Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৪ পৌষ ১৪২১ শনিবার ২০ ডিসেম্বর ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  সংস্কৃতি  ঘরোয়া  পর্দা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
অবশেষে রাষ্ট্রপতি ভবনে মোদি-মমতা মুখোমুখি ।। যাদবপুর: সমাবর্তন অনুষ্ঠানে শংসাপত্র নেওয়া সম্মানের ।। মদনের ১৪ দিনের জেল হেফাজত--সোমনাথ মণ্ডল ।। না জানিয়ে গ্রেপ্তার: রাজ্যপালকে নালিশ তৃণমূলের--দীপঙ্কর নন্দী ।। ২ মেয়েকে খুন, বাবাকে ফাঁসি দিল আদালত ।। সাহিত্য আকাদেমি উৎপলকুমার বসুকে ।। লাকভিকে আটকে মুখ বাঁচাল পাকিস্তান ।। ২ রাজ্যে শেষ দফার ভোট আজ, ফল ২৩শে ।। আজ শচীনের বিশ্বকাপ-গল্প, তাতাবেন সৌরভও ।। ভেন্টিলেশন থেকে স্বাস্হ্যে ফিরছে অস্ট্রেলিয়া ।। ৪৮ ঘণ্টায় ৩ হাজার জঙ্গির ফাঁসি চান পাক সেনাপ্রধান ।। বড়দিনেই আবার টয়ট্রেনে পাহাড়ে
খেলা

ফিকরুর না থাকা শাপে বর হতে পারে

ভেন্টিলেশন থেকে স্বাস্হ্যে ফিরছে অস্ট্রেলিয়া

ফিকরু ফেরত, হাবাস আপস করলেন না

আজ শচীনের বিশ্বকাপ-গল্প, তাতাবেন সৌরভও

ফিকরু ছাড়াই জিতেছি: সৌরভ

‘বাইচুংয়ের পাশে উপকৃত হবে নতুন প্রজন্ম’

বাইরে ট্রেনিং দারুণ কাজ দিয়েছে: পি কে

শর্ট বল! জনসনকে দেখাতে গিয়েই বিপদ

জনসনের জবাব ছিল না: স্মিথে

লক্ষ্মী-মনোজকে অভয় দিলেন সৌরভ

অত্যধিক শর্ট বল, মানছেন উমেশ যাদব

চাপ! ডিগবাজি পাক হকি কোচের

ম্যাচ না পিছিয়ে বিতর্কে পি সি বি

১৫০ রান বেশি দিয়েছে ভারত: সৌরভ

ড্র! দুই কোচই অসন্তুষ্ট

ভারত-অস্ট্রেলিয়া টেস্টের স্কোর

এক ম্যাচ নির্বাসিত বালোতেলি

রোনাল্ডো, মেসির পাশেই নেইমার

সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

শেষ চারে সাইনা, শ্রীকাম্ত

সোনারপুরে অনূর্ধ্ব ১৯ আই লিগ

ফলো অন করছে ওঃ ইন্ডিজ

থাকবেন কোকে

ফিকরুর না থাকা শাপে বর হতে পারে

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

সুরজিৎ সেনগুপ্ত




দু’মাসেরও বেশি সময় ধরে চলা এক ফুটবল যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটতে চলেছে আজ৷‌ আরব সাগরের তীরে৷‌ ফাইনালে অ্যাটলেটিকো দি কলকাতা এবং কেরালা ব্লাস্টার্স৷‌ টুর্নামেন্টে এ যাবৎ দু’বার দেখা হয়েছে দুই দলের৷‌ একবারও কিন্তু জিততে পারেনি কলকাতা৷‌ এমনকী প্রথম দিকে যখন হাবাসের দল খুব ভাল ছন্দে ছিল, তখনও নয়৷‌ পারফরমেন্সের গ্রাফের দিকে যদি তাকাই, দেখতে পাব, কেরালা কখনও ভাল খেলেছে, আবার খারাপও খেলেছে৷‌ ফর্ম পড়েছে, আবার উঠেছে৷‌ এভাবে ভাল-মন্দ খেলতে খেলতেই কোচিতে সেমিফাইনালে চেন্নাইনের মতো দলকে ৩ গোলে হারিয়েছে কেরালা৷‌ চেন্নাইন দস্তুরমতো ভাল দল৷‌ তাকে ৩ গোল দেওয়া সহজ কথা নয়৷‌ ইয়ান হিউমের কথা এক্ষেত্রে উল্লেখ করতে চাই৷‌ ওর গোল স্কোরিং এবিলিটি বার বার দেখা গেছে৷‌ ফিকরু যখন গোল পাচ্ছিল, তখন ওর সঙ্গে হিউমের তুলনা চলে আসছিল৷‌ রিটার্ন সেমিফাইনালে ৩ গোল খেলেও অতিরিক্ত সময়ের শেষ মুহূর্তে যে গোলটা করে কেরালা ফাইনালে গেল, তা অসাধারণ৷‌ ওইরকম টেন্সড অবস্হায়, মাথা ঠান্ডা রেখে গোল, দারুণ বলতেই হবে৷‌ ফাইনালে কেমন খেলবে কেরালা? ওদের যা ওঠা-নামা পারফরমেন্স, প্রেডি’ করা মুশকিল৷‌ কার্ড সমস্যায় প্রথম দলের দু-তিনজন খেলতে পারবে না৷‌ শেষদিকে যে লাল কার্ডটা দেখল বোহান জর্ডিচ, তা অনভিপ্রেত৷‌ আমার খুবই ভাল লেগেছে কেরালার তিনকাঠির নিচে এক বঙ্গসম্তানের খেলা৷‌ সন্দীপ নন্দী৷‌ ডেভিড জেমসের থেকেও ওর খেলা দৃষ্টি কেড়েছে আমার৷‌ ফাইনালের জন্য আমাকে দল বাছতে দিলে গোলে সন্দীপকেই রাখতাম৷‌ কোচিং স্টাফেদের মধ্যেই রয়েছে জেমস৷‌ মর্গানের সঙ্গে কথা বলে নিশ্চয়ই সঠিক সিদ্ধাম্তই নেবে৷‌

কলকাতা কিন্তু সেভাবে কোনও বৈচিত্র্য দেখাতে পারেনি৷‌ স্লো হলেও ওদের পারফরমেন্স গ্রাফ নিম্নমুখী৷‌ প্রথম দিকের যে পারফরমেন্স, প্রতিযোগিতা যত এগিয়েছে, তা ধরে রাখতে পারেনি৷‌ একটা ছন্নছাড়া অবস্হা যে তৈরি হয়েছে, তা কারও বুঝতে অসুবিধে হয়নি৷‌ ফুটবলারদের ক্লাম্তও দেখিয়েছে৷‌ এমনকী প্রকাশ্যে এসে পড়েছে দলের ভেতরের ঝগড়াঝাঁটিও৷‌ যা মোটেই ভাল ইঙ্গিত নয়৷‌ এই অবস্হাতেই ফাইনালে খেলতে নামছে কলকাতা৷‌ নিরপেক্ষ জায়গায় খেলা৷‌ মুম্বইয়ের আবহাওয়া এইমুহূর্তে বেশ ভাল৷‌ ঠান্ডা, গরম, কোনওটাই বেশি নয়৷‌ আর্দ্রতাও ঠিকঠাক৷‌ ফলে ভাল ফুটবল আশা করতে পারি৷‌ তবে অতিরিক্ত উত্তেজনায় ছন্দপতনের আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না৷‌ পা চালাচালি করে খেলাটাকে মামুলি করে দিতে পারে৷‌ ঝকঝকে পরিবেশে প্রথম আই এস এল খেতাব ঘরে তুলতে উত্তেজনার বশে খেলা যেন বৈচিত্র্য না হারায়৷‌

ফিকরুর অনুপস্হিতির কথায় আসি৷‌ যা নিয়ে ফাইনালের প্রিভিউ লিখতে বসে দু’রকম প্রতিক্রিয়া হচ্ছে৷‌ অনেকেই বলছেন, এমনকী কেরালার কয়েকজন ফুটবলারও বলছে, ফিকরু না থাকায় তাদের সুবিধেই হল৷‌ তাদের মতে, ফিকরুর মতো দীর্ঘদেহী স্ট্রাইকার না থাকায় কেরালার রক্ষণ স্বস্তিতে থাকবে৷‌ আমি মনে করি, এইরকম স্ট্রাইকারকে উদ্দেশ্য করে পেছন থেকে লম্বা লম্বা পাস দিলে ফরোয়ার্ড লাইনের সঙ্গে মিডফিল্ড এবং ডিফেন্সের একটা গ্যাপ তৈরি হয়৷‌ এই ধরনের খেলা আসলে মান্ধাতা আমলের৷‌ আধুনিক ফুটবলের সঙ্গে যা একেবারেই খাপ খায় না৷‌ তাই বলব, ফিকরুর অনুপস্হিতিতে সেই খেলাটা না-ও খেলতে পারে কলকাতা৷‌ বেশি সংখ্যক পাস খেলে আক্রমণ শানানো, এই নীতিতে ভাল হতে পারে৷‌ ফিকরুর না থাকা শাপে বরও হতে পারে কলকাতার কাছে৷‌

রক্ষণ নির্ভর ফুটবল৷‌ যা আমরা কলকাতার খেলায় দেখে এসেছি৷‌ ওদের খেলাগুলোর দিকে লক্ষ্য করলেই বোঝা যাবে, ফাইনালে উঠলেও গোলসংখ্যা কমতে শুরু করেছে৷‌ অধিকাংশই ড্র৷‌ যা কোচের স্ট্র্যাটেজি হতে পারে, ফুটবলারদেরও৷‌ হুড়মুড় করে আক্রমণে উঠে পাল্টা গোল না খাওয়ার থেকে রক্ষণ সামলে খেলাই ভাল৷‌ এক্ষেত্রে আরও একটা কথা মাথায় রাখতে হবে৷‌ সমুদ্রের পাড়ে খেলা৷‌ বাতাস ভারী থাকবে৷‌ শট নিচু হয়ে যেতে পারে, সুইং করতে পারে৷‌ ফলে দূরপাল্লার শটে গোলের সম্ভাবনা থেকে যাচ্ছে৷‌ নিশ্চিতভাবেই সতর্ক থাকতে হবে ডিফেন্ডারদের৷‌ অর্ণব, হোসেমিরা কলকাতার ডিফেন্সে দারুণ খেলছে৷‌ মাঝমাঠ সচল রাখছে বোর্জা, গার্সিয়ারা৷‌ আজ হয়ত গার্সিয়া সামনে খেলবে, ফিকরু না থাকায়৷‌ বিশ্বকাপজয়ী দলের ফুটবলার৷‌ নিজেকে আরও এক উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার শেষ সুযোগ গার্সিয়ার সামনে৷‌ পাস দেওয়া-নেওয়া করে যে খেলা কেরালা খেলেছে এতদিন, সেটাই খেলতে হবে ওদের৷‌ হিউমের ওপর অনেকটাই নির্ভর করবে ওরা৷‌ তবে সব মিলিয়ে, যেহেতু কলকাতার নামের সঙ্গে জড়িয়ে আছি, অল্প হলেও মনে হচ্ছে, অ্যাডভান্টেজ অ্যাটলেটিকো দি কলকাতা৷‌





kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
sangskriti || ghoroa || tv/cinema || Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited