আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ৭ বছরের জয়নাব আমিনকে ধর্ষণ করে হত্যায় অভিযুক্তদের ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তারের নির্দেশ পুলিসকে দিল লাহোর হাইকোর্ট। জয়নাব হত্যায় একটি জনস্বার্থ মামলার আবেদনের প্রেক্ষিতে এই নির্দেশ দেন হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি সইদ মনসুর আলি শাহ। তিনি বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, পাক পাঞ্জাব প্রদেশের কাসুর জেলায় এর আগেও এধরনের বহু ঘটনা ঘটলেও তা কেন আদালতের সামনে আনা হয়নি। কাসুরে এধরনের যত ঘটনা ঘটেছে এর আগে তার সব রিপোর্ট পুলিসকে জমা দিতে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। জেলা আদালতের কাছেও এধরনের ঘটনার রিপোর্ট চেয়ে হাইকোর্ট সাফ বলেছে, আদালত, এই ব্যাপারে কোনও বিলম্ব বরদাস্ত করবে না। এই মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ১৫ তারিখ। এই মামলায় যুগ্ম তদন্তকারী দল বা জিট–এর প্রধান অতিরিক্ত আইজি আবু বকর খুদা বক্‌শকে শুক্রবারই মুলতানের আঞ্চলিক অফিসার মহম্মদ ইদ্রিসকে নিয়োগ করেছে প্রশাসন। পাকিস্তানের অতিরিক্ত স্বরাষ্ট্রসচিব অবসরপ্রাপ্ত মেজর আজম সুলেমান খান সরকারি বিবৃতি দিয়ে এখবর জানিয়েছেন। দায়িত্ব নিয়েই মহম্মদ ইদ্রিসের নেতৃত্বাধীন জিটের একটি দল কাসুরের ডিপিও অফিসে গিয়ে জেলা পুলিস আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করে। এক পুলিস অফিসার এদিন দাবি করেছেন, এক সন্দেহভাজনের ডিএনএ এধরনের আরও ৬টি মামলার সঙ্গে মিলে গিয়েছে। দ্রুতই দোষীরা ধরা পড়বে বলে আশ্বাস পুলিসের। অন্যদিকে, শুক্রবার সকাল থেকেই স্বাভাবিক হয়েছে কাসুরের পরিস্থিতি। বন্‌ধ প্রত্যাহার করে দোকানপাট খুলেছেন ব্যবসায়ীরা। পুলিস এবং পাক রেঞ্জার্সের বিশাল বাহিনী সারা কাসুর জেলাজুড়ে এদিনও টহল দেয়।      

জনপ্রিয়
আজকাল ব্লগ

Back To Top