Aajkaal: the leading bengali daily newspaper from Kolkata
কলকাতা ৪ বৈশাখ ১৪২১ শুক্রবার ১৮ এপ্রিল ২০১৪
Aajkaal 33
 প্রথম পাতা   কলকাতা  বাংলা  ভারত  সম্পাদকীয়  উত্তর সম্পাদকীয়  খেলা  আজকাল-ত্রিপুরা   পুরনো সংস্করন  বইঘর 
পশ্চিমবঙ্গের প্রথম দফার ভোট নির্বিঘ্নেই ।। মালদায় মমতা: শেষ করুন জমিদারতম্র ।। স্ত্রী এবং ছেলের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে তড়িঘড়ি সাড়ে ৪ কোটি টাকা গেল কোথায়? ।। কমিশনের কাজে পুরো খুশি নয়, তবে সাহসী ভোটারদের অভিনন্দন: সি পি এম ।। ছক কষেই মোদি বেনারসে: কারাত--দেবারুণ রায়,বারাণসী ।। ৪০০ গ্রাম চষে ফেলেছেন--অরুন্ধতী মুখার্জি৷‌ বাঁকুড়া ।। ধামসা-মাদল, গরুর গাড়ি, মহামিছিলে মনোনয়ন ।। ৪ আসনেই এত হিংসা, ওরা কী করে গণতন্ত্রের পক্ষে হয়! বিমান ।। রাজনীতির ওপর আশা নেই, তাই ভোট দিলেন না ১১৩ বছর বয়সী বৃদ্ধা ।। জেলার চিটফান্ডগুলি যাতে টাকা ফেরত দেয় তার জন্য প্রশাসনকে ব্যবস্হা নিতে নির্দেশ ।। মুখ্যমন্ত্রীর হোটেলে আগুন ।। পঞ্চম দফায় ১২১ আসনে ভোট শাম্তিতেই
খেলা

রিয়েলকে জেতাতেই নেমেছিলেন রেফারি

বার্সিলোনা শেষ, মানছেন না আনসেলোত্তি

১০ রাজ্যের দাবিতে পরশু জরুরি সভা ডাকল বোর্ড

স্বস্তির সঙ্গে বেদনাও সন্দীপদের

মনোজ, দিন্দা হতাশ করলেন

রাতভর উৎসব, অবরুদ্ধ রাস্তা, আহত ১৬

ফাইনালের সেই তিক্ত স্মৃতি এখনও যন্ত্রণা দেয় যুবরাজকে

খাবড়ার বদলে ভাবনায় ভাসুম, সুবোধ

এই গরমই চ্যালেঞ্জ: ধোনি

সুভাষ, সুব্রতর লক্ষ্য ‘এক’

বিয়েতে আইন ভেঙে দুর্ব্যবহার

৫-১ জিতে জার্মান কাপের ফাইনালে বায়ার্ন

গুয়ারদিওলাকে ফেরাক: ক্রুয়েফ

ফাইনালে কালীঘাট

ফ্রেঞ্চ ওপেনে নেই ফেডেরার?

রিয়েলকে জেতাতেই নেমেছিলেন রেফারি

রোনাল্ডোহীন দল এত মামুলি!

Google plus share Facebook share Twitter share LinkedIn share

সুরজিৎ সেনগুপ্ত




রিয়েল মাদ্রিদ-২ বার্সিলোনা-১

(ডিমারিয়া, বেল) (বার্ত্রা)

খেলার ৮৪ মিনিটে গ্যারেথ বেল-এর অনবদ্য জয়সূচক গোলটাতে রিয়েল ২-১ গোলে বার্সিলোনাকে হারালেও রিয়েলের এই জয়ের কালিমা পুরোটা মুছে ফেলা গেল না৷‌ যে কোনও দেশের ঐতিহ্যশালী চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের খেলায় স্নায়ুর চাপের কারণে উত্তেজনা থাকে, অনেক ক্ষেত্রেই শক্ত হাতে ম্যাচের হাল ধরতে গিয়ে সেই উত্তেজনা প্রশমনের বদলে রেফারিরা কিছুটা বাড়িয়েই দেন৷‌ কিন্তু কখনও কখনও রেফারির ম্যাচ পরিচালনায় তা প্রকট হয়ে পড়ে৷‌ আজকের ম্যাচের রেফারি এতটাই পক্ষপাতদুষ্ট ছিলেন যে, যারা জানে না ইনি কোন দেশের রেফারি, তাদের মনে হতে পারে ইনি আসলে রিয়েল মাদ্রিদ ক্লাবের রেফারি৷‌ অথবা এমনও হতে পারে যে, কোনও কারণে ইনি বার্সিলোনা এবং নেইমারের প্রতি বিরূপ মনোভাব পোষণ করেন৷‌ রিয়েলের প্রথম গোলের ক্ষেত্রে যেমন তাঁর দুর্বলতা ছিল প্রকট, তেমনই পেপে আর র্যামসকে উনি বোধহয় কানে কানে বলেছিলেন, ‘চালিয়ে যাও, আমি তো আছি৷‌’ রোনাল্ডোর অনুপস্হিতি রিয়েলের রক্ষণাত্মক ফুটবলের মূল কারণ, প্রতি-আক্রমণে বার্সা ডিফেন্সকে মাঝে মাঝে বিব্রত করার কারণ যত না রিয়েলের কৃতিত্ব, তার চেয়ে বেশি বার্সা রক্ষণের চূড়াম্ত এবং ধারাবাহিক ব্যর্থতা৷‌ যেদিন ভালদেস আহত হল সেদিনই বার্সিলোনার অনেকেই প্রমাদ গুনেছিল৷‌ পরিবর্ত গোলকিপার এতটাই নড়বড়ে যে, সেই ভয়ে বাকি রক্ষণও যে কোনও রিয়েলের আক্রমণে থরহরিকম্প হচ্ছে৷‌ বেল-বেনজিমা-ডিমারিয়া যখনই প্রতি-আক্রমণে এসেছে, তখনই কেঁপে উঠেছে বার্সা রক্ষণ৷‌ মার্তিনেজ বোধহয় তখন ভাবছিলেন, ভাগ্যিস রোনাল্ডো আহত! খেলা শুরুর ১০ মিনিটের মধ্যে রিয়েল গোল পায়৷‌ বেশ কিছুটা সূক্ষ্ম কোণ থেকে ডিমারিয়ার গড়ানো শট গোলকিপারের হাতে লেগে গোলে ঢোকে৷‌ এরকম শট থেকে গোল খাওয়া বিশ্বের প্রথম সারির দলের গোলকিপারের পক্ষে খুবই লজ্জাজনক৷‌ তবে ইসকোর কাছ থেকে বল পেয়ে বেনজিমা যখন ডিমারিয়াকে পাস খেলে, তখন ডিমারিয়া অম্তত এক মিটার অফসাইডে ছিল৷‌ এর পর খেলা ধরে বার্সিলোনা৷‌ মেসি ফর্মে নেই, আজ ইনিয়েস্তার পা থেকেও বল ছিটকে যাচ্ছিল৷‌ তাই, জাভি আর ফাব্রেগাসকে দায়িত্ব নিতে হয়৷‌ কিন্তু, ফাব্রেগাস তো আর মেসি নয়৷‌ দুই সাইডব্যাক আলবা আর আলভেজ দুই প্রাম্ত থেকে মুভ করতে থাকে এবং নেইমার বল ধরলেই রিয়েল বিপদের গন্ধ পেতে থাকে৷‌ সম্ভবত সেই কারণেই পেপে, র্যামস আর কোয়েস্ত্রাও হাত-পা চালাতে থাকে– নেইমারের পায়ে বল থাকলেও, না থাকলেও৷‌ ফ্রিকিকে ওয়াল যতদূরে থাকার কথা তা ছিল না, মেসি আবেদন করেও সাড়া পায়নি৷‌ নেইমার আর মেসি একাধিকবার ফাউলের আবেদন জানিয়ে সাড়া পায়নি যে রেফারির কাছে, সেই রেফারিই রিয়েলের আবেদনে আক্রাম্ত নেইমারকে হলদু কার্ড দেখান৷‌ তবে, এটাও ঠিক যে, ফুটবলার হিসেবে বিশ্ববন্দনা পেতে গেলে নেইমারকে আরও অনেক পরিণত হতে হবে, মাথা আরও ঠান্ডা করতে হবে৷‌ রিয়েলের দ্বিতীয় গোল হয়ে যাওয়ার পর জাভির পাস থেকে নেইমারের যে শট পোস্টে লেগে ফেরে, তা গোল হলেও এ কথাগুলো আমাকে বলতে হত৷‌ অধিকাংশ আক্রমণ বার্সিলোনার আর আচমকা প্রতি-আক্রমণ রিয়েলের– এভাবেই চলছিল খেলা৷‌ আলবা, নেইমার একদিকে আর বেনজিমা আর একদিকে সুযোগ নষ্ট করে৷‌ মর্ডিচের নিচু শট দুর্বল বার্সা গোলকিপারকে পেরিয়ে পোস্টে লেগে বাইরে যায়৷‌ এবং অবশেষে ৬৮ মিনিটে বাঁদিক থেকে কর্নার আদায় করে নেইমার৷‌ জাভির কর্নার থেকে হেডে গোল করে বার্ত্রা (১)১-৷‌ মুষড়ে পড়ে রিয়েলের উন্মত্ত সমর্থকরা, আমার বিরক্তি বাড়ছে, ভাবছি আরও কিছুক্ষণ জাগতে হবে– অতিরিক্ত সময়, টাইব্রেকার৷‌ এরকমই সময় মেসি ডান প্রাম্তে বল জমা দেয়, কোয়েস্ত্রাও বল কেড়ে নিয়ে সামনে বাড়িয়ে দেয়৷‌ বেল যখন বল ধরছে তখন বার্ত্রা তাকে কভার করে ফেলেছে, সেখান থেকে লাইনের বাইরে দিয়ে আবার মাঠে ঢুকে বিদ্যুৎগতিতে বল নিয়ে ছুটে গিয়ে গোলকিপারের দু’পায়ের ফাঁক দিয়ে গোল করে দেয় বেল (২)১-৷‌ কোপা দেল রে শেষ পর্যম্ত রিয়েলের৷‌ কিন্তু, রোনাল্ডো নেই বলে এত মামুলি হয়ে পড়ল রিয়েল! আরও একটা কথা মনে হচ্ছে– এর আগেও যেভাবে ব্রাজিলের প্রতিভাবান ফুটবলারদের অসুবিধে হয়েছে (রোনাল্ডো, রোনাল্ডিনহো...), একইভাবে কি নেইমারও ভুগবে? ট্রান্সফারের বিরাট টাকার অঙ্কটাই কি এর কারণ?






kolkata || bangla || bharat || editorial || post editorial || khela || Tripura ||
Error Report || archive || first page

B P-7, Sector-5, Bidhannagar, Kolkata - 700091, Phone: 30110800, Fax: 23675502/5503
Copyright © Aajkaal Publishers Limited

Designed, developed & maintained by   Remote Programmer Private Limited