Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৪ বৈশাখ ১৪২১ শুক্রবার ১৮ এপ্রিল ২০১৪
Aajkaal 33
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
পশ্চিমবঙ্গের প্রথম দফার ভোট নির্বিঘ্নেই ।। মালদায় মমতা: শেষ করুন জমিদারতম্র ।। স্ত্রী এবং ছেলের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে তড়িঘড়ি সাড়ে ৪ কোটি টাকা গেল কোথায়? ।। কমিশনের কাজে পুরো খুশি নয়, তবে সাহসী ভোটারদের অভিনন্দন: সি পি এম ।। ছক কষেই মোদি বেনারসে: কারাত--দেবারুণ রায়,বারাণসী ।। ৪০০ গ্রাম চষে ফেলেছেন--অরুন্ধতী মুখার্জি৷‌ বাঁকুড়া ।। ধামসা-মাদল, গরুর গাড়ি, মহামিছিলে মনোনয়ন ।। ৪ আসনেই এত হিংসা, ওরা কী করে গণতন্ত্রের পক্ষে হয়! বিমান ।। রাজনীতির ওপর আশা নেই, তাই ভোট দিলেন না ১১৩ বছর বয়সী বৃদ্ধা ।। জেলার চিটফান্ডগুলি যাতে টাকা ফেরত দেয় তার জন্য প্রশাসনকে ব্যবস্হা নিতে নির্দেশ ।। মুখ্যমন্ত্রীর হোটেলে আগুন ।। পঞ্চম দফায় ১২১ আসনে ভোট শাম্তিতেই
উত্তর সম্পাদকীয়

দুটো আলতু-ফালতু কথা

দুটো আলতু-ফালতু কথা

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

মিহির সেনগুপ্ত

শুরুতেই জানাইয়া রাখি এখানে কোনও নামবাচক শব্দে আমি কোনও ব্যক্তিকে ইঙ্গিত করিতেছি না৷‌ তথাপি যদি কেহ সেইরূপ ধরিয়া লইয়া ব্যথিত বা ক্ষুব্ধ বোধ করেন, অধমকে অশিক্ষিত নাবালক বোধে ক্ষমা করিবেন৷‌ এমনকী পাঁঠা, গাধাও বলিতে পারেন৷‌ আমি কিছু মনে করিব না, গায়েও মাখিব না৷‌ তবে একটা অনুরোধ, কদাপি সি পি এম বলিবেন না৷‌ কারণ পাঁঠা, গাধার তবুও কিছু ভবিষ্যৎ আছে, সি পি এমের কোনও ভবিষ্যৎ নাই৷‌ তাহা ছাড়াও, আমি জীবনে কোনও কালে সি পি এমে ছিলাম না৷‌ এখন তো থাকিবার প্রশ্নই নাই৷‌ কারণ, সাধ করিয়া ঠেঙানি খাইবার শখ পাঁঠা, গাধারও থাকে না৷‌ সে কথাও যদি বাদ দিই, এটা তো সত্য যে, এখন সময়টা সি পি এমের দলে যাইবার নহে, দল ছাড়িবার৷‌ সি পি এমে এখন আর শাঁস-জল কিছুই জুটিবার নাই৷‌ বরং অন্যত্র যদি রঙ বদল করিয়া ভিড়িয়া পড়া যায়, কিঞ্চিৎ দেরি হইয়া গেলেও, ভোটের মুখে যথেষ্ট শাঁস-জল না পাইলেও, প্রভূত ঘাস-জল পাওয়া যাইতে পারে৷‌ সি পি এমে থাকিলে তাহাও জুটিবে না৷‌ মনকে বলি, সৎ তাই তৃণাদপি সুশীল৷‌

বিগত রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের বেশ কিছুকাল আগে হইতে রাজ্যের বুদ্ধিজীবীদের একটি দূরদর্শী অংশ নিজেদের সুশীল, স্বজন ইত্যাদি আখ্যায় আভূষিত করিয়া সি পি এম তথা বাম তাড়াইবার মহান দ্রোহে যথাযথভাবে প্রতিষ্ঠা পাইয়াছেন৷‌ সি পি এমও বুঝিয়াছে, কত ধানে কত তুষ৷‌ পরিবর্তনবাদীদেরও বেশ কিছু সংখ্যক বুঝিয়াছেন, কত তুষে কত তেল অথবা বামেদের হাত হইতে মুক্তি কতই মিষ্ট আহার৷‌

কিন্তু সুশীলদের বেশ কিছু সংখ্যক, যাঁহারা জানেন যে সবুরে মেওয়া ফলে, তাঁহারা কিন্তু শাঁসে-জলে-মদে-কাঞ্চনে এবং নাবালিকা অথবা যে কোনও বয়সী নারীধর্ষণের মুক্ত গণতন্ত্রে বড় দিব্য ভাব নিয়া আহ্লাদে আছেন৷‌ এইসব দেখিয়া, যাঁহারা তখন ‘সুশীলদের’ লোভ লালসার বিষয়ে দলকথা বলিয়া প্রতিদিন টিভির পর্দা ফাটাইতেন, তাঁহারা ভাবিলেন, ‘What a mistake!’, ভাবিলেন সংসদীয় নির্বাচনের ঘণ্টা বাজিয়াছে৷‌ এইবেলা কিছু সুশীলের লেজুড় ধরিয়া আমরা সুবোধ হই৷‌ সি পি এমটার জন্য আর পণ্ডশ্রম করিয়া লাভ কী? কতকাল আর নির্বোধ থাকিব? সুযোগের অসদ্ভাব হইল না৷‌ একদার স্বজন ব্যক্তিত্বদের যাঁহারা সাংসদ পদপ্রার্থী, তাঁহাদের সঙ্গে ব্যক্তিগত বন্ধুত্বের খাতিরে, এতদিনে কোলবালিশের মতো মোটা হওয়া তাঁহাদের লেজ ধরিয়া শ্রীযুক্ত অমুক কবিরত্ন, শ্রীযুক্ত তমুক নাট্যচঞ্চু ঝুলিয়া পড়িলেন৷‌ কিন্তু সঙ্গে সঙ্গে এ কথাও বলিতে থাকিলেন যে, তাই বলিয়া তাঁহারা তাঁহাদের ব্যক্তিগত আদর্শ ত্যাগ করেন নাই৷‌ কবিরত্ন কহিলেন, ‘স্প্যানিশ কবি ও নাট্যকার গার্সিয়া লোরকা একই সঙ্গে ক্যাথলিক, হোমোসেক্সুয়াল এবং কমিউনিস্ট ছিলেন সুতরাং ...’ ইহাদ্বারা লোরকার নাটক বা কাব্যের অথবা ব্যক্তিমানুষটিকে যে তিনি নিন্দা না প্রশংসা করিলেন, তাহা বুঝিলাম না৷‌ নাট্যচঞ্চু কহিলেন, ‘আমি জন্মসূত্রে কমিউনিস্ট৷‌’ জানি না, মুসলমান বা কমিউনিস্ট জন্মসূত্রে হওয়া সম্ভব কী না৷‌ শাস্ত্রমতে হওয়া যায় না বলিয়াই শুনিয়াছি৷‌ হিন্দুরা অবশ্য জন্মসূত্রে হিন্দু হইয়া থাকে, এরূপ কথিত আছে৷‌ তবে বুঝিলাম, সব সুবোধ বালক এবং শত্রু-নিপাতকারী ‘স্পষ্ট বক্তারা’ আরেকটা পরিবর্তনকামী হিড়িক তুলিলেন এবং আবার কিছুদিন টিভির পর্দায় যুদ্ধদৃশ্য তথা সংলাপে চক্ষু-কর্ণের ক্লেশ বৃদ্ধি পাইবে৷‌

অবশ্য তাঁহারা বলিতেই পারেন যে যাহা কিছু পুরাতন, জীর্ণ, ক্ষীণ তাহার পরিবর্তন হইবেই! কারণ, বুদ্ধ (ভগবান লোক বুদ্ধ, বুদ্ধ ভট্টাচার্য নহেন) বলিয়াছেন, ‘খিনং পুরানং নবং নত্থি সম্ভবম‍্৷‌’ ক্ষীণ এবং পুরাতনের নব উত্থান সম্ভব নয়৷‌ সুতরাং সি পি এমকে মদত দিয়া লাভ নাই৷‌ তাহারা এখন ক্ষীণ এবং পুরাতন হইয়া গিয়াছে, সুতরাং পরিত্যজ্য৷‌ প্রতিটি বস্তু যে ক্ষণিকের অস্তিত্বেই সত্যক্ট এরকম একটি দার্শনিক মতও শুধু বুদ্ধের নয়, যবন দার্শনিক হেরাক্লিটাসের বক্তব্যেও উক্ত হইয়াছে৷‌ তবে কী না সেই সব উক্তিকে আক্ষরিক ভাবে অনুসরণ করিলে সঙ্গিনী কচি বান্ধবীটিকেও ইট, কাঠ, মাটির ঢেলা ইত্যাদি বলিয়া বোধ হইতে পারে৷‌ যে কোনও দার্শনিক মতকেই ক্ষেত্রানুসারে বিচার করিয়া লইতে হয়৷‌ পদার্থের গ্রম্হনা বলিয়াও তো একটা ব্যাপার থাকে, শুধুমাত্র ‘ক্ষণিকত্বে সত্য’ বলিয়া তাঁহারা না হয় অদ্য সি পি এমের দিকে পশ্চাৎ ফিরাইলেন, কিন্তু কল্য? আবার যাহাকে অদ্য আশ্রয় করিলেন, কল্য কি তাহার জীর্ণ, পুরাতন হইবার সম্ভাবনা থাকিবে না? কিন্তু সে যাহা হইবে তো হইবে, তাহাতে কী? আপনারা অদ্যকার ক্ষণিকত্বেই বাঁচুন এবং টু-পাইস কামাইয়া, শাঁসে জলে, মদে-মাদিতে বাঁচুন৷‌ শুধু বেকার কৈফিয়ত দিবেন না৷‌ কোনও একটা চূড়াম্ত দুঃখজনক ঘটনায় সি পি এম শ্শানযাত্রী হয় নাই বলিয়া নাকে কাঁদিয়া মিথ্যাভাবে বেচারিকে দায়ী করিবেন না৷‌ আগে যাহা বুঝিয়াছিলেন, তাহা বলিয়াছেন, এখন যদি তাহা সংশোধন করিতে চাহেন, বলুন, আগে ভুল করিয়াছি, সে ভুল আর হইবে না৷‌ সি পি এম দলটা ষাটের দশক হইতে অনেকগুলো ধাক্কা কাটাইয়া আসিয়াছে৷‌ এই ধাক্কাটা কাটাইতে না পারিলে মরিবে, তাতে আপনাদের কী?

তবে যদি অসম্ভব ভবিষ্যতে সম্ভব হয়, অর্থাৎ এই হার্মাদেরা এবারের ধাক্কাও কাটাইয়া উঠিতে পারে, দয়া করিয়া যেন তখন আবার দোদুল্যমানতায় সময় নষ্ট করিবেন না৷‌ আগের বারে, অর্থাৎ পরিবর্তনের সুশীল পর্বে যাহা করিয়াছিলেন, তাহা নিরেট অদূরদর্শিতার কাজ হইয়াছিল৷‌ ভাগ্যিস, সংসদ নির্বাচনের প্রাক্কালে বিদ্যাধর, বিদ্যাধরীদের তারকারা শুধু নহেন, চন্দ্র সূয্যিরাও বাজার মাত করিতে নামিয়া গন্ধর্বদের জন্য সুযোগ আনিয়া দিলেন৷‌ সুতরাং ...৷‌

আসলে আমাদের রাজ্যে বুদ্ধিজীবী তিন প্রকার, সুশীল, সুবোধ এবং অবোধ৷‌ সুশীলদের ‘সেটিং’ যথোপযুক্ত সময়ে হইয়া গিয়াছিল৷‌ তাঁহাদের লেজ বা আঁচল ধরিয়া সুবোধদের সেটিং হইতে চলিয়াছে৷‌ এর পরে যাঁহারা থাকিয়া যাইবেন, তাঁহারা হয় অবোধ নয় নির্বোধ৷‌ তাঁহাদের কথা ভাবিয়া দুঃখ হয় বটে, তবে তাহা নিরর্থক৷‌

আসিব আসিব করিয়া শেষ পর্যম্ত নির্বাচনও আসিয়া পড়িয়াছে৷‌ কাহার চিত্ত অতিরিক্ত ব্যাকুল তাহা জানি না, তবে এবারের নির্বাচন যে একাধিক সুযোগ সন্ধানীকে যথাযোগ্য সাফল্য আনিয়া দিবে তাহাতে কোনও সন্দেহ নাই৷‌ স্বয়ং ঈশ্বর নিশ্চয় তাঁহার স্বভাব অনুযায়ী সকলেরই মঙ্গল করিবেন৷‌






kolkata || bangla || bharat || editorial || post editorial || khela || Tripura ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited