশ্চিত৷‌


kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited