Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ১২ শ্রাবণ ১৪২১ মঙ্গলবার ২৯ জুলাই ২০১৪
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  বিদেশ  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
তৃণমূলি বোমায় জখম সেই পুলিসকর্মী মারাই গেলেন ।। তাপস পাল: হাইকোর্টের তত্ত্বাবধানে সি আই ডি তদম্তের নির্দেশ ।। আগস্টে শুরু সারদা-ঘনিষ্ঠ প্রভাবশালীদের জেরা, তৈরি তালিকা ।। রোজভ্যালির সম্পত্তির একাংশ বাজেয়াপ্ত করল এনফোর্সমেন্ট ।। মাঝ আগস্টেই মোদির রদবদল ।। ডিজেলের দাম কমাতে রাজ্যের ওপর শুল্কহ্রাসের চাপ কেন্দ্রের ।। এনসেফেলাইটিস নিয়ে বিমান: মুখ্যমন্ত্রীকে শাস্তি দেবে কে? ।। এনসেফেলাইটিসের উপসর্গ নিয়ে মেডিক্যালে রেফার কেস বাড়ছে ।। রাষ্ট্রপুঞ্জের ডাকে গাজায় যুদ্ধবিরতি, তবু শিশুহত্যা ।। হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি হচ্ছেন মঞ্জুলা চেল্লুর ।। আজ ইদ উৎসব ।। লক্ষ্মণ-তমালিকা বি জে পি-র দিকে!
খেলা

তিন ‘বি’-এর ঝাপটায় ভারত কোণঠাসা!

কানাডাকে পেছনে ফেলে চারে উঠল ভারত

নানা পরীক্ষা সুভাষের

বিনা পয়সায় হোল্ডিংয়ের টিপস

বিলেতের ডায়েরি

জয়ের গন্ধ পাচ্ছে ইংল্যান্ড

সাবিরকে জীবনকৃতি সম্মান দিল মহমেডান

মুরলি, কোহলি কেন নেই স্লিপে? সানি

পঞ্চরত্নের সংবর্ধনা আজ

অভিষেকেই গোল কোস্তার

আই এস এলে এবার পিরেস

ভারত: ইংল্যান্ড টেস্টের স্কোর

কলকাতা ফুটবল লিগে

সিরিজ জিতল দঃ আফ্রিকা

রোনাল্ডো একাই

হেরে বিদায় বাংলার

হারল ভারতের অনূর্ধ্ব ২৩

পরশু শুরু রাজ্য অ্যাথলেটিক্স

তিন ‘বি’-এর ঝাপটায় ভারত কোণঠাসা!

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

দেবাশিস দত্ত, সাউদামটন




২৮ জুলাই– ‘বি’ ফর ব্যালান্স, ‘বি’ ফর বেল৷‌ চা-পানের পর আরও এক ‘বি’ এসে এমন ঝাপটা দিল যে, ভারত রীতিমতো কোণঠাসা হয়ে পড়েছে দ্বিতীয় দিনের খেলার শেষে৷‌ একে রামে রক্ষা নেই, তায় সুগ্রীব তো ছিলেনই, শেষ পর্বে হনুমানের ভূমিকায় তৃতীয় ‘বি’ অর্থাৎ বাটলার এমন ব্যাটের তাণ্ডব (৮৩ বলে ৮৫) দেখালেন, যে লর্ডস টেস্টে হেরো দল, যাবতীয় ব্যর্থতা ভুলে, ৭ উইকেটে ৫৬৯ রান তুলে ইনিংসের সমাপ্তি ঘোষণা করে, ভারতকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বসল৷‌ চা-পানের আগে দুই ‘বি’ জুটিতে ১৪২ রান যোগ করে ভারতকে বড় ধাক্কা দিয়েছিল৷‌ অভিষেক টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে মোহালিতে ৮৫ বলে শিখর ধাওয়ানের রেকর্ড প্রায় ভেঙে দিতে চলেছিলেন এখানে প্রথম টেস্ট খেলতে নাম জোস বাটলার৷‌ ষষ্ঠ উইকেটে বেলের সঙ্গে জুটি বেঁধে বাটলার যোগ করেছিলেন ১০৬ রান৷‌ পরে ওকসের সঙ্গে সপ্তম উইকেট ৪৩ রান যোগ করে যখন তিনি ৬ মারতে গিয়ে জাদেজার বলে বোল্ড হয়ে গেলেন, তখন ভারতীয় বোলিং বিধ্বস্ত বললে কম বলা হয়৷‌ মার এবং মার, প্রায় এক দিনের ক্রিকেটে রান তোলার ভঙ্গিতে মাঠ মাতিয়ে তৃতীয় ‘বি’ আউট হতেই ড্রেসিং রুমের ব্যালকনিতে দাঁড়িয়ে কুক ওঁদের ডেকে নিলেন৷‌ ইনিংসের সমাপ্তি ঘোষণা করার পর ১৪ ওভারে ইংরেজ শিবির একটা-দুটো উইকেট তুলে নিতে চেয়েছিল৷‌ দিনের শেষে ভারত ১ উইকেট ২৫৷‌ মঙ্গলবার সকালে ইংরেজদের গোলাগুলি থেকে নিজেদের বাঁচানোর জন্য, শুরুতে বল ছাড়ার দিকে নজর দিতে না পারলে খাদের কিনারায় পৌঁছে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে৷‌


ইংল্যান্ড শিবিরে খবর, অম্তত একটা টেস্টের জন্য হলেও অ্যান্ডারসনকে নির্বাসনে রাখা হবে৷‌ তার আগে ওঁরা সিরিজের ফলাফল ১-১ করতে চাইছেন৷‌ পৌনে দু’দিন বিশ্রাম পাওয়া অ্যান্ডারসন এদিন কিন্তু বাড়তি তেজ নিয়ে বোলিং করতে চাইছিলেন৷‌ শিখর ধাওয়ানকে (৬) ফেরালেন তিনি৷‌ ছোট বাউন্সার প্রায় শিখরের বুক পর্যম্ত উঠে এসেছিল৷‌ শরীর বাঁচাতে ব্যাট দিতেই প্যাভিলিয়নে ফেরার রাস্তা ধরিয়ে দিলেন অ্যান্ডারসন৷‌ দিনের বাকি সময়েও ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের টুঁটি চেপে ধরে রেখেছিলেন ইংরেজরা৷‌


একটু বৃষ্টি, একটু ঠান্ডা হাওয়া, এক টুকরো মেঘলা আকাশ, স-ব ছিল৷‌ তবু, উইকেট তুলে নিতে পারছিলেন না সামি, ভুবনেশ্বর কুমাররা৷‌ লর্ডসে হঠাৎ বাউন্সার দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে ম্যাচ জিতেছিলেন ধোনি৷‌ হঠাৎই৷‌ অনন্যোপায় হয়ে৷‌ এদিন এখানে, পাড়ার ক্রিকেটের মতো সব বোলারকে এক এক ওভার দিয়ে যেতে শুরু করলেন লাঞ্চের পর৷‌ এভাবে উইকেট পাওয়া যায়? কপিলদেব প্রশ্ন করেই যোগ করলেন, ‘আমি ভাই জীবনে এমন দেখিনি৷‌ শুনিওনি৷‌’ ডেভিড গাওয়ার বলে দিলেন, ‘অম্তত একটা উদাহরণ আমি দিতে পারি৷‌ বার্বাডোজে একবার ব্রায়ান লারা এই পদ্ধতি চালু করেছিল, অ্যামব্রোজ, ওয়ালশরা আটকে যাওয়ায়৷‌’


নিয়মের বাইরে গিয়ে ধোনি এমন কাজ করাননি তাঁর বোলারদের দিয়ে৷‌ তবু, এটাও এক ধরনের ফাটকা৷‌ লাগে তুক, না লাগে তাক৷‌ ফিসফিসানি মিডিয়া সেন্টারের তিনতলা জুড়ে৷‌ গাওয়ার যেভাবে বললেন, তাতে ধোনির এই কৌশল অভূতপূর্ব বা অশ্রুতপূর্ব নয়৷‌ এখানে প্রথা ভাঙলেই ভুরু নাচানোর পর্ব শুরু হয়ে যায়৷‌ এটা কি ধোনি ঠিক করছেন, আলোচনা বেশি দূর এগোতে পারেনি৷‌ রোহিত শর্মা পেয়ে গেলেন গ্যারি ব্যালান্সকে৷‌ ফরোয়ার্ড খেলেছিলেন৷‌ বল থাই প্যাডে লেগে জমা হয়েছিল ধোনির গ্লাভসে৷‌ বল ব্যাটে লাগেনি৷‌ পরিষ্কার বোঝা গেছে৷‌ রিপ্লেতেও ধরা পড়েনি ব্যাট স্পর্শের ছবি৷‌ কিন্তু আম্পায়ার রড টাকারের আঙুল গিয়েছিল উঠে৷‌


গোটা মাঠ বিস্মিত৷‌ কিন্তু আম্পায়ারের অমোঘ সিদ্ধাম্ত কে আর কবে অস্বীকার করতে পেরেছেন! আউটের নির্দেশ জেনে ব্যালান্স এক সেকেন্ডও অপেক্ষা না করেই প্যাভিলিয়নের পথে হাঁটতে শুরু করেছিলেন৷‌ ততক্ষণে তাঁর নামের পাশে ঝলমল করছিল ১৫৬৷‌ যে জমাট ভাব নিয়ে ব্যাট করছিলেন তাতে আউট হওয়ার কোনও লক্ষণ ছিল না৷‌ ঘন ঘন পানশালায় না গেলে ২৪ বছর বয়সী ব্যালান্স কিন্তু অনেক পথ যাবেন৷‌ এর মাঝে তিনি নিশ্চয়ই বুঝে যাবেন যে, ক্রিজের ভেতর দাঁড়িয়ে খেললে কিন্তু উঁচু মানের বোলাররা তাঁকে এমন স্বাধীনতা নিয়ে ব্যাটিং করতে দেবেন না৷‌ ইয়র্কশায়ারের হয়ে যিনি পাঁচ নম্বরে ব্যাট করেন, তাঁকে তিনে তুলে আনেন এখনকার ইংল্যান্ড কোচ পিটার মুরস৷‌


অ্যালিস্টার কুক ৯৫ রানের ইনিংস খেলে যে মঞ্চ তৈরি করে দিয়ে গিয়েছিলেন, তার ওপরই তৃতীয় উইকেটে ১৪২ রান যোগ করে গ্যারি ব্যালান্স-ইয়ান বেল জুটি৷‌ কুকের মতোই ফর্মে ফিরলেন ইয়ান বেল৷‌ এটি তাঁর ২১তম টেস্ট শতরান৷‌ খেলছেন ১০৩তম টেস্ট৷‌ ব্যালান্সের ইনিংসে ছিল সতর্কতা, শুরুতে৷‌ কিন্তু বেল পরিচ্ছন্ন থাকলেন আগাগোড়া৷‌ গতবারই ই সি বি-র বর্ষসেরা ক্রিকেটার, এবার একেবারেই রানের মধ্যে ছিলেন না৷‌ কিন্তু এদিন যেন এই ইনিংসের মাধ্যমে হারিয়ে যাওয়া বেল স্বমূর্তিতে, সশরীরে ধরা পড়লেন৷‌ তা করতে গিয়ে পেরিয়ে গেলেন টেস্ট ক্রিকেটে ৭,০০০ রানের সীমানা৷‌ মনে হয় গ্রাহাম গুচ, অ্যালেক স্টুয়ার্ট, অ্যালিস্টার কুকদের টপকে তিনিই ইংরেজ ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সব থেকে বেশি টেস্ট রান সংগ্রাহকের মুকুট পরে ফেলবেন৷‌


চা-পানের আগে ভুবনেশ্বর কুমার পেলেন ২ উইকেট৷‌ বাউন্সারে ফেরালেন মুইস আলিকে (১২)৷‌ এই অস্ত্রটা কিন্তু এ টেস্টে খুব কম ব্যবহার করলেন ভারতীয়রা৷‌ তার আগে জো রুট ফিরে গেছেন তাঁর লেগ কাটারে৷‌ অফ স্টাম্পের বাইরে পড়ে, হঠাৎ লিফট করে, আরও বাইরে বেরিয়ে যাওয়ার মুখে খোঁচা এবং ধোনির হাতে বন্দী হয়ে যান রুট৷‌ ক্যাচ পড়া অব্যাহত থাকল৷‌ চা-পানের পর সামির বলে ২৩ রানে থাকা বাটলারের ক্যাচ ফেলে দিলেন শিখর ধাওয়ান৷‌ লর্ডসে এ সব করেও জিতেছিল যে দল, তারা কিন্তু এখানে এমন বন্দোবস্ত করে যাচ্ছে, যাতে তারাই জিততে না পারে৷‌ ভারত ক্রমশ কোণঠাসা হয়ে পড়ছে নিজেদের কৃতিত্বে (ঞ্জ)৷‌


kolkata || bangla || bharat || bidesh || editorial || post editorial || khela ||
Tripura || Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited